চাঁদপুর। বৃহস্পতিবার ৫ জুলাই ২০১৮। ২১ আষাঢ় ১৪২৫। ২০ শাওয়াল ১৪৩৯
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৯-সূরা আয্-যুমার

৭৫ আয়াত, ৮ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২৪। যে ব্যক্তি কেয়ামতের দিন তার মুখ দ্বারা অশুভ আযাব ঠেকাবে এবং এরূপ জালেমদেরকে বলা হবে, তোমরা যা করতে তার স্বাদ আস্বাদন কর, সে কি তার সমান, যে এরূপ নয়?

২৫। তাদের পূর্ববর্তীরাও মিথ্যারোপ করেছিল, ফলে তাদের কাছে আযাব এমনভাবে আসল, যা তারা কল্পনাও করত না।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


মন যদি পরিষ্কার হয় তবে চোখের দৃষ্টি স্বচ্ছ হবে।                       


-টমাস পেইনি।


যে শিক্ষিত ব্যক্তিকে সম্মান করে, সে আমাকে সম্মান করে।   



 


ফটো গ্যালারি
কচুয়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড ও জরিমানা
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম ॥
০৫ জুলাই, ২০১৮ ২১:০০:১৪
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুরে কচুয়ায় স্ত্রী সালেহা বেগম হত্যার দায়ে স্বামী ইব্রাহীম খলিলকে মৃত্যুদ- ও জরিমানা করেছে জেলা ও দায়রা জজ আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে চাঁদপুর জেলা ও দায়রা জজ মোঃ জুলফিকার আলী খাঁন এ রায় দেন। সাজাপ্রাপ্ত ইব্রাহীম খলিল কচুয়া উপজেলার নাউপুরা গ্রামের মৃত আলতাফ উদ্দীনের ছেলে।

মামলার এজাহারে জানা যায়, ইব্রাহীম প্রতিনিয়ত তার স্ত্রী ছালেহা বেগমকে মারধর করতো। ২০১৩ সালের ২ নভেম্বর সন্ধ্যায় আসামীর বসতঘরে পারিবারিক কলহ নিয়ে লোহার পাইপদ্বারা ছালেহাকে মাথার সম্মুখে বেদম প্রহার করলে গুরুতর অবস্থায় তাকে কচুয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে তাহাদের পরিবারের সদস্যরা কুছাইতলী মেডিকেল কলেজের হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কর্তব্যরত চিকিৎসক  ছালেহাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। গভীর রাতে  ঢাকা নেয়ার পথে দাউদকান্দি এলাকায় মৃত্যুরকোলে ঢলে পড়ে সালেহা।

৩ নভেম্বর সালেহার ভাই কাউছার আহম্মেদ ইব্রাহীম খলিলকে আসামী করে কচুয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা  কচুয়া থানার উপ-পরিদর্শক ছাদেকুর রহমান একই বছর ৯ ডিসেম্বর ইব্রাহীম খলিলের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

দীর্ঘ শুনানি এবং ৯জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বৃহস্পতিবার আদালত আসামির অনুপস্থিতিতে ৩০২ ধারায় আদালত আসামিকে মৃত্যুদন্ডের সাজা ও ১০ হাজার টাকা অর্থদ- প্রদান করে। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন পিপি অ্যাডঃ মোঃ আমান উল্লাহ ও এপিপি অ্যাডঃ মোক্তার আহমেদ। আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডঃ মোঃ জয়নাল আবেদীন।

 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৪০১২১৪
পুরোন সংখ্যা