চাঁদপুর, শনিবার ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৯-সূরা হাশ্‌র


২৪ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


৮। এই সম্পদ অভাবগ্রস্ত মুহাজিরগণের জন্য যাহারা নিজেদের ঘরবাড়ি ও সম্পত্তি হইতে উৎখাত হইয়াছে। তাহারা আল্লাহর অনুগ্রহ ও সন্তুষ্টি কামনা করে এবং আল্লাহর ও তাঁহার রাসূলের সাহায্য করে। উহারাই তো সত্যাশ্রয়ী।


 


 


যে খেলায় কেউ জিততে পারে না সেটাই সবচেয়ে খারাপ খেলা।


-টমাস ফুলার।


 


 


কৃপন ব্যক্তি খোদা হতে দূরে লোকসমাজে ঘৃণিত, দোজখের নিকটবর্তী।


 


 


বিষ্ণুপুরে ক্যাবল নেটওয়ার্কের তার কর্তন
সোহাঈদ খান জিয়া
১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর সদরের বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে প্রকাশ্যে ক্যাবল নেটওয়ার্কের তার কাটা ও মেশিন খুলে নিয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে।



মতলব দক্ষিণের মুন্সীরহাটের মীম ক্যাবল নেটওয়ার্কের স্বত্বাধিকারী নজরুল ইসলাম নয়ন হাজরা জানান, আমি ১২ বছর ক্যাবল নেটওয়ার্কের ব্যবসা করে আসছি। বিষ্ণুপুর আংশিক, ধনপর্দি, হাসাদী, মুন্সীরহাট এলাকায় ব্যবসা করছি। আমার সংযোগ লাইনের মধ্যে দিয়ে বিষ্ণুপুরের কামাল মিজি জোর করে লাইন প্রবেশ করায় এবং আমার তার কেটে দেয়, মেশিন খুলে নিয়ে যায়। যার ক্ষতির পরিমাণ ২ লাখ টাকা। এমনকি বিষ্ণুপুর এলাকায় ব্যবসা করতে হলে কামাল মিজিকে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দিতে হবে। আর টাকা না দিলে বিষ্ণুপুরে ব্যবসা করতে পারবে না বলে জানায়।



জানা যায়, কামাল মিজির নেটওয়ার্ক ব্যবসার কোনো কাগজপত্র নেই। পিড লাইন নিয়ে ব্যবসা করে আসছে। তার বিরুদ্ধে চাঁদপুরের পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ দায়ের করে ডিবি পুলিশের উপর দায়িত্ব দেয়া হয়। ডিবি পুলিশের এসআই অনুপ উভয় পক্ষকে নিয়ে মীমাংসার জন্য সময় নির্ধারিত করে দেয়। কিন্তু সালিসি একটি তারিখে কামাল মিজি অনুপস্থিত থাকে। সবশেষ তারিখে কামাল মিজি মুচলেখা দিয়ে আসে। কিন্তু পরের দিন কামাল মিজি পুনরায় নজরুল ইসলাম নয়ন হাজরার ক্যাবল নেটওয়ার্কের তার কেটে ব্যবসা বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দেয়। বর্তমানে নজরুল ইসলাম নয়ন হাজরা হতাশায় ভুগছেন। এ ব্যাপারে প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।



 



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ২,২৩,৪৫৩ ১,৬২,২০,৯০০
সুস্থ ১,২৩,৮৮২ ৯৯,২৩,৬৪৩
মৃত্যু ২,৯২৮ ৬,৪৮,৭৫৪
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৯১১০৮৫
পুরোন সংখ্যা