চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৯-সূরা হাশ্র


২৪ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


২। তিনিই কিতাবীদের মধ্যে যাহারা কাফির তাহাদিগকে প্রথম সমবেতভাবে তাহাদের আবাসভূমি হইতে বিতাড়িত করিয়াছিলেন। তোমরা কল্পনাও কর নাই যে, উহারা নির্বাসিত হইবে এবং উহারা মনে করিয়াছিল উহাদের দুর্গগুলি উহাদিগকে রক্ষা করিবে আল্লাহ হইতে; কিন্তু আল্লাহর শাস্তি এমন এক দিক হইতে আসিল যাহা ছিল উহাদের ধারণাতীত এবং উহাদের অন্তরে তাহা ত্রাসের সঞ্চার করিল। উহারা ধ্বংস করিয়া ফেলিল নিজেদের বাড়ি-ঘর নিজেদের হাতে এবং মুমিনদের হাতেও; অতএব হে চক্ষুষ্মান ব্যক্তিগণ! তোমরা উপদেশ গ্রহণ কর।


 


 


assets/data_files/web

ভালোবাসা মানুষকে শিল্পী করতে পারে কিন্তু প্রাচুর্য বাধার সৃষ্টি করে।


-ওয়াশিংটন অলস্টন।


 


 


কৃপণতা একটি ধ্বংসকারী স্বভাব, ইহা মানুষকে দুনিয়া এবং আখেরাতের উভয় লোকে ক্ষতিগ্রস্ত করে।


 


 


ফটো গ্যালারি
মতলব উত্তরে নারীকে মারধরের ঘটনায় আটক ১
মতলব উত্তর ব্যুরো
১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


মতলব উত্তর উপজেলার আইঠাদী মাথাভাঙ্গা গ্রামে চাচীকে ব্যাপক মারধর করেছে তারই আপন দেবর পুত্র। তিনি মাথাভাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক মৃত কামরুজ্জামানের স্ত্রী। এ ঘটনায় আহত শিরিন মমতাজ (৪০) বাদী হয়ে মতলব উত্তর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। প্রধান আসামী গোলাম হোসেন প্রধানের ছেলে হারুন রশিদ ওরফে হিরন। এছাড়াও হিরনের পিতা গোলাম হোসেন মেম্বার, তার মা আরেফা বেগম, হিরনের স্ত্রী রোকসানা বেগমকেও আসামী করা হয়েছে। প্রধান আসামী হিরনকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করলেও সে জামিনে আসে।



মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত ৫ নভেম্বর দুপুরে তাদের যৌথ পুকুর পাড়ে শিরিন মমতাজের সাথে জায়গা জমি সংক্রান্ত বিষয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে হিরন তাকে পূর্ব পরিকল্পতভাবে ব্যাপক মারধর করে। তার হাত পা ও শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে মারাত্মক জখম করে। এক পর্যায়ে শিরিনকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে পানিতেও চুবায়। তার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।



শিরিন মমতাজ বলেন, আমার স্বামী বেঁচে থাকতেও তারা আমাদের উপর অত্যাচার করেছে। তিনি মারা যাওয়ার পর তাদের অত্যাচার আরো ব্যাপক হয়ে ওঠে। তাদের একটাই ভাবনা, আমাদের জায়গা জমির ভাগ দিবে না। হিস্যা অনুযায়ী আমার স্বামীর অংশ তারা দিতে নারাজ। এ নিয়ে কথা বললেই আমার ও আমার ছেলে সন্তানের উপর হামলা চালায়। প্রতিবাদ করলে মেরে ফেলবে বলেও হুমকি দেয়। তিনি কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, কোনো উপায়ন্তর না পেয়ে থানায় মামলা দায়ের করি। আমার উপর হিরন তার পরিবারের সদস্যদের সহযোগিতায় অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছে। আমার গলা থেকে ৫০ হাজার টাকা মূল্যের একটি স্বর্ণের চেইন নিয়ে গেছে সে।



এদিকে এলাকাবাসী জানায়, হিরন আগে থেকেই দাঙ্গাবাজ প্রকৃতির লোক। সে এর আগেও একাধিকবার ক্ষমতা দেখিয়ে এহেন কর্মকা- করেছে। তাকে কেউ কিছু বললে উল্টো ধমক দেয়। তাই তাকে এলাকার কেউ কিছু বলে না।



মামলার প্রধান আসামী হারুন রশিদ ওরফে হিরন বলেন, আমি আমার চাচীকে কোনো মারধর করিনি। তার সাথে শুধু কথা কাটাকাটি হয়েছে। তিনি আমার নামে মিথ্যা বলছেন।



ওসি মোঃ নাসির উদ্দিন মৃধা জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ১নং আসামীকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। পরবর্তীতে আইনগত প্রক্রিয়ায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



 



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৪১০২৪
পুরোন সংখ্যা