চাঁদপুর, মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৮-সূরা মুজাদালা


২২ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


০৪। কিন্তু যাহার এ সামর্থ্য থাকিবে না, একে অপরকে স্পর্শ করিবার পূর্বে তাহাকে একাদিক্রমে দুই মাস সিয়াম পালন করিতে হইবে; যে তাহাতেও অসমর্থ, সে ষাটজন অভাবগ্রস্তকে খাওয়াইবে; ইহা এইজন্য যে, তোমরা যেনো আল্লাহর ও তাহার রাসূলে বিশ্বাস স্থাপন করো। এইগুলি আল্লাহর নির্ধারিত বিধান; কাফিরদের জন্য রহিয়াছে মর্মন্তুদ শাস্তি।


 


 


 


খাদ্য খাওয়া ও খাওয়ানোর চেয়ে খাদ্য উৎপাদনই মহত্তর কাজ।


-তাবিব।


 


 


যার দ্বারা মানবতা উপকৃত হয়, মানুষের মধ্যে তিনি উত্তম পুরুষ।


 


 


 


 


ফটো গ্যালারি
ঘটনাস্থল ফরিদগঞ্জের নয়াহাটস্থ চির্কা চাঁদপুর কলেজ
তথাকথিত মাদকবিরোধী ক্রিকেট টুর্নামেন্টের মঞ্চ ভাংচুর পাল্টাপাল্টি হামলায় আহত ৭
একইস্থানে ছাত্রলীগের সমাবেশকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা * উভয় কর্মসূচি স্থগিত
ফরিদগঞ্জ ব্যুরো
১৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ গ্রুপিং প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে। গত ক'মাস ধরে একের পর এক ঘটনার পর সর্বশেষ গতকাল সোমবার উপজেলার নয়াহাটস্থ চির্কাচাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে কথিত মাদকবিরোধী ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে রোববার রাতে মঞ্চ ভাংচুর, হামলা-পাল্টা হামলা, দোকান ভাংচুরের চেষ্টা এবং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সমাবেশ করার ঘোষণা পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করে তুলেছে। হামলার ঘটনায় অন্তত ৭/৮জন নেতা-কর্মী আহত হন। বড় ধরনের সংঘর্ষ এড়াতে রোববার রাতে পুলিশের টহলের পর সোমবার সকাল থেকে রিজার্ভ পুলিশ নিয়ে সতর্ক অবস্থানে থাকে থানা পুলিশ এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এদিকে মানুষের মুখে মুখে ১৪৪ ধারা জারির কথা প্রচার হওয়ায় এবং উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের অনুরোধে উভয় পক্ষ অনুষ্ঠান আয়োজন থেকে সরে গিয়েছে। তাতে বড় ধরনের সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পেলো। তবে পাল্টাপাল্টি সমাবেশকে ঘিরে পরস্পরের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। এদিকে নয়াহাট বাজার এলাকায় নেতা-কর্মীদের আনাগোনা দেখা গেলেও উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে নিয়মিত শ্রেণিশিক্ষা কার্যক্রম চলেছে।



জানা গেছে, গতকাল সোমবার সকালে গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নের নয়াহাট বাজাস্থ চির্কাচাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে মাদক বিরোধী ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ৪র্থ আসর এনপিএল প্রিমিয়ার লীগের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উদ্বোধক ও অতিথি হিসেবে আওয়ামী লীগ নেতা ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি খাজে আহাম্মদ মজুমদার উপস্থিত থাকার কথা ছিল। অপরদিকে একই স্থানে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ ওয়ার্ড কমিটি গঠনের লক্ষ্যে নেতা-কর্মীদের নিয়ে প্রস্তুতিমূলক মতবিনিময় সভার আহ্বান করে।



এদিকে এর আগে রোববার রাত ৯টার দিকে প্রতিপক্ষের একটি গ্রুপ কলেজ মাঠে নির্মিত খেলার উদ্বোধনী মঞ্চ ভাংচুর করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় নয়াহাট বাজারে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা ও দোকানপাট ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এ সময় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি এমরান হোসেন মিলন ভূঁইয়া, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, মমিন খান, আওয়ামী লীগ নেতা বিল্লাল ছৈয়াল, সুমনসহ ৭/৮জন আহত হন।



সংবাদ পেয়ে ফরিদগঞ্জ থানার ওসিসহ পুলিশের ফোর্স উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত হন। পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার আশঙ্কায় উভয় পক্ষকে প্রশাসন ও থানা পুলিশ অনুষ্ঠান না করতে মৌখিক নিষেধাজ্ঞা দেয়। সোমবার সকাল থেকেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার ওসিহ বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান করে।



