চাঁদপুর, মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৭-সূরা হাদীদ


২৯ আয়াত, ৪ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


০৫। আকাশম-লী ও পৃথিবীর সর্বময় কর্তৃত্ব তাঁহারই এবং আল্লাহরই দিকে সমস্ত বিষয় প্রত্যাবর্তিত হইবে।


০৬। তিনিই রাত্রিকে প্রবেশ করান দিবসে এবং দিবসকে প্রবেশ করান রাত্রিতে এবং তিনি অন্তর্যামী।


 


 


 


মর্যাদা রক্ষার ব্যাপারে আমি নিজের অভিভাবক। -নিকেলাস রান্ড।


 


 


যদি মানুষের ধৈর্য থাকে তবে সে অবশ্য সৌভাগ্যশালী হয়।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
হাজীগঞ্জে বিদ্যালয়ের বাউন্ডারী দেয়াল অসমাপ্ত থাকায় দুর্ঘটনার আশঙ্কা
কামরুজ্জামান টুটুল
২২ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বাউন্ডারীহীন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আতঙ্কগ্রস্ত অবস্থায় প্রতিনিয়ত বিদ্যালয় কার্যক্রমে অংশ নিতে হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি অভিভাবকগণ সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠিয়ে সার্বক্ষণিক থাকেন আতঙ্কগ্রস্ত অবস্থায়। প্রায় একশ' ফুট বাউন্ডারীর অভাবে এমন আতঙ্কগ্রস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম হাজীগঞ্জ সিহিরচোঁ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। বাউন্ডারীহীন ঐ অংশটুকুতে সম্প্রতি বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে বাঁশ দিয়ে বেড়া তৈরি করে কিছুটা আতঙ্ক দূর করার চেষ্টা করা হয়েছে। অথচ বেশ কয়েক মাস পূর্বে বাউন্ডারীর জন্যে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার বরাবর লিখিত আবেদন করেছেন প্রধান শিক্ষক।



সরেজমিনে গেলে দেখা যায়, উপজেলার কালচোঁ উত্তর ইউনিয়নের হাজীগঞ্জ-ধড্ডা-চৌমুহনী (কচুয়া) সড়কের হাজীগঞ্জ অংশের সিহিরচোঁ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্মুখ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন কয়েকশ' গাড়ি চলাচল করে। এই সকল গাড়ি চলাচলকালীন বিদ্যালয়ের মাঠে অ্যাসেম্বলিসহ শিক্ষার্থীরা খেলাধুলা করে থাকে। বেশিরভাগ সময় শিক্ষার্থীরা খেলতে গিয়ে অথবা সড়ক পারাপার হতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে।



শিক্ষার্থীদের এমন অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা করতে ইতিমধ্যে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সড়কের পাশে বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়েছেন। কিন্তু শিক্ষার্থীরা খেলাধুলা এবং বিদ্যালয় ছুটির সময় ওই বেড়ার ফাঁক দিয়ে আসা-যাওয়া করে থাকে।



বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৮০ সালে প্রতিষ্ঠিত এ বিদ্যালয়ে বর্তমানে ১১৬ জন শিক্ষার্থী ও ৫ জন শিক্ষক রয়েছেন। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি, বিশিষ্ট শিল্পপতি সিআইপি মোঃ জয়নাল আবেদীন মজুমদার ভূমিদানসহ বিদ্যালয়ের মাঠ ভরাট, অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহযোগিতা, পোশাক, ব্যাগ, জুতা, বই প্রদানসহ বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে থাকেন। বিদ্যালয়ের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কাব-স্কাউটসহ বিভিন্ন বিষয়েও সার্বিক সহযোগিতা করে আসছেন তিনি। তার আন্তরিক সহযোগিতায় বিদ্যালয়টি উপজেলার কয়েকটি বিদ্যালয়ের মধ্যে অন্যতম সেরা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।



বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জুলফিকার আলী মজুমদার চাঁদপুর কণ্ঠকে জানান, সড়কের পাশে অর্ধেক বাউন্ডারী দেয়াল রয়েছে। বাকি অর্ধেক এবং বিদ্যালয়ের উত্তর পাশসহ প্রায় ২৫০ ফুট (প্রায় ৮০ মিটার) বাউন্ডারী ওয়াল নির্মাণ করা প্রয়োজন। এ বিষয়ে ছয়মাস পূর্বে উপজেলা শিক্ষা অফিসে লিখিত আবেদন করেছি। শিশু শিক্ষার্থীরা বিরতির সময়সহ আগে পরে ছোটাছুটি করে। প্রায় সময় ওরা সড়কের উপর চলে যায়। এতে সবসময় দুর্ঘটনার আশঙ্কায় থাকি। তাই সম্প্রতি আমরা বাঁশের বেড়া দিয়েছি। অনেক সময় শিক্ষার্থীরা বাঁশের বেড়ার ফাঁক দিয়ে সড়কে চলে যায়।



এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) একেএম মিজানুর রহমান জানান, সকল বিদ্যালয়ের চাহিদাপত্র এবং তথ্যাদি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে আমরা নিয়মিত আপডেট তথ্য প্রেরণ করছি। গত ও চলতি অর্থ-বছরে বেশ কিছু বিদ্যালয়ের বাউন্ডারী দেয়াল নির্মাণ করা হয়েছে। বরাদ্দ পেলে এ বিদ্যালয়ের বাউন্ডারী দেয়ালও নির্মাণ করা হবে।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৬৫১৮৮
পুরোন সংখ্যা