চাঁদপুর। মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০১৬। ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৩। ৮ রমজান ১৪৩৭
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৪-সূরা নূর

৬৪ আয়াত, ৯ রুকু, ‘মাদানি’

পরম করুণাাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৬। এবং যাহারা নিজেদের স্ত্রীর প্রতি অপবাদ আরোপ করে অথচ নিজেরা ব্যতীত তাহাদের কোনো সাক্ষী নাই, তাহাদের প্রত্যেকের সাক্ষ্য এই হইবে যে, সে আল্লাহর নামে চারিবার শপথ করিয়া বলিবে যে, সে অবশ্যই সত্যবাদী।  

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


নামে মানুষকে বড় করে না, মানুষই নামকে জাকাইয়া তোলে।  

-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।


যে কোনো ব্যক্তি অনুপস্থিত ব্যক্তির জন্যে দোয়া করলে তা অতি সত্বর কবুল হয়।

-হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)


ফটো গ্যালারি
দেশের অর্থনীতি মজবুত অবস্থানে রয়েছে
১৪ জুন, ২০১৬ ১৮:১৪:১৮
প্রিন্টঅ-অ+


প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের সদস্যরা বলেছেন, অভ্যন্তরীণ দুর্নীতি রোধ ও শেখ হাসিনা সরকারের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশের অর্থনীতি এখন মজবুত অবস্থানে রয়েছে। তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর যোগ্য ও সফল নেতৃত্বের কারণেই ২০০৯ সাল থেকে জাতীয় বাজেটের আকার ধারাবাহিকভাবে বৃদ্ধি করা সম্ভব হয়েছে। সর্বশেষ ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট দেশের ইতিহাসে টাকার অংকে সর্ববৃহৎ বাজেট।



এ বাজেট বাস্তবায়নের মাধ্যমে জাতিকে সমৃদ্ধির দিকে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। আজ সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে অধিবেশনের শুরুতে মন্ত্রীদের জন্য প্রশ্ন-জিজ্ঞাসা-উত্তর টেবিলে উপস্থাপন ও আইন প্রণয়ন কার্যক্রম শেষে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনা শুরু হয়।



 গত ২ জুন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জন্য ৩ লাখ ৪০ হাজার ৬০৫ কোটি টাকার বাজেট পেশ করেন। ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট আলোচনার ৫ম দিনে আজ মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার, সরকারী দলের শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ডা. মো. আমানুল্লাহ, রেজাউল করিম হীরা, টিপু মুন্সি, কাজী কেরামত আলী, হাবিবে মিল্লাত, আফতাব উদ্দিন সরকার ও জাতীয় পার্টির একেএম মাইদুল ইসলাম অংশ নেন।



বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার একটি আত্মনির্ভরশীল বাজেট উপস্থাপন করেছে। নানা প্রতিকূলতা ও ষড়যন্ত্রের পরও সরকার নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুর কাজ শুরু করেছে। কৃত্রিম দুর্ভিক্ষ সৃষ্টি করে বঙ্গবন্ধুকে যেমন বিশ্বের কাছে হেয় প্রতিপন্ন করেছিল তেমনি, পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্র করে তারা শেখ হাসিনা সরকারকে হেয় প্রতিপন্ন করতে চেয়েছিল।



 কিন্তু তারা সফল হতে পারেনি। তিনি বলেন, সরকারের গতিশীল নেতৃত্বে দেশের অর্থনীতির ভীত এখন অনেক বেশি মজবুত। প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পেয়েছে, রেমিটেন্স, মাথাপিছু আয়, রপ্তানী আয়সহ অর্থনীতির প্রতিটি নির্দেশক এখন উর্ধ্বমুখী। সরকার দেশের উন্নয়নে পদ্মা সেতুসহ ১০টি মেগা প্রকল্প হাতে নিয়েছে। সরকারের কূটনীতিক সফলতায় আঞ্চলিক ও উপআঞ্চলিক যোগাযোগ স্থাপিত হয়েছে। শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, ‘দেশের যদি সবচেয়ে ক্ষতি কেউ করে থাকেন তিনি হচ্ছেন জিয়াউর রহমান।



 আর তার স্ত্রী খালেদা জিয়া পাকিস্তানের এজেন্ডা বাস্তবায়নের দায়িত্ব নিয়ে একের পর এক ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছেন। আন্দোলনের নামে অগ্নি সন্ত্রাসের মাধ্যমে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছিলেন। শত শত মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। এজন্য খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা হওয়া উচিত। যেন ভবিষ্যতে পাকিস্তানের কোন প্রেতাত্মা এ দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করতে না পারে। দ্রুত খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, শেখ হাসিনাবিহীন নির্বাচন চান খালেদা জিয়া। এ ইচ্ছা তার বহুদিনের।



