চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬, ২ রজব ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৪-সূরা তাগাবুন


১৮ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


১৫। তোমাদের সম্পদ ও সন্তান-সন্তুতি তো পরীক্ষা বিশেষ; আর আল্লাহ, তাঁহারই নিকট রহিয়াছে মহাপুরস্কার।


১৬। তোমরা আল্লাহকে যথাসাধ্য ভয় কর, এবং শোন, আনুগত্য কর ও ব্যয় কর তোমাদের নিজেদেরই কল্যাণের জন্য; যাহারা অন্তরের কার্পণ্য হইতে মুক্ত তাহারাই সফল কাম।


 


 


 


 


সাহসহীন কোনো ব্যক্তিই সাফল্য অর্জন করতে পারে না।


-কাও ন্যাল গিবন।


 


 


 


 


 


নিরপেক্ষ লোকের দোয়া সহজে কবুল হয়।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
নৌকার বিজয় নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জেলা আওয়ামী লীগে একাট্টা
নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে আমরা এগিয়ে যাবো : নাছির উদ্দিন আহমেদ
নির্বাচনী এই যুদ্ধ জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই করবো : মেয়র প্রার্থী জিল্লুর রহমান জুয়েল
মিজানুর রহমান
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এবারও একাট্টা হয়েছে বৃহত্তর আওয়ামী পরিবার। দলের মেয়র মনোনয়ন প্রত্যাশী ৬ জনই দলের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী জিল্লুর রহমান জুয়েলকে সমর্থন জানিয়েছেন। এ উপলক্ষে গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১২টায় দলীয় কার্যালয়ে দল মনোনীত মেয়র প্রার্থীর জন্যে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সভা করা হয়। সভায় নেতৃবৃন্দ সকল বিরোধ ভুলে নৌকার পক্ষে কাজ করার দৃঢ় অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।



সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমাদের দলে কোনো বিভাজন নেই। আমরাতো অনেক দিন করলাম। এখন তারুণ্যের জয় জয়কার। নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে আমরা জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে আরো এগিয়ে যাবো। তিনি বলেন, জিল্লুর রহমান জুয়েল আমাদের ছোট ভাই। দল তাকে মনোনয়ন দিয়েছে। আমার ও জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তাকে অভিনন্দন জানাই এবং তার সফলতা কামনা করি। মেয়র বলেন, চাঁদপুর শান্তির শহর। শহরবাসী চায় শান্তি ও নিরাপত্তা। ইনশাআল্লাহ জয় আমাদের সুনিশ্চিত। ২৯ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় উপভোগ করবো।



জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলালের সঞ্চালনায় সভায় নৌকার মেয়র প্রার্থী অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, আমি ব্যক্তি জুয়েল মুখ্য বিষয় নয়, নৌকা প্রতীক আমাদের দলের মর্যাদার, ঐতিহ্যের ও বঙ্গবন্ধুর প্রতীক। এই প্রতীকের পরাজয় হলে লজ্জা হবে দলের সবার এবং নেত্রীর। মর্যাদার এ লড়াইয়ে আওয়ামী লীগ পরিবারের সবার ঐক্যবদ্ধ সমর্থনে নৌকা বিজয়ী হবে। তিনি আরো বলেন, নির্বাচনী এই যুদ্ধ জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই করতে চাই। বিগত ১৪ বছর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ পৌরবাসীর সেবা করেছেন। বয়সে এবং রাজনীতিতে তিনি অনেক সিনিয়র, দক্ষ, যোগ্য ও অভিজ্ঞ। তাঁর পরামর্শ ও সহযোগিতা আমি কাজে লাগাবো।



জুয়েল আরো বলেন, মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী যারা ছিলেন তারা সবাই যোগ্য। দল আমাকে বিবেচনা করেছে। আমি মনে করি এখানে কারোই পরাজয় হয়নি। এটা দলের সিদ্ধান্ত। নির্বাচনী এ লড়াইটা করা আমার একার পক্ষে সম্ভব না। আমি জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বের প্রতি অবিচল শ্রদ্ধাশীল। জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই নির্বাচন করবো। তিনি আরো বলেন, নির্বাচনে জয়ী হলে চাঁদপুরকে একটি পরিকল্পিত শহর হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করবো।



জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ডাঃ জেআর ওয়াদুদ টিপু তাঁর বক্তব্যে বলেন, এ নির্বাচনে ৬ জন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন, তাঁরা সবাই যোগ্য। জেলা আওয়ামী লীগ মিটিং করে প্রার্থী তালিকা দলের সভানেত্রীর কাছে পাঠিয়েছে। দল যাকে মনে করেছে মনোনয়ন দিয়েছে। নাছির উদ্দিন আহমেদ অনগ্রসর চাঁদপুর পৌরসভাকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়েছেন।



তিনি বলেন, সারাদেশের মধ্যে চাঁদপুরে ইভিএমে ভোট সন্তোষজনক ছিল। হাইমচর উপজেলা নির্বাচনে ৪০% ভোট পরেছে। এ পৌরসভা নির্বাচনে ৫০ থেকে ৬০% ভোট কাস্ট হবে বলে আশা করেন তিনি।



সভায় মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোঃ ইউসুফ গাজী, সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আলম মিল্টন।



এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, পৌর ও উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগসহ অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।



উল্লেখ্য, চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল চাঁদপুরে আগমন উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করে জেলা আওয়ামী লীগ।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৯০৭০৭
পুরোন সংখ্যা