চাঁদপুর, রোববার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৫ মহররম ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • অনিবার্য কারণে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির আজকের চাঁদপুর সফর স্থগিত করা হয়েছে
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৭-সূরা হাদীদ


২৯ আয়াত, ৪ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


০৫। আকাশম-লী ও পৃথিবীর সর্বময় কর্তৃত্ব তাঁহারই এবং আল্লাহরই দিকে সমস্ত বিষয় প্রত্যাবর্তিত হইবে।


০৬। তিনিই রাত্রিকে প্রবেশ করান দিবসে এবং দিবসকে প্রবেশ করান রাত্রিতে এবং তিনি অন্তর্যামী।


 


 


 


assets/data_files/web

মর্যাদা রক্ষার ব্যাপারে আমি নিজের অভিভাবক। -নিকেলাস রান্ড।


 


 


যদি মানুষের ধৈর্য থাকে তবে সে অবশ্য সৌভাগ্যশালী হয়।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
মাথায় ঘোমটা দেয়া এ এক অন্য ইউএনও
কামরুজ্জামান টুটুল
১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


উপজেলা পর্যায়ে প্রশাসনের সর্বোচ্চ কর্মকর্তা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, তার উপর নারী, আবার ভিন্ন ধর্মাবলম্বী। বৈশাখী বড়ুয়া নামের হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে যোগদানের পর থেকে যারা অফিসে কিংবা অফিসের বাইরে দেখেছেন তারা শাড়ি কাপড়ে কিংবা সালোয়ার কামিজে দেখে অভ্যস্ত ছিলেন। হঠাৎ এই কর্মকর্তাকে ঘোমটা দেয়া দেখে এই কর্মকর্তার প্রতি অন্যদের শ্রদ্ধাবোধ আরো বেশি করে জন্ম নেয়। ঘোমটা দেয়া এই কর্মকর্তাকে যে কেউ হঠাৎ দেখলে ভাববে আবহমান গ্রাম বাংলার কোনো এক সাধারণ নারীর প্রতিরূপ। তার ঘোমটা দেয়া ছবিটি ইতিমধ্যে জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন জনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড হয়েছে।



খোঁজ নিয়ে জানা যায়, হাজীগঞ্জ উপজেলার বাকিলা ইউনিয়নের ছয়ছিলা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা ও অবসরপ্রাপ্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ শাহজাহান মাস্টার মারা যান গত বুধবার সন্ধ্যায়। সেই মুক্তিযোদ্ধার গার্ড অব অনার অনুষ্ঠিত হয় পরের দিন বৃহস্পতিবার সকালে মরহুমের নিজ এলকায়। প্রয়াত ঐ মুক্তিযোদ্ধার রাষ্ট্রীয় গার্ড অব অনারে অংশ নেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়ুয়া। ঐ গার্ড অব অনার ছাড়াও এই মুক্তিযোদ্ধার জানাজা পর্বে যতক্ষণ ছিলেন ততক্ষণ মাথায় ঘোমটা রেখেছেন এই নারী কর্মকর্তা। এ সময় যারা এই কর্মকর্তাকে চিনেন তারাই নিজেদের মধ্যে বলাবলি করতে শোনা গেছে, ভিন্ন ধর্মের লোক হয়ে মাথায় ঘোমটা রেখেছেন, এটা ভালো অফিসার হওয়ার কারণে সম্ভব হয়েছে।



এদিকে মুক্তিযোদ্ধা মরহুম শাহাজাহান মাস্টারের গার্ড অব অনারের সেই ছবি বাকিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানসহ বহুজনের ফেসবুকে আপলোড হয়েছে।



এ বিষয়ে বৈশাখী বড়ুয়া বলেন, যাদের অবদানে এদেশ স্বাধীন হয়েছে, যাদের অবদানে আমরা স্বাধীন জাতি হিসেবে পরিচিত হয়েছি, সেই মুক্তিযোদ্ধার গার্ড অব অনারে গিয়ে মাথায় কাপড় দেয়া আমার শ্রদ্ধাবোধ থেকে এসেছে, এর বাইরে কিছুই নয়।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৮৪৭৭৮৩
পুরোন সংখ্যা