চাঁদপুর, রোববার ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরাম চৌধুরী ভোর ৪টায় ঢাকায় কিডনী হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন ( ইন্নালিল্লাহে --------রাজেউন)। || বাদ আসর চাঁদপুর সরকারি কলেজ মাঠে জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। || চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরাম চৌধুরী ভোর ৪টায় ঢাকায় কিডনী হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন ( ইন্নালিল্লাহে --------রাজেউন)।
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৮-সূরা মুজাদালা


২২ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


০২। তোমাদের মধ্যে যাহারা নিজেদের স্ত্রীগণের সহিত যিহার করে, তাহারা জানিয়া রাখুক- তাহাদের স্ত্রীগণ তাহাদের মতো নহে, যাহারা তাগাদিগকে জন্মদান করে কেবল তাহারাই তাহাদের মাতা; উহারা তো অসঙ্গত ও অসত্য কথাই বলে। নিশ্চয়ই আল্লাহ পাপ মোচনকারী ও ক্ষমাশীল।


 


 


 


সহনশীলতা এমন একটা গুন যা থেকে সফলতা আসবেই।


-জুভেনাল।


 


 


পুরাতন কাপড় পরিধান করো, অর্ধপেট ভরিয়া পানাহার করো, ইহা নবীসুলভ কার্যের অংশ বিশেষ।


 


 


 


 


ফটো গ্যালারি
আহসান মৃধা হাজীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী
হাজীগঞ্জ ব্যুরো
১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


ছাত্রলীগের রাজনীতির মাধ্যমে রাজনীতিতে হাতে খড়ি আহসান উল্যাহ মৃধার। ১৯৮৮ সালে হাজীগঞ্জ পাইলট হাই-স্কুল এন্ড কলেজের হাই স্কুল শাখায় ছাত্রকালীন সময়ে ছাত্রলীগের সাথে জড়িয়ে পড়ে রাজনীতি শুরু করেন। এক সময়ে বিএনপি'র ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত হাজীগঞ্জ পৌর এলাকার টোরাগড় গ্রামের ঐতিহাসিক মৃধা বাড়ির সন্তান আহসান উল্যাহ মৃধা। আসছে হাজীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে এবার সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হচ্ছেন তিনি। বর্তমানে তিনি হাজীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক পদে আসীন রয়েছেন। আহসান উল্যাহ মৃধার বাবা আলহাজ্ব মরহুম আনোয়ার উল্যাহ মৃধা ছিলেন তাঁর নিজের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও হাজীগঞ্জ পাইলট হাই স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিং বডির দীর্ঘদিনের সদস্য। মূলত বাবার রাজনীতির নীতি-নৈতিকতা দেখেই আওয়ামী লীগ তথা ছাত্রলীগের রাজনীতি শুরু করেন আহসান উল্যাহ মৃধা।



বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তথা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক আদর্শে বিশ্বাসী হয়ে এবং মুক্তিযুদ্ধের জীবন্ত কিংবদন্তি মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপির সহায়তায় রাজনীতি করা আহসান উল্যাহ মৃধা ১৯৯২ সালে হাজীগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি পদে আসীন হয়ে দায়িত্বে ছিলেন ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চাঁদপুর সরকারি কলেজ শাখার আহ্বায়ক পদে আসীন হন ১৯৯৪ সালে। এর পরেই জেলা ছাত্রলীগ শাখার স্কুল বিষয়ক সম্পাদক ও সম্মানিত সদস্য পদে ছিলেন দীর্ঘদিন। ছাত্রলীগের রাজনীতি করাকালীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার থাকাকালে বিরোধী দল তথা আওয়ামী লীগের সকল আন্দোলন সংগ্রামে হাজীগঞ্জ বাজারসহ সংলগ্ন এলাকায় ছিলো তার সরব উপস্থিতি।



শিক্ষিত পরিবারের সন্তান আহসান উল্যাহ মৃধার স্ত্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশায় রয়েছেন। এক সন্তানের জনক মৃধার বাবা জীবদ্দশায় ছিলেন সরকারি কর্মকর্তা। ছোট ভাই কর্মরত আছেন বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনে প্রকৌশলী হিসেবে। শ্বশুর মরহুম হুমায়ুন কবির মজুমদার ছিলেন শাহরাস্তির অবিভক্ত টামটা ইউনিয়ন পরিষদের ৩০ বছরের ইউপি চেয়ারম্যান। শাহরাস্তি উপজেলায় ওয়ারুকসহ তৎসংলগ্ন এলাকা মুজিবনগর হিসেবে খ্যাত করার মূল কারিগর ছিলেন এই হুমায়ুন কবির মজুমদার। এছাড়া তিনি ছিলেন শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আহ্বায়ক, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য।



হাজীগঞ্জ পূর্ব বাজারে রহিমা ট্রেডার্সের স্ব্বত্বাধিকারী আহসান উল্যাহ মৃধা পৌর এলাকার সর্বস্তরের লোকজনের বিপদে-আপদে রয়েছেন সবসময়। গরীব অসহায়দের পাশে থেকে তাদেরকে তাঁর নিজের সাধ্যমতো সহায়তা আর সহযোগিতা করে ইতিমধ্যে সুনাম কুড়িয়েছেন দল আর দলের বাইরের সাধারণ জনগণের কাছে।



চাঁদপুর কণ্ঠের কাছে এক প্রতিক্রিয়ায় ক্লিন ইমেজের এই রাজনীতিবিদ বলেন, আওয়ামী লীগকে কখনো অবমূল্যায়ন করিনি। আওয়ামী লীগের দুর্দিনে সবসময় দলের পাশে থেকেছি, এখনো আছি, ভবিষ্যতে অবশ্যই থাকবো। আমার দ্বারা আওয়ামী লীগ কখনো শোষিত হয়নি আর হবেও না। দলের মূল আদর্শ, জাতির জনকের স্বপ্ন আর জননেত্রীর ভিশন ২০২১ বাস্তবায়ন করতে সচেষ্ট থাকবো সবসময়। দলের ত্যাগী নেতা-কর্মী ও সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের সমতার ভিত্তিতে মূল্যায়ন করবো।



 



 



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ২,২৩,৪৫৩ ১,৬২,২০,৯০০
সুস্থ ১,২৩,৮৮২ ৯৯,২৩,৬৪৩
মৃত্যু ২,৯২৮ ৬,৪৮,৭৫৪
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৬২১১৩
পুরোন সংখ্যা