চাঁদপুর, শুক্রবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৭-সূরা মুল্ক


৩০ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৬। যাহারা তাহাদের প্রতিপালককে অস্বীকার করে তাহাদের জন্য রহিয়াছে জাহান্নামের শাস্তি, উহা কত মন্দ প্রত্যাবর্তনস্থল।


 


 


assets/data_files/web

আমার নিজের সৃষ্টিকে আমি সবচেয়ে ভালোবাসি।


-ফার্গসান্স।


 


 


 


যে শিক্ষা গ্রহণ করে তার মৃত্যু নেই।


 


 


ফটো গ্যালারি
অষ্টাদশ জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০১৯-এর দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল
হাইমচরকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে মতলব উত্তর
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম
১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হলো অষ্টাদশ জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল খেলা। এতে প্রতিপক্ষকে ৩-০ গোলে হারানোর পর ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করলো মতলব উত্তর উপজেলা।



দুদলের মধ্যে হাইমচর দল একেবারে সাদামাটা দল গঠন করে মাঠে নামে। অপরদিকে টুর্নামেন্টের ফেভারিট দল মতলব উত্তর উপজেলা বিদেশী খেলোয়াড় ও স্থানীয় ভালো খেলোয়াড়দের নিয়ে খেলতে নামে। খেলা শেষে মাঠে উপস্থিত ক্রীড়া সাংবাদিকদের জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান জানান, ইনশাআল্লাহ আগামী ৩১ ডিসেম্বর চাঁদপুর স্টেডিয়ামে অষ্টাদশ জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে। বছরের শেষ দিনের ওই খেলার শুরুতে এবং শেষে ক্রীড়ামোদী দর্শকদের জন্য আয়োজন করা হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ওই অনুষ্ঠানে গান গাইবেন ঢাকা ও চাঁদপুরের জনপ্রিয় শিল্পীরা। আর সেই ফাইনালে মুখোমুখি হবে চাঁদপুর সদর উপজেলা ও মতলব উত্তর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা।



এবারের অষ্টাদশ জেলা প্রশাসক ফুটবল টুর্নামেন্টে অংশ নেয় চাঁদপুর সদর উপজেলাসহ ৮ উপজেলা। টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ড থেকে সেমি-ফাইনাল পর্যন্ত যে ৬টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রত্যেকটি খেলা হয়েছে নকআউট পদ্ধতির। জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল খেলায় মুখোমুখি হয় হাইমচর উপজেলা ও মতলব উত্তর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার ফুটবল দল। খেলার শুরু থেকেই দেখা গেছে যে, হাইমচর উপজেলা দল একেবারে সাদামাটা দল গঠন করে সেমি-ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে খেলতে নামে। মতলব উত্তর উপজেলা বারবার হাইমচর উপজেলাকে আক্রমণ করে। ১৪ মিনিটের সময় মতলব উত্তরের ৮ নম্বর জার্সি পরিহিত শাহিন অনেকটা মাঝমাঠ থেকে আচমকা শট করে দলের পক্ষে প্রথম গোল করেন। এর কিছুক্ষণ পরেই মতলব উত্তরের ১০ নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়াড় আল-আমিন আরেকটি গোল করে দলকে এগিয়ে নিয়ে যান ২-০ গোলে। প্রথমার্ধের খেলা ২-০ গোলে শেষ হয়।



বিরতি শেষে আবার দু'দল নামে মাঠে খেলতে। হইমচরের স্থানীয় যে ক'জন খেলোয়াড় অংশ নিয়েছিল তারা বেশ ক'বার আক্রমণ করার চেষ্টা করেন। কিন্তু মতলব উত্তরে রক্ষণভাগটা এতটাই শক্তিশালী ছিল যে তাদের কাছে গিয়ে তারা পাত্তা পাননি। রেফারির শেষ বাঁশি বাজার ৬ মিনিট আগে মতলব উত্তরের ৯ নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়াড় হাফিজ গোল করে দলকে ৩-০ গোলে এগিয়ে নিয়ে যান।



খেলা শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ আগে মাঠে একটি গুঞ্জন সৃষ্টি হয়। তা হলো, মতলব উত্তর উপজেলার ১০ নম্বর জার্সি পরিহিত যে খেলোয়াড় হাইমচরের সাথে দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল খেলায় অংশ নেয়, সে খেলোয়াড়টি নাকি হাইমচর উপজেলার হয়ে প্রথম রাউন্ডের ম্যাচ খেলে। তবে লোকমুখে শোনা গেলো, হাইমচরে দায়িত্বরত যারা ছিলেন তারা এ বিষয়ে কোনো কথাই বলেননি। মতলব উত্তর উপজেলার হয়ে ১০ নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়াড়ের বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, কই আমিতো এই বিষয়টি সম্বন্ধে কিছুই জানি না। মতলব উত্তরের দায়িত্বরত কর্মকর্তা ও সাবেক ফুটবলার আজাদকে এই বিষয়টি সম্বন্ধে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।



গতকালকের দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল খেলায় অংশ নেয়া খেলোয়াড়রা হলেন : মতলব উত্তর উপজেলা : শাহেনশাহ, বিজয়, সানডে, আলমগীর, সোহেল, শংকর, শাহিন, হাফিজ, আব্বাস, সানি ও আল-আমিন।



হাইমচর উপজেলা : রিয়াজ, আল-আমিন, সাইফ, জসিম, আল-আমিন মুন্সি, টুটুল, জুয়েল, মিল্লাত, শান্ত, আব্দুর রহমান ও সিয়াম।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১৭০৩৫০
পুরোন সংখ্যা