চাঁদপুর, মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১২ রবিউস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৯-সূরা হাশ্র


২৪ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৪। ইহা এইজন্য যে, উহারা আল্লাহ ও তাঁহার রাসূলের বিরুদ্ধাচরণ করিয়াছিল, এবং কেহ আল্লাহর বিরুদ্ধাচরণ করিলে আল্লাহ তো শাস্তিদানে কঠোর।


 


 


আকৃতি ভিন্ন ধরনের হলেও গৃহ গৃহই। -এন্ড্রি উল্যাং।


 


 


স্বদেশপ্রেম ঈমানের অঙ্গ।


 


 


ফটো গ্যালারি
ফরিদগঞ্জ উপজেলার মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাচ্ছে রূপসা সড়ক!
ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি
১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


ফরিদগঞ্জ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ একটি সড়কে দীর্ঘ প্রায় ৫ বছরেও উন্নয়নের কোনো ছোঁয়া লাগেনি। উপজেলার মানচিত্র থেকে প্রায় হারিয়ে যাওয়ার উপক্রম হওয়া এ সড়কটি হচ্ছে ফরিদগঞ্জ-রূপসা সড়ক। ল-ভ- এই সড়কে বর্তমানে যানবাহন চলাচল প্রায় বন্ধ রয়েছে। নিরূপায় হয়ে ভুক্তভোগীরা বিকল্প সড়ক ব্যবহার করে গন্তব্যে যাচ্ছেন। এতে তাদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।



দীর্ঘ সময়েও এ সড়কটিতে উন্নয়নের ছোঁয়া না লাগায় ক্ষুব্ধ হয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুহাম্মদ শফিকুর রহমান জরুরি ভিত্তিতে সড়কটি সংস্কারের জন্যে সম্প্রতি স্থানীয় সরকার বিভাগের উপজেলা প্রকৌশলীকে কড়া নির্দেশনা দিয়েছেন।



সংশ্লিষ্ট সূত্র ও ভুক্তভোগীরা জানায়, দীর্ঘসময় ধরে ফরিদগঞ্জ থেকে রূপসা গঙ্গাজলী ব্রীজ পর্যন্ত যাতায়াতের সড়কটি এখন মূলত মরণ ফাঁদ হয়ে আছে। প্রায় ৬ কিঃ মিঃ দৈর্ঘ্যের ওই সড়কটির উপরের পিচ ঢালাই সম্পূর্ণ উঠে গেছে। রাস্তাটিতে ছোট বড় অসংখ্য গর্ত রয়েছে। রাস্তাটি দেখে মনে হয়, এটি যেন বর্তমানে এক কঙ্কালসার দেহ নিয়ে পড়ে আছে। ফলে যানবাহন চলাচল প্রায় বন্ধ। অথচ এই সড়কটি দিয়ে এক সময়ে প্রতিদিন শত শত যানবাহন চলাচল করতো। এ ছাড়াও ফরিদগঞ্জ থেকে উপজেলার পূর্বাঞ্চলের রূপসা, খাজুরিয়া, আস্টা, গল্লাকসহ পার্শ্ববর্তী লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার বিশাল জনগোষ্ঠীর চলাচলের একমাত্র সড়ক এটি।



সড়কটির ব্যাপারে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে ভুক্তভোগী বড়ালী গ্রামের সহিদ উল্লা বলেন, দীর্ঘ সময়েও রাস্তাটিতে উন্নয়নের ছোঁয়া না লাগায় আমাদের চলাচল করতে কী পরিমাণ কষ্ট ভোগ করতে হচ্ছে তা বলে কাউকে বুঝাতে পারবো না। সিএনজি অটোরিঙ্া চালক রূপসা এলাকার জসিম উদ্দীন বলেন, এই রাস্তা দিয়ে গাড়ি চলাতো দূরের কথা হেঁটে চলাচল করাও কষ্টকর। ফরিদগঞ্জ থেকে রূপসা যেতে হলে বাধ্য হয়ে আমাদেরকে বিকল্প রাস্তা হিসেবে ঝুঁকি নিয়ে গাব্দেরগাঁও এলাকার একটি সরু রাস্তা ব্যবহার করতে হয়।



স্থানীয় সরকার বিভাগের উপজেলা প্রকৌশলী ড. জিয়াউল ইসলাম মজুমদার জানান, সড়কটি সংস্কারের জন্যে চলতি মাসের ১৯ ডিসেম্বর টেন্ডার ড্রপিং হবে। এমপি মহোদয় ওই রাস্তটি জনস্বার্থে দ্রুত সংষ্কারের জন্যে নির্দেশনাও দিয়েছেন। তবে কবে নাগাদ সড়কটির সংস্কার কাজ শুরু হবে তা সুস্পষ্ট করে কেউই বলতে পারছে না।



এদিকে ফরিদগঞ্জ-রূপসা সড়কের দুরবস্থার কথা স্বীকার করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান বলেন, সড়কটি সংস্কারের জন্যে টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ করে দ্রুত কাজ শুরু করতে ব্যক্তিগতভাবে আমি একাধিকবার ঢাকায় গিয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রধান প্রকৌশলীর সাথে কথা বলেছি। আগামী ১৯ ডিসেম্বর ওই সড়কের কাজের টেন্ডার ড্রপিং হবে। আশা করি সড়কটির সংস্কার কাজ সহসাই শুরু করতে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৫২৮০৭
পুরোন সংখ্যা