চাঁদপুর, মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৬ সূরা-ওয়াকি'আঃ


৯৬ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৮৩। পরন্তু কেন নয়-প্রাণ যখন কণ্ঠাগত হয়


৮৪। এবং তখন তোমরা তাকাইয়া থাক


৮৫। আর আমি তোমাদের অপেক্ষা তাহার নিকটতর, কিন্তু তোমরা দেখিতে পাও না।


 


 


 


হিংসা একটা দরজা বন্ধ করে অন্য দুটো খোলে।


-স্যামুয়েল পালমার।


 


 


নামাজ বেহেশতের চাবি এবং অজু নামাজের চাবি।


 


 


ফটো গ্যালারি
ফরিদগঞ্জে এক মূর্তিমান আতঙ্ক ভূমিদস্যু মাসুদ খান
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


ফরিদগঞ্জের সাহেবগঞ্জ গ্রামের মরহুম বশির উল্যাহ খানের ছেলে মোঃ মাসুদ হোসেন খান গং ফরিদগঞ্জবাসীর কাছে কুখ্যাত ভূমিদস্যু হিসেবে পরিচিত। এ নামটি এখন ফরিদগঞ্জের সাধারণ জনগণের কাছে এক মূর্তিমান আতঙ্ক। কখন কার জমি, দোকান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এমনকি বসতঘর এই মাসুদ গং জোরপূর্বক কিংবা জাল দলিল তৈরি করে দখল করে নেয় সে আতঙ্কে থাকে ফরিদগঞ্জের মানুষ। এমনকি তার বাহিনীর ভূমিদস্যুতার হাত থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও রেহাই পায়নি। তার এই দখলদারিত্ব এবং ভূমিদস্যুতা বিশেষ করে ফরিদগঞ্জের গৃদকালিন্দিয়া এলাকাজুড়ে।



গত কিছুদিন আগে গৃদকালিন্দিয়া বাজারের মধ্যে এক মুক্তিযোদ্ধার জমি মাসুদ খান তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে দখল করতে গেলে ওই মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী তাদের বাধা দিলে ভূমিদস্যু মাসুদ খানসহ তার সন্ত্রাসী বাহিনী তাদের মারধর করে। খবর পেয়ে স্থানীয় দীর্ঘ সময়ের ইউপি সদস্য আব্দুল কাদের খোকন ঘটনাস্থলে গিয়ে বাধা দিতে নিলে ওই সন্ত্রাসীরা তাঁর উপর দেশীয় ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। তিনি বর্তমানে ঢাকায় একটি প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাঁর হাঁটুর রগ ছিঁড়ে যাওয়ায় তাঁর পায়ে অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। একই ঘটনায় ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জিএস তছলিম আহমেদ, তার ভাগিনা মেহেদী হাসান তুষার এবং ছলেমান রক্তাক্ত জখম হন। সেদিন ঘটনাস্থল থেকে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ তিনজনকে আটক করলেও ভূমিদস্যু মাসুদ খান কৌশলে পালিয়ে যায়।



সেদিনকার ঘটনার পর আস্তে আস্তে বের হয়ে আসে ভূমিদস্যু মাসুদ খানের অবৈধভাবে জোরপূর্বক সাধারণ মানুষের জমি দখলের নানা কাহিনী। কমপক্ষে ২০ জন তার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে_ফরিদগঞ্জ গৃদকালিন্দিয়া স্কুল ও কলেজের জায়গা দখল (থানায় জিডি নং ৯৩৪/১৯, তাং ২৩/৮/২০১৯ খ্রিঃ), বারপাইকা গ্রামের আলী আহম্মদের গৃদকালিন্দিয়া বাজারের দোকানঘর ভয়ভীতি দেখিয়ে দখল ও রেজিস্ট্রি করিয়ে নেয়া, সাহেবগঞ্জ গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মরহুম হাছানুজ্জামানের গৃদকালিন্দিয়া বাজারের দোকানঘর দখল নেয়ার চেষ্টা, গৃদকালিন্দিয়া গ্রামের মরহুম হেজুন আলী বেপারীর দোকানঘর দখল করে নেয়া, বদরপুর গ্রামের মরহুম আঃ রব খলিফার দোকানঘর দখল করে নেয়া, ইউনিয়ন পরিষদের জায়গা দখল, বাজারের পুরাতন রোডে ইউছুফের জায়গা দখল ইত্যাদি আরো বেশ কিছু দখলদারিত্বের ঘটনা রয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ঘটনারই মামলা রয়েছে।



উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন আগে চান্দ্রা শিক্ষিত বেকার সমিতির সাথে ঋণখেলাপী মামলায় এই ভূমিদস্যু মাসুদ খান পুলিশের হাতে আটক হয়েছিল। পরে জামিনে ছাড়া পায়। ফরিদগঞ্জবাসী এই ভূমিদস্যু মাসুদ খান গংয়ের অত্যাচার থেকে রেহাই পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।



 



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
২১১৪৭৫
পুরোন সংখ্যা