চাঁদপুর, মঙ্গলবার ২ মার্চ ২০২১, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৭ রজব ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
'পুলিশ মেমোরিয়াল ডে' অনুষ্ঠানে চাঁদপুরের ২১ পুলিশ সদস্যের পরিবারকে সম্মাননা প্রদান
আমাদের মধ্যে ঈমানী তাগিদটা যদি না থাকে, সততা ও একাগ্রতা নিয়ে এগিয়ে যেতে পারব না
------------ডিআইজি পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোঃ মাহবুবুর রহমান পিপিএম (বার) বাবার স্মরণে দুই শিশু কন্যার হৃদয়স্পর্শী গজল সকলকে অশ্রুসিক্ত করে
মিজানুর রহমান
০২ মার্চ, ২০২১ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


সারাদেশের ন্যায় চাঁদপুরেও যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে 'পুলিশ মেমোরিয়াল ডে'। গতকাল ১ মার্চ সোমবার সকাল ১১টায় চাঁদপুর পুলিশ লাইন্সের ড্রিলশেডে আয়োজিত অনুষ্ঠানে গভীরভাবে শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে কর্তব্যরত অবস্থায় জীবন উৎসর্গকারী চাঁদপুরের ২১জন পুলিশ সদস্যকে। পুলিশ লাইন্সের ড্রিলশেডে অস্থায়ীভাবে নির্মিত 'আমরা তোমাদের ভুলবো না' স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মোঃ মাহবুবুর রহমান পিপিএম (বার)। এরপর পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানায় সিআইডি ও পিবিআই। এ সময় পুলিশের একটি চৌকস দল সশস্ত্র সালাম প্রদান করে। সেই সাথে বাজানো হয় বিউগলের করুণ সুর। পুলিশ মেমোরিয়াল ডে উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা পুলিশের আয়োজনে সম্মাননা প্রদান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রয়াত এক পুলিশ কনস্টেবলের দুই শিশু কন্যা নিহা ও নোহা বাবাকে নিয়ে দু'টি গজল পরিবেশন করে। তাদের এই গজল দু'টি এতোটাই হৃদয়স্পর্শী ছিলো যে, পুরো অনুষ্ঠান বেদনার্ত পরিবেশে ভারি হয়ে ওঠে। উপস্থিত সকলের চোখ অশ্রুসিক্ত হয় ওই নিষ্পাপ দু'টি সন্তানের বাবাকে নিয়ে করুণ আর্তি গজল শুনে।



অনুষ্ঠানে সভাপ্রধানের বক্তব্যে পুলিশ সুপার মোঃ মাহবুবুর রহমান, পিপিএম (এডিশনাল ডিআইজি) বলেন, 'শৃঙ্খলা-নিরাপত্তা প্রগতি' মন্ত্রে দীক্ষিত হয়ে কনস্টেবল থেকে শুরু করে আইজিপি পর্যন্ত আমরা যে সকল পুলিশ সদস্য কাজ করছি, সবাই মানুষের জন্য কাজ করছি। এই কর্তব্য পালন করতে গিয়ে বিভিন্ন সময় পুলিশের সদস্যরা জীবন উৎসর্গ করেছেন। তাদের পরিবারের কান্না আমরা এখনো শুনতে পাই। আজকের দিনে তাদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। মহান রাব্বুল আলামিন যেন তাদের জান্নাতবাসী করেন।



তিনি আরো বলেন, দেশের জন্মলগ্ন হতে স্বাধীনতার চেতনা পুলিশ বাহিনীর হৃদয়ে প্রোথিত আছে। আমাদের মধ্যে ঈমানী তাগিদটা যদি না থাকে, সততা এবং একাগ্রতা নিয়ে এগিয়ে যেতে পারব না। আমাদের সৃষ্টিকর্তা মহান রাব্বুল আলামিন অবশ্যই আমাদের সাথে আছেন।



তিনি বলেন, যে সকল পুলিশ সদস্য মারা গেছেন তাদের পরিবারের সদস্যরা একা নন, আমরা তাদের পাশে আছি। সামর্থ্য অনুযায়ী আমরা পাশে থাকবো। আজকে আমাদের অনুষ্ঠানস্থলের পাশেই মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে জীবন উৎসর্গকারী সাতজন বীর শ্রেষ্ঠের প্রতিকৃতি দেখতে পাচ্ছি। তাঁদের প্রতি যেমনি আমাদের শ্রদ্ধা, তেমনি চাঁদপুরের একুশজন বীর সন্তান পুলিশ সদস্যদের প্রতিও আমাদের শ্রদ্ধা। তিনি আরো বলেন, বর্তমানে ডাক্তার, সাংবাদিক ও পুলিশ এই ৩টি পেশার লোকেরাই বলতে গেলে ২৪ ঘন্টার পেশা হিসেবে নিয়ে তাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে ১২শ' ৬২ পুলিশ সদস্য নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন। এছাড়া গত ২৫ বছরে প্রায় ১১শ' ৩৯জন পুলিশ সদস্য তাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে বিভিন্ন সময় জীবন উৎসর্গ করেছেন। সর্বশেষ করোনাকালীন সময়ে সারাদেশে আরো ৮৬জন পুলিশ সদস্য কর্তব্য কাজে তাদের জীবন উৎসর্গ করেছেন। যারা দায়িত্ব পালনকালে দেশের জন্য নিজেদের জীবন বিলিয়ে দিয়েছেন আমরা তাদের সবসময় স্মরণ করবো।



অন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) কাজী আবদুর রহিম ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ সার্কেল) সোহেল মাহমুদ।



অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) মোঃ আসাদুজ্জামানের সঞ্চালনায় আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, কমিউনিটি পুলিশিং চাঁদপুর জেলা কমিটির সভাপতি ডাঃ এসএম সহিদ উল্যা, পৌর কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি শেখ মনির হোসেন বাবুল, সাধারণ সম্পাদক রোটারিয়ান মোঃ জামাল হোসেন, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) গিয়াস উদ্দিন মিলন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহ, শাহরাস্তি প্রেসক্লাবের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবির, মতলব উত্তর উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি বোরহান উদ্দিন ডালিম, মতলব দক্ষিণ প্রেসক্লাব সভাপতি গোলাম হায়দার মোল্লা, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি খালেকুজ্জামান শামীম, কচুয়া প্রেসক্লাব সভাপতি মানিক ভৌমিক ও ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি কামরুজ্জামান।



নিহত পুলিশ সদস্য পরিবারের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন প্রয়াত পুলিশ সদস্য আঃ হালিমের কন্যা নাসরিন সুলতানা ও কনস্টেবল আরিফের স্ত্রী হোসনে আরা বেগম।



এছাড়া প্রয়াত কনস্টেবল মঞ্জুরুল আহসানের দুই শিশু সন্তান নিহা ও নোহা তাঁদের বাবাকে উৎসর্গ করে গজল ও কবিতা পরিবেশন করে। এ সময় পুরো অনুষ্ঠানস্থলে থাকা উপস্থিত সবাই আবেগআপ্লুত হয়ে পড়েন। তখন এক করুণ দৃশ্যের অবতারণা হয়।



চাঁদপুরস্থ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের প্রধানগণ, কমিউনিটি পুলিশের জেলা সেক্রেটারী, মিডিয়া সদস্যগণ এবং নিহত পুলিশ সদস্যদের পরিবারবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।



সবশেষে কর্তব্যরত অবস্থায় নিহত ২১জন পুলিশ সদস্যের পরিবারবর্গকে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে স্বীকৃতি স্মারক ও উপহার তুলে দেয়া হয়।



অনুষ্ঠানের শুরুতে এসআই জয়নাল আবেদীন কোরআন তেলাওয়াত ও কনস্টেবল প্রিয়া দাস গীতা পাঠ করেন।



উল্লেখ্য, ২০১৭ সাল থেকে কর্তব্যরত অবস্থায় জীবন উৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের স্মরণে 'পুলিশ মেমোরিয়াল ডে' প্রতি বছর ১ মার্চ পালন করা হচ্ছে। ২০১৭ সাল থেকে চাঁদপুর জেলায় এমন পুলিশ সদস্যের সংখ্যা ২১ জন। এই ২১ জন হচ্ছেন : চাঁদপুর সদর মডেল থানা : এসআই শাহজাহান খান, এসআই মোঃ আব্দুল কাদির, কনস্টেবল জমির হোসেন মৃধা ও কনস্টেবল কেএম মনোয়ার হোসেন। কচুয়া থানা : কনস্টেবল মঞ্জুরুল হাসান ও কনস্টেবল মোঃ আব্দুল হালিম। শাহরাস্তি থানা : পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মোঃ আব্দুল্লাহ, এসআই (নিরস্ত্র) মোঃ মনির হোসেন, এসআই (নিরস্ত্র) মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল, এএসআই তোফায়েল হোসেন, কনস্টেবল রফিকুল ইসলাম ও কনস্টেবল মোঃ হুমায়ুন কবির। মতলব দক্ষিণ থানা : কনস্টেবল আরিফ হোসেন ও কনস্টেবল মোস্তফা কামাল। মতলব উত্তর থানা : এসআই শাহজাহান মিয়া ও কনস্টেবল মোঃ নাছির উদ্দিন।



হাজীগঞ্জ থানা : কনস্টেবল মোঃ রুহুল আমিন।



ফরিদগঞ্জ থানা : অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন মজুমদার, পুলিশ পরিদর্শক (সশস্ত্র) মোঃ ছিদ্দিকুর রহমান, নায়েক মোঃ হাবিবুর রহমান ও কনস্টেবল শ্রী অয়ন চন্দ্র কর্মকার।



 


এই পাতার আরো খবর -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৯৮-সূরা বায়্যিনাঃ


০৮ আয়াত, ১ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৭। যাহারা ঈমান আনে ও সংকর্ম করে, তাহারাই সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ।


৮। তাহাদের প্রতিপালকের নিকট আছে তাহাদের পুরস্কার-স্থায়ী জান্নাত, যাহার নিম্নদেশে নদী প্রবাহিত, সেথায় তাহারা চিরস্থায়ী হইবে। আল্লাহ তাহাদের প্রতি প্রসন্ন এবং তাহারাও তাঁহাতে সন্তুষ্ট। ইহা তাহার জন্য, যে তাহার প্রতিপালককে ভয় করে।


 


 


সৌভাগ্য এবং প্রেম নির্ভীকের সঙ্গত্যাগ করে।


_ওভিড।


 


 


 


 


নিরপেক্ষ লোকের দোয়া সহজে কবুল হয়।


 


 


ফটো গ্যালারি
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৬,৪৪,৪৩৯ ১৩,২১,৯৪,৪৪৭
সুস্থ ৫,৫৫,৪১৪ ১০,৬৪,২৬,৮২২
মৃত্যু ৯,৩১৮ ২৮,৬৯,৩৬৯
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৯০৩৯
পুরোন সংখ্যা