চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ০৯ এপ্রিল ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুরে আরো ১২ জনের করোনা শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ১৫৯
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৯-সূরা হাক্কা :


৫২ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


১৬। এবং আকাশ বিদীর্ণ হইয়া যাইবে আর সেই দিন উহা বিশ্লিষ্ট হইয়া পরিবে।


১৭। ফিরিশ্তাগণ আকাশের প্রান্তদেশে থাকিবে এবং সেই দিন আটজন ফিরিশ্তা তোমার প্রতিপালকের আরশকে ধারণ করিবে তাহাদের ঊধর্ে্ব।


 


assets/data_files/web

বেদনা হচ্ছে পাপের শাস্তি।


-বুদ্ধদেব।


 


 


স্বভাবে নম্রতা অর্জন কর।


 


প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মধ্যে সমন্বয়হীনতা!
চাঁদপুর শহরে দিন ও রাতের পরিবেশে ভিন্নতা কেনো? দিনে কি করোনা নির্বাসনে চলে যায়?
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট ॥
০৯ এপ্রিল, ২০২০ ১৬:১৪:০২
প্রিন্টঅ-অ+


করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বেঁচে থাকতে সরকারি নির্দেশনা চাঁদপুরে কিছু সময়ের জন্যে মানা হচ্ছে। বাকি সময় বলতে গেলে আগের অবস্থাতেই থাকে। আর প্রশাসনও কেনো জানি দিনের বেলা একেবারে শিথিল অবস্থায় থাকে। যদিও প্রায় দোকানপাটই বন্ধ থাকে, কিন্তু রাস্তার পাশে অসংখ্য ভ্যানগাড়ি নানা পণ্য বিক্রি করে থাকে। আর মানুষের চলাচলও থাকে প্রচুর। তবে শহরের সব জায়গায় এ অবস্থা দেখা যায় না। বিশেষ করে নতুনবাজার মোড় থেকে পালবাজার এলাকা পর্যন্ত এ অবস্থা দেখা যায়।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বেঁচে থাকতে মানুষকে অতীব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হওয়ার প্রতি নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এ সংক্রান্ত জরুরি ঘোষণা জেলা প্রশাসক পত্রিকার মাধ্যমে জানিয়ে দিয়েছেন। পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ আরো কিছু নির্দেশনা ছিলো। কয়েকদিন পর আরো কঠোর নির্দেশনা আসে যে, সন্ধ্যা ৬টার পর থেকে শুধু ঔষধের দোকান ছাড়া সব ধরনের দোকানপাট বন্ধ থাকবে। এটি এখন পর্যন্ত ঠিকভাবে মানা হচ্ছে। কিন্তু দিনের চিত্র ভিন্ন। দিনের বেলা অনেক মানুষ থাকে রাস্তায়। অপ্রয়োজনীয় বেশ কিছু দোকান খোলা থাকে। আবার অসংখ্য ভ্যানগাড়ি রাস্তার দুই পাশে থাকে নানা ধরনের পণ্য নিয়ে। এসব জায়গায় অনেক মানুষ থাকে। তাছাড়া কিছু কিছু অটোবাইক ও সিএনজি অটোরিকশাও চলাচল করতে দেখা যায়। কিন্তু দিনের এই চিত্র দেখেও প্রশাসন বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে তেমন একটা ভূমিকা রাখতে দেখা যায় না। দিনের ও রাতের পরিবেশে এমন ভিন্নতা কেনো তা কারোরই বোধগম্য নয়। অবস্থা দেখে মনে হয় যেনো দিনের বেলা করোনা ভাইরাস নির্বাসনে চলে যায়।

এদিকে দিনের অবস্থার বিষয়টি নিয়ে জেলা পুলিশের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সাথে কথা হয়। তাতে বুঝা গেলো পরিকল্পনা গ্রহণ নিয়ে পুলিশ এবং জেলা প্রশাসনের মাঝে সমন্বয়হীনতা রয়েছে।


আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৯৩০২৩৩
পুরোন সংখ্যা