চাঁদপুর, মঙ্গলবার ২ জুন ২০২০, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৯ শাওয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
চাঁদপুরের ১৮তম জেলা ও দায়রা জজ এসএম জিয়াউর রহমান
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম
০২ জুন, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুরের ১৮তম জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে যোগ দিয়েছেন এসএম জিয়াউর রহমান। তিনি জেলা জজ হিসেবে চাঁদপুরেই প্রথম দায়িত্ব পেলেন। এ দায়িত্ব পাওয়ার আগে তিনি বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের পরিচালক (প্রশাসন) পদে কর্মরত ছিলেন। ১৯৯৮ সালের ৬ জুন সরকারি চাকুরিতে যোগদান করেন ফরিদপুরের সহকারী জজ হিসেবে।



গত ৮ মার্চ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ, বিচার শাখা-২-এর প্রজ্ঞাপনে ও রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে উপ-সচিব ( প্রশাসন-১ ) স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে তাঁকে চাঁদপুরে এ দায়িত্ব দেয়া হয়। তিনি ওই সময় প্রশিক্ষণের জন্যে অস্ট্রেলিয়াতে ছিলেন। তিনি চাঁদপুরের জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে সোমবার যোগ দিয়েছেন। তার আগে ১৭তম জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে মোঃ জুলফিকার আলী খাঁন কর্মরত ছিলেন। তিনি বর্তমানে জামালপুরে জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে রয়েছেন।



চাঁদপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালত সূত্রে জানা যায় যে, নবাগত জেলা ও দায়রা জজ এসএম জিয়াউর রহমানের বাড়ি গোপালগঞ্জ জেলায়। তার স্ত্রী, ১ ছেলে ও ১ মেয়ে রয়েছে। চাঁদপুরে আসার আগে তিনি লক্ষ্মীপুর জেলায় অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, মানিকগঞ্জে যুগ্ম ও জেলা জজ, মাগুড়ায় চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক ও ঢাকায় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।



সোমবার এসেই তিনি জেলা ও দায়রা জজ আদালত, চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ও এডিএম আদালতের কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের সাথে বিভিন্ন বিষয় আলাপ-আলোচনা করেছেন।



 


হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৯-সূরা হাক্কা ঃ


৫২ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


 


২৫। কিন্তু যাহার 'আমলনামা তাহার বাম হস্তে দেওয়া হইবে, সে বলিবে, 'হায়! আমাকে যদি দেওয়াই না হইত আমার 'আমলনামা,


২৬। 'এবং আমি যদি না জানিতাম আমার হিসাব।


 


শুধু মাত্র অস্তিত্ব রক্ষার মধ্যে কোনো কৃতিত্ব নেই।


-শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।


 


 


রসূলুল্লাহ (দঃ) বলেছেন, যে ব্যক্তি কোনো লোকের সঙ্গে ধোকাবাজি করে সে আমার (দলের বা উম্মতের) বাইরে।


ফটো গ্যালারি
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৪,৬৪,৯৩২ ৬,৩১,৩৫,৯৭৩
সুস্থ ৩,৮০,৭১১ ৪,৩৬,১২,৩৫৩
মৃত্যু ৬,৬৪৪ ১৪,৬৬,২৮৯
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৫০২৫৭
পুরোন সংখ্যা