চাঁদপুর, শুক্রবার ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৮ রমজান ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৮-সূরা মুজাদালা


২২ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


০৮। তুমি কি তাহাদিগকে লক্ষ্য করো না, যাহাদিগকে গোপন পরামর্শ করিতে নিষেধ করা হইয়াছিলো? অতঃপর উহারা যাহা নিষিদ্ধ তাহারই পুনরাবৃত্তি করে এবং পাপাচরণ, সীমালঙ্ঘন ও রাসূলের বিরুদ্ধাচরণের জন্য কানাকানি করে। উহারা যখন তোমার নিকট আসে তখন উহারা তোমাকে এমন কথা দ্বারা অভিবাদন করে ...যদ্ধারা আল্লাহ্ তোমাকে অভিবাদন করেন নাই। উহারা মনে মনে বলে, 'আমরা যাহা বলি তাহার জন্য আল্লাহ্ আমাদিগকে শাস্তি দেন না কেন?' জাহান্নামই উহাদের জন্য যথেষ্ট, যেথায় উহারা প্রবেশ করিবে, কত নিকৃষ্ট সেই আবাস!


 


 


 


assets/data_files/web

নিজে ঠিক থাকলেই হল, লোকে কী বলে না বলে তা নিয়ে মাথা ঘামানো উচিত নয়। -রুজভেল্ট।


 


 


 


যে ব্যক্তি সওয়াবের (পুণ্যের) নিয়তে পরিবারের জন্য খরচ করে আল্লাহ তাহাকে সদকার সওয়াব দান করিবেন।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
রমজানের পবিত্রতা নষ্ট ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার বিক্রির দায়ে আটক ১
স্টাফ রিপোর্টার
২৪ মে, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর শহরের প্রাণকেন্দ্র কোর্ট স্টেশন রেলওয়ে প্লাটফর্মে অবস্থিত খলিফা হোটেলে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার বিক্রির দায়ে দোকান মালিক দাদন খলিফাকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (চাঁদপুর সদর সার্কেল) জাহেদ পারভেজ চৌধুরীর নেতৃত্বে কোর্ট স্টেশন রেলওয়ে প্লাটফর্মে অভিযান চালানো হয়। তখন কোড়ালিয়া রোড এলাকার খলিফা বাড়ির দাদন খলিফার খলিফা হোটেলে অভিযান চালানো হয়। হোটেলে নোংরা পরিবেশ এবং অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার বিক্রি কেনো করা হয় এ বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়। এছাড়া পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসা করে এটি কোনো হিন্দু হোটেল কি-না। তখন দাদন খলিফা বলে এটি মুসলিম হোটেল। পবিত্র মাহে রমজানে একজন মুসলিম কীভাবে প্রকাশ্যে খাবার বিক্রি করে জিজ্ঞাসা করলে সে পুলিশকে কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি। পরে জাহেদ পারভেজ চৌধুরীর নির্দেশে দাদন খলিফাকে আটক করা হয়। ভোক্তা সংরক্ষণ অধিকার আইনে আটক দাদন খলিফার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।



এদিকে এই দাদন খলিফার হোটেলের বিরুদ্ধে মানুষের ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে। পুরো রমজানে দিনের বেলা তার হোটেলে পুরোদমে খাবার বিক্রি তো করেই, তাছাড়া এ হোটেলে সবসময় কিছু ভাসমান পতিতা ও খদ্দেরের আড্ডা থাকে এবং মাদকাসক্ত ও মাদক বিক্রেতাদেরও আড্ডা থাকে।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৩৬৩৫
পুরোন সংখ্যা