চাঁদপুর, সোমবার ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৬ সূরা-ওয়াকি'আঃ


৯৬ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৮০। ইহা জগৎসমূহের প্রতিপালকের নিকট হইতে অবতীর্ণ।


৮১। তবুও কি তোমরা এই বাণীকে তুচ্ছ গণ্য করিবে?


৮২। এবং তোমরা মিথ্যারোপকেই তোমাদের উপজীব্য করিয়া লইয়াছো!


 


 


 


 


 


হিংসা একটা দরজা বন্ধ করে অন্য দুটো খোলে।


-স্যামুয়েল পালমার।


 


 


নামাজ বেহেশতের চাবি এবং অজু নামাজের চাবি।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
নিষেধাজ্ঞা মানছে না জেলেরা চলছে মা ইলিশ শিকার
মিজানুর রহমান
১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনায় জেলেরা প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ শিকারের নিষেধাজ্ঞা মানছে না। জেলা-উপজেলা প্রশাসন, কোস্টগার্ড, পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও মৎস্য বিভাগের একাধিক টিম নদীতে মা ইলিশ রক্ষাভিযান পরিচালনা করলেও বিশাল নদীতে লোভী জেলেদের ইলিশ ধরা ঠেকানো যাচ্ছে না। দিন-রাত নদীতে ইলিশ ধরছে জেলেরা।



প্রশাসনের অভিযান অনুসরণ করে অসাধু জেলেরা দেদার ডিমওয়ালা মা ইলিশ শিকার করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ নদী-তীরবর্তী বাসিন্দাদের। প্রতিদিন সন্ধ্যার পর থেকে ভোর পর্যন্ত চাঁদপুর সদর, হাইমচর, মতলব উত্তর ও দক্ষিণ উপজেলার নদী তীরবর্তী ইউনিয়নের নদীসংযুক্ত খাল থেকে অসংখ্য জেলে নৌকা নদীতে যাচ্ছে। নদীর পাড়েই মাছ কেনা-বেচা হচ্ছে আর ভোরবেলায় ফেরি করে বাড়ি বাড়ি এবং পাড়া-মহল্লায় সে মাছ বিক্রি করছে।



উল্লেখ্য, আশ্বিনের পূর্ণিমার আগের ৪ দিন ও পরের ১৮ দিনসহ মোট ২২ দিন নদীতে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ লক্ষ্যে ৯ থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ নিধনে সরকার নিষেধাজ্ঞা জারি করে। আইনানুযায়ী এ সময়ের মধ্যে ইলিশ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাত, কেনা-বেচা ও বিনিময় সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।



 



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬০৫৮০৬
পুরোন সংখ্যা