চাঁদপুর, শুক্রবার ৩১ জুলাই ২০২০, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৭, ৯ জিলহজ ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭২-সূরা জিন্ন্


২৮ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


২৪। যখন উহারা প্রতিশ্রুত শাস্তি প্রত্যক্ষ করিবে, বুঝিতে পারিবে, কে সাহায্যকারীর দিক দিয়া দুর্বল এবং কে সংখ্যায় স্বল্প।


২৫। বল, 'আমি জানি না তোমাদিগকে যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হইয়াছে তাহা কি আসন্ন, না আমার প্রতিপালক ইহার জন্য কোন দীর্ঘ মেয়াদ স্থির করিবেন।'


 


 


ভিক্ষাবৃত্তি পতিতাবৃত্তির চেয়েও খারাপ।


-লেলিন।


 


দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত জ্ঞানচর্চায় নিজেকে উৎসর্গ করো।


 


 


ফটো গ্যালারি
প্রবল স্রোতে চাঁদপুর-শরীয়তপুর রূটে ফেরি চলাচল ব্যাহত
দুই পাড়ে আটকা পড়েছে শত শত গাড়ি
মিজানুর রহমান
৩১ জুলাই, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


মেঘনায় প্রবল স্রোতের কারণে চাঁদপুর-শরীয়তপুর নৌপথে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এ কারণে উভয় ঘাটে কয়েকশ' যানবাহন আটকা পড়েছে। তবে এ পথে প্রবল স্রোত ও ঢেউয়ের মধ্যেই ঝুঁকি নিয়ে ফেরি চলাচল অব্যাহত রেখেছে কর্তৃপক্ষ। এখানে রো রো ফেরি দেওয়া হয়নি। পুরাতন মডেলের কেটাইপ ফেরি চলাচল করায় ঈদে যানবাহনের বাড়তি চাপ সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে বিআইডবিস্নউটিসির হরিণা ও নরসিংহপুর ফেরিঘাটের দায়িত্বে থাকা লোকজন।



ফেরিঘাটে আটকে পড়া যানবাহনের চালকরা অভিযোগ করেন, পুরানো এবং অচল ফেরি দিয়েই ঝুঁকির মধ্যে তাদের যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। এতে পারাপার হতে এক ঘণ্টার জায়গায় দীর্ঘ চার-পাঁচ ঘণ্টা সময় লাগছে। ফলে যানবাহনে থাকা অতি প্রয়োজনীয় বিভিন্ন পণ্য নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।



এমন পরিস্থিতিতে ঈদের আগে এই সময় চাঁদপুরের হরিণাঘাটে শত শত যানবাহন পারাপারের অপেক্ষায় আটকে আছে। এ নিয়ে যানবাহনের চালক ও অন্যান্য পরিবহনের যাত্রীদের মধ্যে অসন্তোষ চলছে।



জোয়ার-ভাটা দেখে ফেরি চলাচল করতে হচ্ছে। আবার মেঘনার পানি জোয়ারে বৃদ্ধি পাওয়ায় এতে উভয় ঘাটের বেশির ভাগ পন্টুনের চারপাশ তলিয়ে যায়। ইট ও বালু ফেলে পন্টুন উঁচু করে উভয় পাড়ের ঘাটে সীমিত আকারে যানবাহন নামানো-ওঠানো হয়।



অপরদিকে স্রোতের কারণে এপার থেকে ওপার যেতে এক ঘণ্টার ফেরি আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা সময় নিচ্ছে। এ সমস্যায় ফেরির ট্রিপ কমে যাওয়ায় দুই পাড়ে আটকে পড়া গাড়ির সারি দীর্ঘ হচ্ছে। অনেক চালক গাড়ি নিয়ে তিন-চারদিনেও ফেরি পার হতে পারছেন না।



বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডবিস্নউটিসি) হরিণা ফেরিঘাট ম্যানেজার ফয়সাল আলম চৌধুরী জানান, নদীর স্রোতের তীব্রতা বেশি। এ কারণে ফেরি চলাচল অর্ধেকে নেমে এসেছে। স্রোতের তীব্রতায় অনেক সময় ফেরি চলাচল বন্ধ রাখতে হচ্ছে। তারপরও আমরা ৬টি ফেরি চালু রেখে যানবাহন পারাপার অব্যাহত রেখেছি। কোনো ফেরি বন্ধ নেই। হরিণা ফেরিঘাটে প্রায় আড়াইশ' থেকে ৩০০ এবং শরীয়তপুর ঘাটে শতাধিক গাড়ির সিরিয়াল পড়ে আছে। প্রতিদিন এক থেকে দেড়শ' গাড়ি পার হচ্ছে। আশা করি, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে।



 



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ২,৫৫,১১৩ ১,৯৫,৬২,২৩৮
সুস্থ ১,৪৬,৬০৪ ১,২৫,৫৮,৪১২
মৃত্যু ৩৩৬৫ ৭,২৪,৩৯৪
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
২১২০৩৯
পুরোন সংখ্যা