চাঁদপুর, বুধবার ৩ জুন ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১০ শাওয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৯-সূরা হাক্‌কা :


৫২ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


২৭। 'হায়! আমার মৃত্যুই যদি আমার শেষ হইত!


২৮। 'আমার ধন-সম্পদ আমার কোন কাজেই আসিল না।


২৯। 'আমার ক্ষমতাও বিনষ্ট হইয়াছে।'


 


 


শ্রেষ্ঠ বইগুলি হচ্ছে শ্রেষ্ঠ বন্ধু।


-লর্ড চেস্টারফিল্ড।


 


 


 


 


নম্রতায় মানুষের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায় আর কড়া মেজাজ হলো আয়াসের বস্তু অর্থাৎ বড় দূষণীয়।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু আরো তিনজন জেলায় রোগী শনাক্ত ২১৯
হাসপাতাল তত্ত্বাবধায়ক ও স্বাস্থ্যকর্মীসহ নতুন আরো নয়জন আক্রান্ত
এএইচএম আহসান উল্লাহ
০৩ জুন, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


 আড়াইশ শয্যা বিশিষ্ট চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ হাবিব-উল-করিম কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার তাঁর পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এছাড়া চাঁদপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দুইজন স্টাফ আক্রান্ত হয়েছেন। গতকাল দিন শেষে নয়জন আক্রান্ত হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। এই নয়জন আক্রান্ত হওয়ার তথ্য সোমবার রাতে এবং গতকাল দিনে আসে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে। নতুন এই নয়জনসহ জেলায় এখন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগী হচ্ছে ২১৯ জন। মৃত্যুর সংখ্যা গতকাল পর্যন্ত আর না বাড়লেও উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন গতকাল আরো তিনজন। এদের দুইজন হাইমচর উপজেলার আর অপরজন সদর উপজেলার।

গতকাল সন্ধ্যায় সর্বশেষ প্রাপ্ত খবর জানান জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডাঃ ঈসা রুহুল্লাহ। তিনি জানান, সোমবার রাতে এবং গতকাল দিনে জেলায় মোট রিপোর্ট আসে ৩৪ জনের। এর মধ্যে পজিটিভ রিপোর্ট আসে নয়জনের। এই নয়জনের মধ্যে সদর উপজেলায় ৫, হাজীগঞ্জে ২ এবং ফরিদগঞ্জে ২ জন। সদর উপজেলার পাঁচজনের সবাই চাঁদপুর শহরের। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছেন আড়াইশ শয্যাবিশিষ্ট চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ হাবিব-উল-করিম। এছাড়া সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন স্টাফ। একইভাবে ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন স্টাফও আক্রান্ত হয়েছেন।

এদিকে চাঁদপুর শহরের আক্রান্ত অন্য তিনজন হচ্ছেন শ্রীরামদী এলাকার একজন পুরুষ, বয়স ৪৮, ট্রাক রোড এলাকার একজন নারী, বয়স ৩০ এবং দক্ষিণ গুণরাজদী মরহুম লুৎফুর রহমান পাটওয়ারী বাড়ি এলাকার একজন, বয়স ৬৮।

আড়াই শ’ শয্যা বিশিষ্ট চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডাঃ সুজাউদ্দৌলা রুবেল জানান, সকালে আসমা আক্তার (৩২) নামে একজন নারী হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে মারা যান। তার বাড়ি হাইমচর উপজেলায়। তিনি সোমবার রাতে করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। সকালেই তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। এছাড়া সমীর চন্দ্র (৪২) নামে হাইমচর উপজেলার আরো একজন হাসপাতালের আইসোলেশনে দুপুর ২টা ৪০ মিনিটের সময় মারা যান। তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন দুপুর ২টায়। ৪০ মিনিটের মাথায় তার মৃত্যু হয়।

এছাড়া সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সাজেদা বেগম পলিন জানান, সকালে বালিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে রহিম কবিরাজ (২৯) নামে এক যুবক মারা গেছেন। ইউপি চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা গেছে, তার হার্টের সমস্যা থাকলেও তিনি মারা যাওয়ার সময় করোনার উপসর্গ ছিল। তাই আমি স্বাস্থ্য বিধি অনুযায়ী বিশেষ ব্যবস্থায় তার দাফন কাফনের ব্যবস্থা করি। তবে সদর উপজেলায় স্যাম্পল নেয়ার মতো লোক আপাতত না থাকায় তার স্যাম্পল নেয়া সম্ভব হয় নি।

সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত অন্যান্য তথ্য হচ্ছে : গতকাল পর্যন্ত চাঁদপুর জেলা থেকে কোভিড-১৯ পরীক্ষার জন্যে মোট স্যাম্পল পাঠানো হয়েছে ২০৩৫ জনের। এর মধ্যে গতকাল ছিলো ৫৯ জনের। গতকাল পর্যন্ত রিপোর্ট এসেছে ১৬৪৬ জনের। এর মধ্যে পজিটিভ হচ্ছে ২১৯ জন। এই সংখ্যার মধ্যে মৃত হচ্ছে ১৮ জন। যাদের সবাই করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার পর স্যাম্পল পরীক্ষায় পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

এদিকে আক্রান্তদের মধ্য থেকে গতকাল পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৪৩ জন। আর হাসপাতালের আইসোলেশন এবং হোম কোয়ারেন্টাইনে চিকিৎসাধীন আছেন ১৫৮ জন।

 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১৪৯৫৪৩
পুরোন সংখ্যা