চাঁদপুর, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ জিলকদ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • এক কিংবদন্তীর প্রস্থান চাঁদপুরবাসী শোকাহত
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


২৭। যাহারা আখিরাতে বিশ্বাস করে না তাহারাই নারীবাচক নাম দিয়া থাকে ফিরিশ্তাদিগকে;


২৮। অথচ এই বিষয়ে উহাদের কোন জ্ঞান নাই, উহারা তো কেবল অনুমানেরই অনুসরণ করে; কিন্তু সত্যের মুকাবিলায় অনুমানের কোনই মূল্য নাই।


 


assets/data_files/web

যাকে মান্য করা যায় তার কাছে নত হও। -টেনিসন।


 


 


দয়া ঈমানের প্রমাণ; যার দয়া নেই তার ঈমান নেই।


 


ফটো গ্যালারি
ফরিদগঞ্জে ফেসবুকে অশ্লীল ছবি পোস্ট করায় যুবক শ্রীঘরে
নিজস্ব সংবাদদাতা
১৭ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এক পরিবারের মা-মেয়ের অশ্লীল ছবি তৈরি করে তা ফেসবুকের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছে রুহুল আমিন নামে এক যুবক। এতে লজ্জায় অপমানে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রী (মেয়ে) কলেজে যাওয়া বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার পূর্ব বড়ালী গ্রামে। এ ঘটনায় পর্ণগ্রাফী নিয়ন্ত্রণ আইনে ফরিদগঞ্জ থানায় রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে গত ১০ জুলাই মামলা দায়ের করা হয়। মামলা দায়েরের পর পুলিশ রুহুল আমিনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয়।



ভুক্তভোগী পরিবার ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব বড়ালী গ্রামের চান মিয়ার ছেলে রুহুল আমিনের সাথে একই বাড়ির সিরাজ মিয়ার সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে রুহুল আমিন সিরাজ ও তার পরিবারের ক্ষতি করতে মরিয়া হয়ে ওঠে। এক পর্যায়ে গত ৯ জুলাই বিকেলে সিরাজ মিয়ার বসত ঘরে ঢুকে রুহুল আমিন কৌশলে সিরাজের স্ত্রী ও তার মেয়ের ছবি তুলে ফটোশপের মাধ্যমে অশ্লীল ছবি তৈরি করে রুহুল আমিনের নামীয় ফেসবুক আইডির মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। শুধু তাই নয়, ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়া ছবি এলাকার সোহেল ও আবুল কাশেমের আইডি সহ তার পছন্দের বিভিন্ন আইডিতে ট্যাগ (প্রেরণ) করে। এতে করে সিরাজের স্ত্রী ও মেয়ে মানহানি হয়েছে বলে আইসিটি আইনে রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। গ্রেফতারকৃত রুহুল আমিনের ব্যবহার করা মোবাইলটিও পুলিশ জব্দ করেছে।



মামলার তদন্তকারী পুলিশ অফিসার এসআই সুমন্ত্র মজুমদার জানান, ২০১২ সালের পর্ণগ্রাফী নিয়ন্ত্রণ আইনে দায়ের করা মামলার আসামী রুহুল আমিনকে গ্রেফতার করে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত আসামী রুহুল আমিনকে আটক রাখার জন্যে বিজ্ঞ আদালতে আবেদন জানানো হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে দায়েরকৃত মামলার ঘটনার সাথে আসামীর জড়িত থাকার তথ্য প্রমাণ পাওয়া গেছে।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৯৫৯১৫৫
পুরোন সংখ্যা