চাঁদপুর। বৃহস্পতিবার ৭ ডিসেম্বর ২০১৭। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৪। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯
kzai
muslim-boys

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৩-সূরা আহ্যাব

৭৩ আয়াত, ৯ রুকু, মাদানী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

১০। যখন উহারা তোমাদের বিরুদ্ধে সমাগত হইয়াছিল তোমাদের উপরের দিক ও নিচের দিক হইতে,  তোমাদের চক্ষু বিস্ফারিত হইয়াছিল, তোমাদের প্রাণ হইয়া পড়িয়াছিল কণ্ঠাগত এবং তোমরা আল্লাহ সম্বন্ধে নানাবিধ ধারণা পোষণ করিতেছিলে;

১১। তখন মু'মিনগণ পরীক্ষিত হইয়াছিল এবং তাহারা ভীষণভাবে প্রকম্পিত হইয়াছিল।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


চা খাদ্য নহে, ইহা মাদক উত্তেজক গুণ বিশিষ্ট।                


-ডাঃ জন ফিসার


কবর এবং গোসলখানা ব্যতীত সমগ্র দুনিয়াই নামাজের স্থান।


ফটো গ্যালারি
মতলব উত্তরে দিশা আলোঘর শিক্ষা বৃত্তি প্রদান
শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষাও গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়
ইউএনও শারমিন আক্তার
মাহবুব আলম লাভলু
০৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

ডেভেলপমেন্ট ইনিশিয়েটিভ ফর সোস্যাল এডভান্সমেন্ট (দিশা)-এর উদ্যোগে মঙ্গলবার মতলব উত্তর উপজেলার ছেঙ্গারচর আলোঘর পাঠাগার অডিটোরিয়ামে ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে বার্ষিক আলোঘর বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থী ৩০জন শিক্ষার্থীর মাঝে শিক্ষাবৃত্তির নগদ অর্থ ও সনদ প্রদান করা হয়েছে।

শিক্ষাবৃত্তি প্রদান সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার। বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন দিশা আলোঘর পাঠাগারের সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার মোঃ আনিছুর রহমান। দিশা-আলোঘর ছেঙ্গারচর শাখার ম্যানেজার মোঃ মাহবুবুর রহমানের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোঃ শহিদুল ইসলাম, ছেঙ্গারচর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ এসএম আবুল বাশার, ছেঙ্গারচর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) বেনজির আহমেদ মুন্সী, সিদ্দিকা বেগম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনিরুল হক পাটোয়ারী, জীবগাঁও জেনারেল হক উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ নাজমুল হাসান, নীলনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান মিয়া প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আলোঘর প্রোগ্রাম ম্যানেজার শামসুল আলম, প্রোগ্রাম সহকারী চম্পা খাতুন, রুবি আকতার, মোঃ আলাউদ্দিনসহ আলোঘরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ। উক্ত অনুষ্ঠানে ৩০জন দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীকে মাথাপিছু নগদ ৩ হাজার ৬শ' টাকা ও সনদপত্র প্রদান করা হয়।

সভায় প্রধান অতিথি মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি দিশার মতো বিভিন্ন এনজিও এগিয়ে আসা উচিত। বাংলাদেশে অনেক দরিদ্র পরিবার আছে। ওই সব পরিবারে অনেক মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে। তাদের ঠিকমত পরিচর্যা করা গেলে শিক্ষার হার অনেক বেড়ে আসবে। তিনি বলেন, দিশা একটি এনজিও অর্থাৎ নন-গভর্নমেন্ট অরগানাইজেশন হয়েও যে উদ্যোগ নিয়েছে তা অত্যন্ত ভালো কাজ। কারণ স্কুল পর্যায়ে থেকে কোনো কিছুর উপর সফলতা পেলে শিক্ষার্থীরা আরো উদ্যোগী হয়। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষাও গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। নৈতিক শিক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার মানকে ধরে রাখা সম্ভব বলে আমি মনে করি। আইসিটি বিষয়টি বর্তমানে বিশ্বের চাহিদাসম্পন্ন একটি বিষয়। এ বিষয়টির বাংলাদেশেও অনেক চাহিদা রয়েছে। কম্পিউটার শিক্ষা থাকলে জীবন অনেক সহজ হয়ে যায় এবং চাকুরি ক্ষেত্রে অনেক সুবিধা হয়। তাই সকলকে আইসিটি বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণভাবে খেয়াল রাখতে হবে। আইসিটি বিষয়ে ভালোভাবে শিক্ষা দেয়ার জন্যে শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৮৪০৭৬৬
পুরোন সংখ্যা