চাঁদপুর, বুধবার ১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬, ০৬ শাবান ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কসহ আরো ৯ জনের করোনা শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ২১৯
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৯-সূরা হাক্‌কা :


৫২ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


২৭। 'হায়! আমার মৃত্যুই যদি আমার শেষ হইত!


২৮। 'আমার ধন-সম্পদ আমার কোন কাজেই আসিল না।


২৯। 'আমার ক্ষমতাও বিনষ্ট হইয়াছে।'


 


 


assets/data_files/web

শ্রেষ্ঠ বইগুলি হচ্ছে শ্রেষ্ঠ বন্ধু।


-লর্ড চেস্টারফিল্ড।


 


 


 


 


নম্রতায় মানুষের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায় আর কড়া মেজাজ হলো আয়াসের বস্তু অর্থাৎ বড় দূষণীয়।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুর জেলায় বিদেশফেরত হোম কোয়ারেন্টাইনে ২১৭৫ জন
১৪ দিন পর মুক্ত হয়েছেন ২১১৪ জন ॥ আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৪ জন
গোলাম মোস্তফা ॥
০১ এপ্রিল, ২০২০ ১৫:৫৮:৫২
প্রিন্টঅ-অ+


 বিশ্বব্যাপী আতঙ্ক ছড়ানো ভাইরাস করোনার কারণে চাঁদপুর জেলায় সন্দেহভাজন হিসেবে হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে এ পর্যন্ত মুক্ত হয়েছেন ২১১৪ জন এবং এখনো হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ২১৭৫ জন। অপরদিকে হাসপাতালের আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে গেছেন ৪ জন। জেলা সিভিল সার্জন অফিস থেকে উল্লেখিত তথ্য জানা গেছে। এ তথ্য আজ ১ এপ্রিল পর্যন্ত বলে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কন্ট্রোল রুম থেকে জানানো হয়।

জেলার ৮টি উপজেলার হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন এমন যারা ইতিমধ্যে ছাড়পত্র নিয়ে চলে গেছেন, তাদের সংখ্যা উপজেলাওয়ারী যথাক্রমে : চাঁদপুর সদর উপজেলায় ২৩৯ জন, হাইমচর উপজেলায় ৮৫ জন, মতলব উত্তর উপজেলায় ১৬০ জন, মতলব দক্ষিণ উপজেলায় ২০৩ জন, ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ৬৬৪ জন, হাজীগঞ্জ উপজেলায় ৩৬০ জন, কচুয়া উপজেলায় ১৪৫ জন ও শাহরাস্তি উপজেলায় ২৫৮ জন।

এছাড়া এখনো কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন, যা আজ ১ এপ্রিল পর্যন্ত ধরা হয়েছে, তারা হচ্ছেন চাঁদপুর সদর উপজেলায় ২২৮ জন, হাইমচর উপজেলায় ৫২ জন, মতলব উত্তর উপজেলায় ১৬২ জন, মতলব দক্ষিণ উপজেলায় ১৭০ জন, ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ৬২১ জন, হাজীগঞ্জ উপজেলায় ৩৬০ জন, কচুয়া উপজেলায় ২৫৮ জন ও শাহরাস্তি উপজেলায় ৩৫৭ জন।

এদিকে এ ভাইরাসের কারণে হাসপাতালের আইসোলেশনে ছিলেন মাত্র ৪ জন। এরা সকলে ছাড়পত্র নিয়ে নিজ নিজ বাড়িতে চলে গেছেন। এর মধ্যে মতলব উত্তর উপজেলায় ৩জন ও চাঁদপুর সদর উপজেলায় ১ জন।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
২৬৪০৩৮
পুরোন সংখ্যা