চাঁদপুর, মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১২ রবিউস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৯-সূরা হাশ্র


২৪ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৪। ইহা এইজন্য যে, উহারা আল্লাহ ও তাঁহার রাসূলের বিরুদ্ধাচরণ করিয়াছিল, এবং কেহ আল্লাহর বিরুদ্ধাচরণ করিলে আল্লাহ তো শাস্তিদানে কঠোর।


 


 


আকৃতি ভিন্ন ধরনের হলেও গৃহ গৃহই। -এন্ড্রি উল্যাং।


 


 


স্বদেশপ্রেম ঈমানের অঙ্গ।


 


 


ফটো গ্যালারি
সকল প্রকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে
------------------------------- জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান
প্রেস বিজ্ঞপ্তি
১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


'সবাই মিলে গড়বো দেশ, দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক টেকসই উন্নয়ন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে একসাথে' এ শ্লোগান নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশন জেলা সমন্বিত কার্যালয়, কুমিল্লার আয়োজনে জেলা প্রশাসক, চাঁদপুর, জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি (দুপ্রক) এবং সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)-টিআইবি, চাঁদপুরের সহযোগিতায় গতকাল আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস ২০১৯ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হয় র‌্যালি, মানববন্ধন ও আলোচনা সভা। চাঁদপুর সার্কিট হাউজ প্রাঙ্গণে সকাল সাড়ে ৯টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিবসের কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর পায়রা উড়িয়ে দিবসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে র‌্যালি, মানববন্ধন, দুর্নীতিবিরোধী গণস্বাক্ষর সংগ্রহ ও উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।



দিবসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান বলেন, সকল প্রকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, জাতির পিতা এই বাংলাদেশকে একটি সুখী, সমৃদ্ধশালী ও দুর্নীতিমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হলে আমাদের সবাইকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি আরও বলেন, এ বছর দুর্নীতিবিরোধী আন্দোলনে একটি নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একটি উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে দুর্নীতির বিরুদ্ধে আপোষহীন আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই আন্দোলন সকল প্রকার অপশক্তির বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশন এখন অনেক বেশি শক্তিশালী। তারা এখন স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে। তিনি আরো বলেন, আমাদের নীতি নৈতিকতা থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রে কার্যকরভাবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, চাঁদপুরের আইন শৃঙ্খলা খুবই ভালো। দুর্নীতি প্রতিরোধে সরকারের পাশাপাশি জনগণ, সুশীল সমাজ ও সাংবাদিকদের ভূমিকা অতি গুরুত্বপূর্ণ। তিনি আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবসের সফলতা কামনা করেন এবং দিবসের প্রতিটি কার্যক্রমে সকলকে অংশগ্রহণের জন্য অনুরোধ করেন।



আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এসএম জাকারিয়া বলেন, দুর্নীতি প্রতিরোধে সরকারের সদিচ্ছার ঘাটতি নেই। তিনি বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টিসহ আমাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি আরও বলেন, কিভাবে সঠিকভাবে মিউটেশন করতে হয়, কিভাবে পাসপোর্টের ফরম পূরণ করতে হয় তা এখনো আমরা শতকরা ১০ ভাগ মানুষ জানি না। এজন্যে দায়ী কে? সরকারের বহু সেবা এখন অনলাইনে করা হয়। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় হলো আমরা তা ব্যবহার করি না। দুর্নীতি প্রতিরোধে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। টিআইবি দুর্নীতির ধারণাসূচক নিয়ে কাজ করে থাকে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের যে আন্দোলন সে আন্দোলনের সাথে আমাদের সবাইকে একত্রিতভাবে কাজ করতে হবে এবং আরও বেশি করে দুর্নীতবিরোধী সামাজিক সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণ করতে হবে। তিনি বলেন, শতভাগ দুর্নীতি প্রতিরোধ করা কোথাও সম্ভব নয়, তবে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব।



বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চাঁদপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান বলেন, মিথ্যা কথা বলাও একটা বড় দুর্নীতি। দুর্নীতি প্রতিরোধে সবাইকে কাজ করতে হবে এবং দুর্নীতি প্রতিরোধে দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি ও সচেতন নাগরিক কমিটিকে সহযোগিতা করতে হবে। জাতির ভবিষ্যৎ এ তরুণ সমাজ, যুব সমাজ ও শিক্ষার্থীদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে যেভাবে আন্দোলনের মাধ্যমে সোচ্চার ভূমিকা পালন করছেন, তার এই আন্দোলনকে সফল করতে হলে আমাদের সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে। আমাদের সবাইকে দুর্নীতিকে না বলতে হবে। তিনি উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানান।



সনাক সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ মোশারেফ হোসেন বলেন, দুর্নীতিবিরোধী সচেতনতা সৃষ্টিতে সনাক-টিআইবি, চাঁদপুরে ১১ বছর ধরে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, আমরা সেই দিনটার জন্য অপেক্ষা করছি যেদিন এদেশে কোনো দুর্নীতি থাকবে না, দুদক থাকবে না, টিআইবি থাকবে না। তিনি বলেন, আমরা চাই এই তরুণ প্রজন্ম, এই নব প্রজন্ম এবং শিক্ষার্থীরা দুর্নীতির বিরুদ্ধে জোরালো ভূমিকা পালন করবে। আমাদেরকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে সামাজিকভাবে এগিয়ে আসতে হবে। দেশের টেকসই উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করছে দুর্নীতি। তাই দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত, পরিবারিক ও সামাজিকভাবে সচেতনতার মাধ্যমে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।



জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি (দুপ্রক) সভাপতি কাজী হাসেম বলেন, আজকের এই তরুণ প্রজন্ম যারা আগামীতে দেশকে নেতৃত্ব দেবে তাদেরকে দুর্নীতি প্রতিরোধে এগিয়ে আসতে হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে এদেশ থেকে দুর্নীতি দূর করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যে ভিশন ও মিশন তা বাস্তবায়ন করতে হলে আমাদের সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুব সমাজকে উদ্বুদ্ধ করার জন্য দুদকের আয়োজনে ইতঃমধ্যে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সততা সংঘ, সততা স্টোর ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করা হচ্ছে। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমাদেরকেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। সকলের সমন্বিত প্রচেষ্টায় এদেশ হবে দুর্নীতিমুক্ত এই প্রত্যাশা করছি। তিনি দিবসের প্রতিটি কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান।



টিআইবি'র রাজন চন্দ্র দে'র সঞ্চালনায় দিবসের উপর ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন টিআইবি'র এরিয়া ম্যানেজার মোঃ মাসুদ রানা। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, পাসপোর্ট অধিদপ্তর চাঁদপুরের সহকারী পরিচালক মোঃ তাজ বিল্লাহ, দুর্নীতি দমন কমিশন কুমিল্লার সহকারী পরিচালক মোঃ আক্তারুজ্জামান, জেলা তথ্য অফিসার মোঃ নুরুল হক, চাঁদপুর জেলা স্কাউটস্-এর সম্পাদক অজয় কুমার ভৌমিক প্রমুখ। আলোচনা সভায় চাঁদপুরের সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীগণ, ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীবৃন্দ, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি (দুপ্রক), সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), স্বজন, ইয়েস ও ইয়েস ফেন্ডস গ্রুপের সদস্যবৃন্দ অংশগ্রহণ করে।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৭৬৯০৬
পুরোন সংখ্যা