চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ২ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬, ০৭ শাবান ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর সদর উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা শত ছাড়ালো : চাঁদপুরে আরো ১৪ জনের করোনা শনাক্ত, জেলা মোট আক্রান্ত ১৮০
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৯-সূরা হাক্কা ঃ


৫২ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


 


২০। 'আমি জানিতাম যে, আমাকে আমার হিসাবের সম্মুখীন হইতে হইবে।'


২১। সুতরাং সে যাপন করিবে সন্তোষজনক জীবন;


২২। সুউচ্চ জান্নাতে


 


আল হাদিস


 


যা ইচ্ছা আহার করতে পারো, যা ইচ্ছা পরিধান করতে পারো, যদি তোমাকে অপব্যয় ও গর্ব স্পর্শ না করে।


বাণী চিরন্তন


মধুর ব্যবহার লাভ করতে হলে মাধুর্যময় ব্যক্তিত্বের সংস্পর্শে আসতে হয়। -উইলিয়াম উইন্টার।


 


 


 


 


 


assets/data_files/web

যে যা বলে বলুক, তুমি তোমার নিজের পথে চল।


-দান্তে।


 


 


পুরাতন কাপড় পরিধান করো, অর্ধপেট ভরিয়া পানাহার করো, ইহা নবীসুলভ কার্যের অংশ বিশেষ।


 


ফটো গ্যালারি
করোনায় হাইমচরে হাজার হাজার লোক কর্মহীন হয়ে পড়েছে
মোঃ সাজ্জাদ হোসেন রনি ॥
০২ এপ্রিল, ২০২০ ১৫:৪৭:৩৮
প্রিন্টঅ-অ+


মহামারী করোনার প্রভাবে হাইমচরের ৬ ইউনিয়নের ৫৪ ওয়ার্ড এলাকার হাজার হাজার লোক কর্মহীন হয়ে পড়েছে। হাইমচর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপির পক্ষ হতে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। ঘরে থাকা কর্মসূচি চলমান থাকা পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৩ হাজার পরিবারের খাদ্য সামগ্রী দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

দিনমজুর, ছোট চা দোকানী, রিক্সা, ভ্যান, অটোবাইক, সিএনজি অটোরিকশা চালক, ছোট, মাঝারি ও বড় ব্যবসায়ী হতে সকল শ্রেণী পেশার মানুষ ঘরবন্দী অবস্থায় কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এমনকি অনেক প্রবাসীর পরিবার প্রবাসে আয় রোজগার করা ব্যক্তি ঘরবন্দী থাকায় অসহায় অবস্থায় আছে। উপজেলা সদরস্থ আলগী বাজারের সাইকেল মিকার কর্নজিত জানান, এক সপ্তাহ কোনো আয় নেই। বিদ্যুতের ছুটা কাজ করা কৌশিকের কোন কাজ নেই, বেকার ঘরবন্দী। ঝালাইকারক পরিমল বলেন, কাজ নেই, স্ত্রী সন্তান নিয়ে অসহায় অবস্থায় আছি। একই অবস্থা মহজমপুরের দিনমজুর নিখিল মাঝি, মৃত লনী গোপালের বিধবা স্ত্রী সাধনা, উত্তর আলগীর ভ্যান চালক সিরাজ, রিক্সা চালক রুশু মিয়া, মহজমপুরের রিক্সা চালক মোক্তারসহ অসংখ্য রিক্সা শ্রমিকের। তারা বলেন, মানুষতো ঘর হতে বের হয় না, আমরা রিক্সা নিয়া কই যামু। মহজমপুরের গাছকাটা শ্রমিক মজিল ভূঁইয়া, আলগী বাজারের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আহসান উল্লাহ, কার্তিক স্বর্ণকার, চা দোকানদার আলমগীর, মটর সাইকেল মিকার রাসেল, অটোচালক সুরুজ, সুজন সুতার, মহজমপুর দিন মজুর আলী কোতয়াল, মহজমপুর কলোনীর সিরাজ, মিজানসহ অসংখ্য দিন মজুর জানান, এক সপ্তাহ কর্মহীন, স্ত্রী-সন্তান নিয়ে সঙ্কটে আছি।

আলগী উত্তর ইউনিয়নের মেম্বার ফারুক গাজী জানান, আমার ওয়ার্ডে প্রায় ১৪ পরিবারকে মঙ্গলবার পর্যন্ত কোনো খাদ্য সহায়তা দিতে পারি নি। আলগী দক্ষিণ ইউনিয়নের শিক্ষক নেতা সালাউদ্দিন মাস্টার জানান, তার এলাকায় কয়েকশত পরিবার ঘরবন্দী অবস্থায় আছে। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটওয়ারী ও সমাজের বিত্তশালীদের এগিয়ে আসার আহ্বান রইলো। মানুষজনের কর্ম না থাকায় তারা অসহায় জীবনযাপন করছে। হাজার হাজার পরিবার। অনেকে লোক লজ্জায় কারো কাছে হাত পাততে ইতস্তত করছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌসী বেগম বলেন, এই দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য আমরা খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছি, করোনায় কর্মহীনদের তালিকা প্রণয়নে ইউপি চেয়ারম্যানদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। হতাশ হওয়ার কিছু নাই। সরকার-এর নির্দেশনা মোতাবেক প্রত্যেক পরিবারের জন্য খাদ্য সহায়তা দেয়া হবে।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটওয়ারী বলেন, করোনার এই মহা দুর্যোগে অসহায় পরিস্থিতির শিকার মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে। আমি উদ্যোগ নিয়েছি, আপনারা যারা বিত্তবান আছেন, এই কর্মে আমার সাথে শরীক হয়ে ব্যক্তি পর্যায়ে মানব সেবায় নিয়োজিত হওয়ার আহবান রইল। ইনশাল্লাহ সরকার ও ব্যক্তিগত পক্ষ হতে পর্যায়ক্রমে প্রত্যেক পরিবারে খাদ্য সহায়তা পৌঁছানোর জন্যে আমরা চেষ্টা করছি।


আজকের পাঠকসংখ্যা
২৬৮৫৭৩
পুরোন সংখ্যা