এ ব্যাপারে এনপিএলের আয়োজক যুবলীগ নেতা পুতুল সরকার জানান, সোমবার মাদকবিরোধী ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন হওয়ার কথা ছিল। উদ্বোধক হিসেবে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খাজে আহাম্মদ মজুমদার উপস্থিত থাকার কথা ছিলো। কিন্তু রাত ৮টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাহেদ সরকার ইউনিয়ন ছাত্রলীগকে দিয়ে ওই মাঠেই সমাবেশের ডাক দেয়। পরে রাতে জেলা পরিষদ সদস্য সাইফুল ইসলাম রিপনসহ লোকজন আমাদের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মঞ্চ ভাংচুর করে, বাজারে কর্মীদের উপর হামলা চালায় এবং দেলোয়ার হোসেন নামে এক ব্যবসায়ীর দোকান ভাংচুর করে। সকালে উপজেলা প্রশাসন অনুরোধ করায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আপাতত স্থগিত রেখেছি।



অন্যদিকে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি নুরুজ্জামান সোহাগ জানান, ওয়ার্ড ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের প্রস্তুতি হিসেবে সপ্তাহ পূর্বে আমরা সোমবার সকালে আমাদের পূর্ব নির্ধারিত ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সমাবেশ করার স্থান নির্ধারণ করি। এতে অতিথি হিসেবে বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান ও সাবেক চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকার উপস্থিত থাকার কথা ছিল। কিন্তু এর মধ্যেই হঠাৎ করে একই স্থানে তথাকথিত মাদকবিরোধী টুর্নামেন্টের উদ্বোধনের ঘোষণা দেয়। তবে সবচেয়ে হাস্যকর ও অবাক করার বিষয় হচ্ছে_যে ব্যক্তি ইতিমধ্যে কুখ্যাত মাদকসেবী হিসেবে পুরো উপজেলাই শুধু নয়, সারাদেশেই কুখ্যাতি অর্জন করেছে, সেই কুখ্যাত মাদকসেবীকেই মাদকবিরোধী টুর্নামেন্টের উদ্বোধক করা হয়।



এদিকে রোববার রাতে কে বা করা ওই টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মঞ্চ ভাংচুর করে এবং পরবর্তীতে আওয়ামী লীগের নেতাদের উপর হামলার ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে আমরা অনুষ্ঠান স্থগিত রেখেছি।



চির্কাচাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ আবু জাফর মোঃ শামছুদ্দিন জানান, কোনো পক্ষই অনুষ্ঠান আয়োজনে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নেয়নি। আমরা কলেজ গেইটে এ সংক্রান্ত নোটিশ প্রদান করলেও কেউ তা মানছে না।



নয়াহাট বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সভাপতি বাদশা জানান, এ ঘটনা নিয়ে ব্যবসায়ীরা আতঙ্কিত। আমরা চাই শান্তিপূর্ণ পরিবেশ। সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য আঃ সাত্তার ছৈয়াল জানান, এনপিএল আয়োজনে অন্যসময় আমাদের সহযোগিতা থাকলেও এবারের আয়োজন নিয়ে আমরা অন্ধকারে।



এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও ওই ইউনিয়নের বাসিন্দা আবু সাহেদ সরকার জানান, ইতিপূর্বে এনপিএল আয়োজনে আমরা অংশীদার ছিলাম। কিন্তু এ বছর আয়োজনের ব্যাপারে আমরা কিছুই জানি না। তাছাড়া মাদকবিরোধী টুর্নামেন্টের অনুষ্ঠানের উদ্বোধক হিসেবে একজন কুখ্যাত মাদকসেবীকে মেনে নেয়া যায় না। এগুলোর ব্যাপারে সজাগ রয়েছি। রাতে কে বা কারা মঞ্চ ভাংচুরের ঘটনার পরবর্তীতে আমাদের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতাদের উপর হামলা চালায়। তিনি আরো বলেন, এলাকার যুবকরা মাদকবিরোধী ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজনের মাধ্যমে যে উদ্যোগ নিয়েছে, তা বন্ধ হওয়ার সুযোগ নেই। মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে আমরা এনপিএলকে আরো ভালোভাবে আয়োজনের চেষ্টা করবো।



ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিব জানান, রাতেই সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করি। যা সোমবারও বহাল ছিল। বর্তমানে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।



উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আলী আফরোজ জানান, রাত থেকে অদ্যাবদি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রয়েছে। আমাদের নির্দেশে উভয় পক্ষ অনুষ্ঠান বন্ধ রেখেছে। তবে যে কোনো মূল্যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আমরা সচেষ্ট। তবে পুরো ঘটনায় কোনো পক্ষই থানায় কোনো অভিযোগ দেয়নি।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১০৭৯২১২
পুরোন সংখ্যা