চাঁদপুর। বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। ৩ ফাল্গুন ১৪২৪। ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯
kzai
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুরে মাসুদ রানা হত্যা মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদন্ড ,, জেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মো. শফিকুর রহমান ভুঁইয়া, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক কাজী গোলাম মোস্তফাকে আটক করেছে পুলিশ || বিক্ষোভ চলাকালে বিএনপি নেতা শফিকুর রহমান ভূঁইয়াসহ আটক ৫
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৫-সূরা ফাতির

৫৫ আয়াত, ৫ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

১৫। হে মানুষ, তোমরা আল্লাহর গলগ্রহ। আর আল্লাহ; তিনি অভাবমুক্ত প্রশংসিত।

১৬। তিনি ইচ্ছা করলে তোমাদেরকে বিলুপ্ত করে এক নতুন সৃষ্টির উদ্ভব করবেন।

১৭। এটা আল্লাহর পক্ষে কঠিন নয়।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


মৃত্যুবরণ করার চেয়ে কষ্ট ভোগ করে বেঁচে থাকার জন্যে অধিক সাহসের প্রয়োজন।

-নেপোলিয়ান।


যিনিই বিশ^মানবের কল্যাণ সাধন করেন তিনিই সর্বশ্রেষ্ঠ মানুষ।


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় আইজিপি ড. জাবেদ পাটোয়ারী
থানাকে জনবান্ধব ও মানুষের আস্থার মধ্যে আনাই হচ্ছে আমার প্রথম কাজ
এএইচএম আহসান উল্লাহ
১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


'আমি দায়িত্ব নেয়ার পরপরই ঢাকার সাংবাদিকদের সাথে প্রথম কথা বলেছি, আর ঢাকার বাইরে প্রথম কোনো জেলায় চাঁদপুর সফরে এসেও আজ সাংবাদিকদের সাথে প্রথম কথা বলছি। আমি মনে করি এটা আমার জন্যে ভবিষ্যৎ পথচলায় সহায়ক হবে। সাংবাদিকরা সমাজের দর্পণ। সমাজের নানা অসঙ্গতি সাংবাদিকরা তুলে ধরেন। আমি দায়িত্ব নেয়ার প্রথমদিন থেকে যে কাজটি হাতে নিয়েছি, সেটি হচ্ছে-থানাকে জনবান্ধব করে তোলে মানুষের আস্থার মধ্যে নিয়ে আসা। থানাকে যদি আমরা জনবান্ধব, নারী বান্ধব, শিশু বান্ধব করতে না পারি, তাহলে যতই আপনারা আমাকে সৎ বলেন, দক্ষ বলেন, তা কিন্তু ফলপ্রসূ হবে না । যদি তা করতে পারি তাহলেই মানুষ আমাদের প্রতি আস্থা রাখবে। মানুষ যাতে পুলিশের কাছে এসে মনে করে আমরা আস্থার জায়গায় এসেছি।'



