চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬, ২ রজব ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৪-সূরা তাগাবুন


১৮ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


১৫। তোমাদের সম্পদ ও সন্তান-সন্তুতি তো পরীক্ষা বিশেষ; আর আল্লাহ, তাঁহারই নিকট রহিয়াছে মহাপুরস্কার।


১৬। তোমরা আল্লাহকে যথাসাধ্য ভয় কর, এবং শোন, আনুগত্য কর ও ব্যয় কর তোমাদের নিজেদেরই কল্যাণের জন্য; যাহারা অন্তরের কার্পণ্য হইতে মুক্ত তাহারাই সফল কাম।


 


 


 


 


সাহসহীন কোনো ব্যক্তিই সাফল্য অর্জন করতে পারে না।


-কাও ন্যাল গিবন।


 


 


 


 


 


নিরপেক্ষ লোকের দোয়া সহজে কবুল হয়।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
প্রকৌঃ মোহাম্মদ হোসাইন আইইবির সহ-সভাপতি প্রার্থী
কামরুজ্জামান টুটুল
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


হাজীগঞ্জের কৃতী সন্তান প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (আইইবি)-এর নির্বাচনে সহ-সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আজ ২৭ ফেব্রুয়ারি এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সংগঠনের আজকের নির্বাচনে ইতিমধ্যে প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইনকে বিজয়ী করতে ভোটারদের অধিকাংশ আগ্রহ প্রকাশ করেছে। প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন আন্তর্জাতিক জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ইউএন-এসক্যাপ-এর জ্বালানি বিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিদ্যুৎ ও জা্বালানি মন্ত্রণালয়ের পাওয়ার সেল বিভাগের মহাপরিচালক এবং মিডিয়া ব্যক্তিত্ব।



হাজীগঞ্জের ৯নং গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের সন্তান প্রকৗশলী মোহাম্মদ হোসাইন দীর্ঘ ২৫ বছর যাবৎ আইইবির সাথে সম্পৃক্ত। এ দীর্ঘ সময়ে তিনি আইইবির বিভিন্ন কার্যক্রমে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে অবদান রেখে চলছেন। বিশেষ করে ঢাকা কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক থাকাকালে প্রকৌশলী সমাজ ও প্রকৌশল পেশাজীবীদের জন্যে কাজ করে যাচ্ছেন।



প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক এবং আইবিএ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীতে তিনি ডেনমার্ক থেকে ওহংঃরঃঁঃরড়হধষ ধহফ ঐজউ (ওঐজউ) বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা ডিগ্রি লাভ করেন।



প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন 'বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ক্লাব'-এর সফল প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট, বুয়েট ৮৮ ক্লাব-এর প্রেসিডেন্ট ছিলেন। এছাড়া উত্তরা ১৪নং সেক্টর সোসাইটি পরিচালনা কমিটির একজন সফল প্রেসিডেন্ট ছিলেন। তিনি বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ বুয়েট এলামনাই-এর একজন ট্রাস্টি।



প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন একজন বিদ্যুৎ কর্মী হিসেবে ১৯৯৬ সালে সহকারী পরিচালক পদে প্রথম পাওয়ার সেলে যোগদান করেন। এরপরে তিনি বিভিন্ন মেয়াদে উপ-পরিচালক এবং বর্তমানে মহা-পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি সেনাকল্যাণ সংস্থার এমআইএস ডিভিশন-এর প্রতিষ্ঠাতা ব্যবস্থাপক ছিলেন। বিদ্যুৎখাতের মহা-পরিকল্পনা প্রণয়ন, বিদ্যুৎখাত উন্নয়নে বিভিন্ন নীতিমালা, আইন প্রণয়ন এবং বিদ্যুৎখাতের বিভিন্ন সংস্থা/কোম্পানী সমূহকে কারিগরী সহায়তা প্রদান করাই পাওয়ার সেলের দায়িত্ব। আর সেই পাওয়ার সেলের মহা-পরিচালক পদে দায়িত্ব পালন করে আসছেন তিনি।



প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন বর্তমানে জাতিসংঘের এসক্যাপের জ্বালানি কমিটির চেয়ারম্যান। তিনি সার্ক এনার্জি সেন্টারের বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন এবং এর গভর্নিং বোর্ডের একজন সদস্য। তিনি ২০১০ সালে বাংলাদেশ ও ভারতের সাথে বিদ্যুৎখাতে সহযোগিতার জন্যে যেনো ঐতিহাসিক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে, তিনি তার প্রথম অনুস্বাক্ষরকারী। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ-ভারত এবং বাংলাদেশ-নেপাল বিদ্যুৎখাত সহযোগিতা সম্পর্কিত যৌথ স্টিয়ারিং কমিটির একজন সদস্য।



আজ ২৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ভাইস-প্রেসিডেন্ট (একাডেমিক এন্ড ইন্টারন্যাশনাল) পদে সম্মানিত ভোটারের দোয়া, সহযোগিতা ও মুল্যবান রায় প্রত্যাশী। তিনি নির্বাচিত হলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (আইইবি)কে ভিন্ন আঙ্গিকে সাজাবেন ও কমিটির সকলের সাথে ঐক্যমতের ভিত্তিতে সংগঠনকে একটি আদর্শিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।



প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন কর্মজীবনের পাশাপাশি নিজ এলাকা তথা হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ, সকল ধর্মের অসহায় ও দুঃস্থদের সহায়তা, শীতবস্ত্র, সেলাই মেশিন বিতরণসহ নানা ধরনের সহায়তা করে আসছেন।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
২৩৭৯৮২
পুরোন সংখ্যা