jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৯-সূরা হাশ্‌র


২৪ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


৫। তোমরা যে খর্জুর বৃক্ষগুলি কর্তন করিয়াছ এবং যেগুলি কা-ের উপর স্থির রাখিয়া দিয়াছ, তাহা তো আল্লাহরই অনুমতিক্রমে; এবং এইজন্য যে, আল্লাহ পাপাচারীদিগকে লাঞ্ছিত করিবেন।


 


 


assets/data_files/web

আকৃতি ভিন্ন ধরনের হলেও গৃহ গৃহই। -এন্ড্রি উল্যাং।


 


 


স্বদেশপ্রেম ঈমানের অঙ্গ।


 


 


ফটো গ্যালারি
আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর
০৫ জুন, ২০১৯ ০৯:৫১:২৬
প্রিন্টঅ-অ+


পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। তাই আগামীকাল বৃহস্পতিবার নয়, আজ বুধবার (৫ জুন) সারা দেশে এক যোগে ঈদ উল ফিতর অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ। মঙ্গলবার রাত ১১টা ১৫ মিনিটে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির দ্বিতীয় বৈঠকে এ ঘোষণা দেন প্রতিমন্ত্রী।



 


এ সময় তিনি বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন জায়গায় শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। বুধবার যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।’ তবে এর আগে মাগরিবের নামাজের পর দেশের কোথাও চাঁদ দেখা না যাওয়ায় আগামী বৃহস্পতিবার ঈদ উল ফিতরের ঘোষণা দিয়েছিলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ৭টা ১৫ মিনিটে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক শুরু হয়। এতে ৬৪ জেলার ইসলামী ফাউন্ডেশনের তথ্য, মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ও আবহাওয়া অফিসের তথ্য বিশ্লেষণ করে কোথায় শাওয়াল মাসের চাঁদ না দেখা যাওয়ার খবর পাওয়া যায়। পরে মঙ্গলবার রাত ১১ টায় দ্বিতীয় দফা ব্রিফিংয়ের সময় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাটের জেলা প্রশাসকরা আমাদের জানিয়েছেন, এই দুই জেলার কিছু কিছু মানুষ চাঁদ দেখেছেন। পাটগ্রাম উপজেলার ইউএনও জানিয়েছেন, তাদের সাত জন ব্যক্তি সরাসরি চাঁদ দেখেছেন এবং আরও ১১ জন চাঁদ দেখেছেন বলে জানিয়েছেন। শরিয়ত মোতাবেক, কোনও ঈমানদার ব্যক্তি চাঁদ দেখলে এবং দুই জন তাদের চাঁদ দেখার স্বীকৃতি দিলে মেনে নেওয়া উচিত। ব্যক্তিগত স্বার্থে নয়, কোরআন-হাদিস অনুযায়ী শরিয়ত মোতাবেক আমরা আগামীকাল বুধবার ঈদ উদযাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘সন্ধ্যায় আমরা যখন বৈঠকে বসেছি, তখন চাঁদ দেখার খবর আসেনি। দেশের ৬৪ জেলাতেই চাঁদ দেখা কমিটি আছে, তারা বৈঠক করেই আমাদের যে তথ্য দিয়েছেন, আমরা সেই তথ্যই জানিয়েছি। সেই অনুযায়ী আমরা বৃহস্পতিবার ঈদুল ফিতরের ঘোষণা দিয়েছিলাম। আমরা নিজেরাও বায়তুল মুকাররমে তারাবি পড়েছি। তারাবি শেষে খবর পেয়েছি, কিছু কিছু স্থানে চাঁদ দেখা গেছে। পরে আলেমদের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় খোঁজখবর করে সার্বিকভাবে বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, বুধবার ঈদুল ফিতর পালিত হবে।’ এর আগে, রাত পৌনে নয়টার দিকে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘দেশের কোথাও থেকে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার খবর পাওয়া যায়নি। আজ চাঁদ দেখা না যাওয়ায় আগামীকাল (বুধবার) ঈদ হচ্ছে না। আগামী বৃহস্পতিবার সারাদেশে যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।’ ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আরও বলেছেন, ‘সভায় ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা সম্পর্কে সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ৬৪ জেলা কার্যালয়, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর, মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান থেকে পাওয়া তথ্য নিয়ে পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, আজ (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় বাংলাদেশের আকাশে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তাই, আগামী বৃহস্পতিবার থেকে পবিত্র শাওয়াল মাস গণনা শুরু হবে। এদিন ১ শাওয়াল সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।’ এর আগে, মাগরিবের নামাজের পর সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মোকাররমের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি বৈঠকে বসে। এতে সভাপতিত্ব করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ। আরও উপস্থিত ছিলেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা, বাংলাদেশ টেলিভিশনের পরিচালক, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম। সভায় চাঁদ দেখা সম্পর্কে সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ৬৪ জেলা কার্যালয়, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের ৪৭টি কেন্দ্র এবং মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত তথ্য নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়। এদিকে, সোমবার (৩ জুন) পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যাওয়ায় আজ মঙ্গলবার সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি দেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়। এদিকে, সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে লক্ষ্মীপুর, দিনাজপুর, নারায়ণগঞ্জ, বরগুনা, চাঁদপুর, শরীয়তপুর, কুমিল্লা, ভোলাসহ কয়েকটি জেলার শতাধিক গ্রামে মঙ্গলবারই পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়েছে। ঈদের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৮টায়

ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে ৮টায়। জাতীয় ঈদগাহে মুসল্লিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এছাড়া, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে সকাল ৭টা থেকে পর্যায়ক্রমে ৫টি জামাত হবে অনুষ্ঠিত হবে। এবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কম-পরিবারের পক্ষ থেকে আমাদের সকল কর্মী, শুভানুধ্যায়ী ও বিজ্ঞাপনদাতাদের জানাই পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা; ঈদ মুুবারক।


আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৪৯১৫৫
পুরোন সংখ্যা