চাঁদপুর, রোববার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৪-সূরা তাগাবুন


১৮ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


১১। আল্লাহর অনুমতি ব্যতিরেকে কোন বিপদই আপতিত হয় না এবং যে আল্লাহকে বিশ্বাস করে তিনি তাহার অন্তরকে সুপথে পরিচালিত করেন। আল্লাহ সর্ববিষয়ে সম্যক অবহিত।


 


 


 


assets/data_files/web

আমার নিজের সৃষ্টিকে আমি সবচেয়ে ভালোবাসি।


-ফার্গসান্স।


 


 


 


যে শিক্ষা গ্রহণ করে তার মৃত্যু নেই।


 


 


ফটো গ্যালারি
পুলিশ মার খেলো, মামলা ছাড়াই মীমাংসায় ঘটনা ধামাচাপা!
বিশেষ প্রতিনিধি
২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর শহরে মাদক সেবনকারী, বিক্রেতা, জুয়াড়ির আক্রমণে রেলওয়ে পুলিশ কনস্টেবল ইব্রাহিম আহত হওয়া ও তার ১১ হাজার টাকা ছিনতাই হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পরে মামলা না করে মাত্র ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে ঘটনাটি ধামাচাপা ও সমাধান করার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি গত বুধবার রাত ৯টায় চাঁদপুর শহরের নৌ-টার্মিনাল এলাকায় ঘটলেও গত শুক্রবার রাতে আক্রমণকারী শাহীনকে আটক করার পর ধামাচাপা দেয়া হয়েছে বলে রেলওয়ে থানায় কর্মরত কর্মকর্তার কাছ থেকে সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ ধরনের একটি মারাত্মক ঘটনায় মামলা না হয়ে ধামাচাপার মাধ্যমে শেষ হওয়ার কারণে ঘটনাস্থল ও রেলওয়ে এলাকায় চাপা ক্ষোভ ও আলোচনার ঝড় বইছে।



ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার সাথে সংশ্লিষ্ট সালিস ও পুলিশের সাথে যোগাযোগ করে জানা গেছে, চাঁদপুর শহরের ৩নং কয়লা ঘাট এলাকার চিহ্নিত মাদক সেবনকারী, বিক্রেতা, জুয়াড়ি ও কোস্টগার্ডের সোর্স পরিচয়দানকারী মোঃ শাহীন মিয়ার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগ থাকার কারণে চাঁদপুর রেলওয়ে থানার পুলিশ কনস্টেবল মোঃ ইব্রাহিম খলিল তাকে থানায় যাওয়ার জন্য বলেন। এতে নৌ-টার্মিনাল এলাকার জাকিরের দোকানের সামনে শাহীন মিয়ার সাথে ইব্রাহিম খলিলের কথা কাটাকাটি ও এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এতে ইব্রাহিমকে শাহীন মিয়া ও তার সাথে থাকা কয়েকজন যুবক মাথায় ও শরীরের বিভিন্নস্থানে বেদমভাবে প্রহার করলে তিনি রক্তাক্ত জখম হন। এ সময় ইব্রাহিমের সাথে থাকা মানি ব্যাগের ১১ হাজার টাকাসহ ব্যাগটি যুবকরা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকে শাহীন মিয়া ও ছিনতাইকারী যুবকরা এলাকা থেকে গা ঢাকা দেয়।



গত শুক্রবার রাতে চাঁদপুর রেলওয়ে থানার একদল পুলিশ ৩নং কয়লাঘাট এলাকার ছাবের গাজীর বরফ কলের পেছনে বসবাসকারী শাহীন মিয়াকে তার বাসায় পেয়ে আটক করে তাকে বরফ কলের সামনের ব্যবসায়ী কাবিলের দোকানে নিয়ে আসে। রেলওয়ে পুলিশ তাকে থানায় না নিয়ে ও মামলা না দিয়ে কাবিলের গদিঘরে বসে ঘটনাটি সমাধানের লক্ষ্যে এক বৈঠকে বসে। সে সালিস বৈঠকে ছিলেন শাহীন মিয়ার স্ত্রীর বড় ভাই জাহাঙ্গীর, ইসমাইল খালাসী, বাদশা, আদি ও সংবাদ কর্মী সাইদুর রহমান অপু। তারা ঘটনা সম্পর্কে অবহিত হয়ে ছিনতাই হওয়া ১১ হাজার টাকা সঠিক ধরে চিকিৎসা বাবদ আরো ৪ হাজার টাকা জরিমানা নির্ধারণ করে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা ও আক্রমণকারী শাহীনকে জুতা পেটার সিদ্ধান্ত নিয়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দিয়ে সমাধান করেন বলে সালিসে থাকা ব্যক্তিরা জানান। এ ছাড়া সালিসদেরকে বখরা দেন বলে শাহীন মিয়ার স্ত্রীর বড় ভাই জাহাঙ্গীর জানান।



এ ঘটনায় সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, এত বড় একটি ঘটনা ঘটলো, কিন্তু পুলিশ কেন মামলা না করে কোন্ শক্তির বলে শাহীনকে এ সামান্য টাকা জরিমানা করলেন। আরো প্রশ্ন উঠেছে, সন্ত্রাসীদের কাছে যদি পুলিশের নিরাপত্তা না তাকে তাহলে সাধারণ মানুষের কী হবে?



এ ব্যাপারে সালিস যার ঘরে হয়েছে সে কাবিল জানান, রেলওয়ে থানার পুলিশ কনস্টেবল মোঃ ইব্রাহিম খলিলকে আহত অবস্থায় আমি উদ্ধার করে মানবিক কারণে কয়লা ঘাটের শংকর ডাক্তারের ফার্মেসীতে নিয়ে চিকিৎসা করাই। তারপর কী হয়েছে সেটা আমি ছিলাম না, জানি না। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ব্যক্তি মোঃ শাহীন মিয়ার সাথে যোগাযোগ করলে সে জানায়, আমার সাথে কোনো পুলিশের কিছু হয়নি। আমি এ ব্যাপারে কিছু জানি না।



আহত পুলিশ কনস্টেবল ইব্রাহিম খলিল জানান, আমার সাথে শাহীনের আমাদের থানার সামনে হাতাহাতি ও ধস্তাধস্তি হয়। সে মাদক ব্যবসায়ী কিনা তা আমার জানা নেই। এতে আমি আহত হয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছি। বিষয়টি ওসি স্যারকে জানিয়েছি। আমাদের থানার কয়েকজনসহ শাহীনকে যে আটক করে সেটা আমার জানা নেই। আমি কোনো জরিমানা গ্রহণ করিনি। এখনও মামলা করার সুযোগ রয়েছে। আমি আমার অফিসারের সাথে যোগাযোগ করে দেখি।



এ ব্যাপারে রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সারওয়ার আলম মুঠোফোনে জানান, পুলিশ কনস্টেবল ইব্রাহিমের সাথে নৌ-টার্মিনালে জাকিরের দোকানের কাছে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে, সেটা আমি জানতে পেরেছি। সে মামলা না করায় মামলা নেয়া হয়নি। আমি শুনেছি, ইব্রাহিমের সাথে যাদের ঘটনা ঘটেছে তাদের সাথে সে মীমাংসার মাধ্যমে ঘটনাটি শেষ করেছে।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪১৭৭৫৪
পুরোন সংখ্যা