চাঁদপুর, বুধবার ৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৬ রবিউস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৮-সূরা মুজাদালা


২২ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


১৯। শয়তান উহাদের উপর প্রভাব বিস্তার করিয়াছে; ফলে উহাদিগকে ভুলাইয়া দিয়াছে আল্লাহর স্মরণ। উহারা শয়তানেরই দল। সাবধান! শয়তানের দল অবশ্যই ক্ষতিগ্রস্ত।


 


 


 


জনগণ যদি নেতা নির্বাচনে ভুল করে তাতে জনগণেরই দুর্গতি বাড়ে।


-প্লেটো।


 


 


যাবতীয় পাপ থেকে বেঁচে থাকার উপায় হলো রসনাকে বিরত রাখা।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার চূড়ান্ত প্রস্তুতি সভায় আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল
বিজয়মেলা কারো ব্যক্তিগত সম্পদ নয়, এটি স্বাধীনতার সম্পদ
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
০৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


'এসো মিলি মুক্তির মোহনায়' সস্নোগানকে নিয়ে এ বছরও মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত চাঁদপুর হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ২৮তম মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ বছর বিজয় মেলা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর আবহে হবে। সে লক্ষ্যে গতকাল ৩ ডিসেম্বর মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টায় মাসব্যাপী চাঁদপুর মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলার চূড়ান্ত প্রস্তুতি সভা বিজয়মেলা মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে।



বিজয়মেলার চেয়ারম্যান অ্যাডঃ বদিউজ্জামান কিরণের সভাপ্রধানে ও মহাসচিব হারুন আল রশীদের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলার উপদেষ্টা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল। তিনি বলেন, কেউ ধমক দিয়ে বিজয়মেলাকে কিছু করতে পারবে না। এ মেলা কারো ব্যক্তিগত সম্পদ নয়, এটি স্বাধীনতার সম্পদ। সাংবাদিকরা তাদের লেখনীতে বিজয়মেলাকে তুলে ধরেছে। আমরা চাই, দেশের সকল প্রান্তে চাঁদপুরের মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলার নাম ছড়িয়ে পড়ুক। স্মৃতিচারণে এ বছর আমরা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের এনে স্মৃতিচারণ করাবো। এ বিষয়ে আমরা বিভিন্ন জেলার মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে কথা বলছি। ইতিমধ্যে কজনের সাথে আমাদের আলোচনা হয়েছে। বিজয়মেলার সংবাদ প্রকাশে মিডিয়ার ভূমিকা আরো বেশি থাকতে হবে। বিগত বছরগুলোর মতো এ বছরও বিজয়মেলার বিভিন্ন কর্মকাণ্ড ফেসবুকে লাইভ করা যায় তাহলে বিশ্ববাসী চাঁদপুরের বিজয়মেলা সম্পর্কে জানতে পারবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শতকণ্ঠের জাতীয় সংগীত শিল্পীরা যদি সাদা পোশাক পরে এর সাথে লাল-সবুজের উত্তরীয় পরলে জাতীয় সংগীতের মাধুর্য্য আরো বৃদ্ধি পাবে।



অন্য বক্তারা বলেন, এ বছর মাসব্যাপী বিজয়মেলায় অর্ধশতাধিক সাংস্কৃতিক ও নাট্যসংগঠন তাদের অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শতকণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনার মহড়া চলছে। বিজয়মেলাকে ঘিরে প্র্রকাশনার কাজ ইতিমধ্যে প্রয় ৯০ ভাগ শেষ হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা গোল টেবিল বৈঠকে প্রকাশ করবে। প্রত্যেকটি সাংস্কৃতিক সংগঠন তাদের অনুষ্ঠান শুরুর পূর্বে দেশের গান দিয়ে শুরু করতে হবে। দুয়ের অধিক বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গান পরিবেশন করতে হবে। আমরা অনেক মুক্তিযোদ্ধার ছবি বিজয়মেলার স্মৃতি সংরক্ষণ স্টলে সংযোজন করেছি। অনেক মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কাছে ছবি চেয়েও এখনো পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। যদি কারও ছবি বাদ গিয়ে থাকে তাহলে আমাদের কাছে দেয়ার জন্যে অনুরোধ করছি। মাঠ ও মঞ্চ প্রস্তুতের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এরই মধ্যে বিজয়মেলার নিরাপত্তার স্বার্থে মেলা অঙ্গনে ১৬টি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে ৫০ জনের স্বেচ্ছাসেবী টিম গঠন করা হয়েছে। নতুন প্রজন্মকে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সঠিক ইতিহাস ও জাতির পিতা সম্পর্কে জানাতে হবে।



বক্তব্য রাখেন উপদেষ্টা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, স্টিয়ারিং কমিটির সাধারণ সম্পাদক মহসীন পাঠান, মেলার ভাইস চেয়ারম্যান অজিত সাহা, তাফাজ্জল হোসেন পাটওয়ারী এসডু, সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার, নির্বাহী কমিটির সদস্য শহীদ পাটোয়ারী, মাঠ ও মঞ্চের আহ্বায়ক ইয়াহিয়া কিরণ, সাংস্কৃতিক পরিষদের আহ্বায়ক তপন সরকার, সাহিত্য পরিষদের আহ্বায়ক ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া, নাট্যপরিষদের আহ্বায়ক গোবিন্দ ম-ল, প্রচার পরিষদের সদস্য সচিব শেখ আল মামুন, মিডিয়া পরিষদের সদস্য সচিব কে.এম. মাসুদ প্রমুখ।



 



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
১৩৬১৪
পুরোন সংখ্যা