সেজন্যই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলাসহ বহুবার শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করেছেন, কিন্তু পারেননি। খালেদা জিয়া এখন আরেকটি ২১ আগস্ট ঘটানোর চেষ্টা করছেন। শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, বিএনপি নেত্রী ইসলামের কথা বলে মুখে ধোঁয়া তুললেও সরকার হটিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য ফেরাউনের সাথে হাত মিলিয়েছে, ইসলাম বিরোধী এই কার্যক্রম কোন মুসলমান মেনে নেবে না।



বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরী ইসরাইলী গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য সাফাদীর সাথে বৈঠক করেছে। তাদের এই ষড়যন্ত্র ফাঁস হয়ে যাওয়ায় ষড়যন্ত্রে সফল হতে পারেনি। তারা সজিব ওয়াজেদ জয়ের নামে এ ধরনের একটি মিথ্যা সংবাদ সরবরাহ করে জাতিকে বিভ্রান্ত করতে চেয়েছিল, এই ষড়যন্ত্রেও তারা ব্যর্থ হয়েছে। জয়ের নামে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের জন্য বিবিসি ইতোমধ্যে দুঃখ প্রকাশ করেছে। যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার একটি দিক নির্দেশনামূলক ও জনকল্যাণমূলক বাজেট উপস্থাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রস্তাবিত এই বাজেট বাংলাদেশকে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর অভিপ্রায়ের প্রতিফলন।



উচ্চাভিলাসী বলে প্রস্তাবিত বাজেট সম্পর্কে অনেকের সমালোচনার জবাবে তিনি বলেন, এই বাজেট অবশ্যই উচ্চাভিলাসী। কারণ উচ্চাভিলাস না থাকলে মানুষ তার কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারে না। তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রী বারবার উচ্চাভিলাসী বাজেট দিয়েছেন বলেই দেশ অগ্রগতির শীর্ষে অবস্থান করতে পারছে। এই বাজেট বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশের কাঙ্খিত উন্নয়ন সাধিত হবে। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের জন্য বাজেটে ৯শ’ ২২ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করায় প্রতিমন্ত্রী সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ক্রীড়ার মাধ্যমে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে এক উজ্জল ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছে।



বিশ্বের যে কোন দল এখন এদেশে খেলতে আসার আগে অনেক ভাবনা-চিন্তা করেন। তিনি বলেন, এদেশে কোন জঙ্গি নেই, মোস্তাফিজ, শাকিবরা রয়েছে। তাই বিশ্বের অনেক দেশে যাওয়ার আগে জঙ্গির ভয় পেলেও বাংলাদেশে এই ভয় নেই। অস্ট্রেলিয়া জঙ্গি আছে বলে এদেশে আসার অসম্মতি জানালেও তাদের ফুটবল দল পরবর্তীতে এসে খেলে গেছে। আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের সদস্যরা বলেন, দেশের মানুষের সার্বিক উন্নয়নের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটের আকার খুব একটা বড় নয়। এই বাজেট বাস্তবায়নযোগ্য তবে রাজস্ব আদায়ের আওতা বাড়াতে হবে।



তারা বলেন, দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রা ও উন্নয়নের গতি অব্যাহত রাখার লক্ষ্য নিয়ে সরকার এবারের বাজেট উপস্থাপন করেছে। সরকারের গতিশীল নেতৃত্বে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ব্যাপক সাফল্য অর্জিত হয়েছে বলে তারা উল্লেখ করেন। বিরোধী দলের সদস্যরা বলেন, প্রস্তাবিত বাজেট আরো বড় আকারের হওয়া উচিত ছিল। তবে এই বাজেট বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিতে হবে।



 অন্যথায় সরকারের উপর মানুষের আস্থা কমে যাবে। তারা প্রস্তাবিত বাজেটে পোশাক শিল্পের কর্পোরেট কর বাতিলের সমালোচনা করে তা পুনর্বিবেচনার দাবি জানান। এ ছাড়া গ্রামীণফোনসহ মোবাইল কোম্পানীগুলোর আয় কর আদায়ে আরো যতœবান হওয়ার আহবান জানান। জাতীয় পার্টির সদস্যরা ব্যাংকিং খাতের অনিয়ম ও দুর্নীতি বন্ধে লুটপাটকারীদের শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানান ।



তারা বিদ্যুৎ খাতে সরকারের ব্যাপক সাফল্যের জন্য ধন্যবাদ জানান। তারা কৃষি খাতে ভর্তুকি বহাল রাখা ও মোবাইল ফোন ব্যবহারের উপর আরোপিত অতিরিক্ত ২ শতাংশ কর প্রত্যাহারের দাবি করেন।



সূত্র : প্রথমবার্তা


এই পাতার আরো খবর -
    আজকের পাঠকসংখ্যা
    ৪৬২০৬৯
    পুরোন সংখ্যা