বাংলাদেশ পুলিশকে নিয়ে তথা দেশের প্রতিটি থানাকে নিয়ে নিজের এমনই স্বপ্ন ও প্রত্যাশার কথা জানালেন বাংলাদেশ পুলিশের নবনিযুক্ত সর্বাধিনায়ক তথা মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। তিনি গতকাল বুধবার তাঁর নিজ জেলা চাঁদপুরে এক সংক্ষিপ্ত সফরে এসে চাঁদপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় এ বক্তব্য রাখেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর আস্থা ও বিশ্বাসের জায়গায় নিয়ে বাংলাদেশ পুলিশের দুই লক্ষাধিক সদস্যের পরিচালকের দায়িত্ব তথা কর্তৃত্ব আমার উপর ন্যস্ত করেছেন, সেজন্যে তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি আমার পেশার সবটুকু দিয়ে আমার পুলিশ বাহিনীকে নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সে আস্থা ও বিশ্বাস অটুট রাখতে সচেষ্ট থাকবো ইনশাআল্লাহ। বাংলাদেশ পুলিশের সর্বোচ্চ পদের দায়িত্ব তাঁর উপর অর্পিত হওয়ায় তিনি মহান আল্লাহর শোকরিয়া আদায় করেন। তিনি তাঁর বক্তব্যের শুরুতে রাব্বুল আলামিনের শোকরিয়া আদায় করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন এবং সকল শহীদ, প্রয়াত ও জীবিত মুক্তিযোদ্ধাকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ পুলিশের প্রতিটি সদস্য আজকের এই বাংলাদেশ বিনির্মাণের গর্বিত অংশীদার। আপনারা জানেন, মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে সর্বপ্রথম রাজারবাগ থেকে আমাদের পূর্বসূরিরা পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে মাত্র একটি থ্রি নট রাইফেল নিয়ে প্রতিরোধ গড়েছিলো। সেই গর্বিত পূর্বসূরিদের উত্তরসূরি আমরা। শুধু স্বাধীনতা যুদ্ধই নয়, দেশের সকল ক্রান্তিকালে বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যরা তাদের মেধার যোগ্যতা রেখেছেন এ দেশকে রক্ষা করে। চাঁদপুরের এই কৃতী সন্তান বাংলাদেশ পুলিশের কার্যক্রমের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস তুলে ধরে বলেন, আমরা জঙ্গিবাদকে শক্ত হাতে মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছি। বাংলাদেশ আজ সারাবিশ্বে জঙ্গি দমনে রোল মডেল। আমরা যখন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যাই, তারা অবাক বিস্ময়ে জানতে চায় আমরা কীভাবে জঙ্গি দমনের মতো কঠিন কাজটিতে সফল হলাম। তখন তারা আমাদের পরিকল্পনা শুনে সে সব দেশের পুলিশ একাডেমিতে তা অন্তর্ভুক্ত করে নিয়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ এখন সারাবিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। এতো সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার দিকে। আর বাংলাদেশ পুলিশ সে উন্নয়নের মিছিলে রয়েছে। তিনি বলেন, যে কোনো উন্নয়নের পূর্বশর্ত হচ্ছে নিরাপদ সমাজ। নিরাপদ ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকলে যে কোনো দেশের বিনিয়োগকারীরা দেশে আসবে। বাংলাদেশে এখন আল্লাহর রহমতে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদক্ষ পরিচালনায় সে পরিবেশ বিরাজ করছে। আইজিপি বলেন, আমি দায়িত্ব নেয়ার পরপরই আমার জন্মভূমিতে আসার চিন্তা করেছি আমার বাবা-মার কবর জিয়ারত করতে। সে উদ্দেশ্যে মূলত আজ (গতকাল) চাঁদপুর আসা। চাঁদপুর এসে প্রথমেই গ্রামের বাড়িতে গিয়ে বাবা-মার কবর জিয়ারত করলাম। এরপর প্রেসক্লাবে এসে আপনাদের (সাংবাদিকদের) সাথে মিলিত হলাম। দায়িত্ব নেয়ার পর ঢাকায়ও আমার প্রথম কথা হয় সাংবাদিকদের সাথে। তিনি বলেন, চাঁদপুরে সাংবাদিক-পুলিশের মধ্যে যে মেলবন্ধন দেখছি, তা অন্য কোনো জেলায় দেখিনি। চাঁদপুরের এই উদাহরণ আমি সব জায়গায় খুব গর্বের সাথে বলি। এটি অবশ্যই ভালো দিক। আমরা সবাই মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশের জন্যে কাজ করবো, দেশটাকে এগিয়ে নিয়ে যাবো। যে যেই সেক্টরে আছি, সকলে মিলে যদি কাজ করি, তাহলে এ দেশ একদিন অবশ্যই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ হবে। ড. জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, দেশের সর্বোচ্চ ব্যক্তি হতে শুরু করে একেবারে নিম্ন স্তরের ব্যক্তি পর্যন্ত যে কোনো সমস্যায় পড়লে প্রথমে থানায় যান। তারা পুলিশের কাছে অভিযোগ দেন। জনজীবনে থানা অতীব গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রতিষ্ঠান। তাই আমি দায়িত্ব নেয়ার প্রথমদিন থেকেই যে কার্যক্রমটি হাতে নিয়েছি, সেটি হচ্ছে-থানাকে জনবান্ধব, নারীবান্ধব ও শিশুবান্ধব করা। তাহলেই আমাদের প্রতি মানুষের আস্থা আসবে। মানুষ যাতে মনে করে আসলেই পুলিশ মানুষের আস্থার জায়গায় এসেছে। আমি সেদিনের প্রত্যাশাকে সামনে রেখে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় নিয়েছি। আপনারা আমার জন্যে দোয়া করবেন।



গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় চাঁদপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে চাঁদপুরের সকল পর্যায়ের সাংবাদিকের সাথে আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) এ মতবিনিময় করেন। মতবিনিময় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জ জিআইজি ড. এসএম মনির-উজ-জামান, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ মঈনুল হাসান, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, চাঁদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী, প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোহাম্মদ হোসেন খান, সাবেক সভাপতি ইকরাম চৌধুরী, কাজী শাহাদাত, গোলাম কিবরিয়া জীবন, শাহ্ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলম, বিএম হান্নান, শরীফ চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন মিলন, রহিম বাদশা, সোহেল রুশদী ও জিএম শাহীন।



সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন প্রেসক্লাবের প্রচার সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহ। পরে আইজিপি ও ডিআইজিকে প্রেসক্লাব সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। মতবিনিময় সভায় নৌ পুলিশ সুপার সুব্রত হালদারসহ পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তা এবং চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সকল পর্যায়ের সদস্য উপস্থিত ছিলেন।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৪০৭৮৩
পুরোন সংখ্যা