চাঁদপুর। সোমবার ১২ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮
ckdf

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৬-সূরা শু’আরা

২২৭ আয়াত, ১১ রুকু, ‘মক্কী’

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

১২৩। ‘আদ সম্প্রদায় রাসূলগণকে অস্বীকার করিয়াছিল।

১২৪। যখন উহাদের ভ্রাতা হূদ উহাদিগকে বলিল, ‘তোমরা কি সাবধান হইবে না?

১২৫। আমি তো তোমাদের জন্য এক বিশ্বস্ত রাসূল।’  

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


বিশ্বাস এবং আস্থা ছাড়া বন্ধুত্ব হয় না।

-রবার্ট ক্লেয়ার। 


যার রসনা ও হস্তদ্বয় হইতে কোন মুসলমানের কোন প্রকার অনিষ্ট না হয়, সেই প্রকৃত মুসলমান এবং যে আল্লাহর নিষিদ্ধ কার্য হইতে পলায়ন করে সে-ই প্রকৃত মহাজ্জির।


সময়ের বনলতা
আবদুল মান্নান আকন্দ
১২ ডিসেম্বর, ২০১৬ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

ফুটপাতে কোলাহল অবিরত

তবু অঘোরে ঘুমায় বনলতা।

দহনে নির্জনে পোড়ে বার্ধক্যের তনু

ফুলবনে বাজে বিবাগীর সুর,

নীল দংশনে ফ্যাকাসে মুখশ্রী

তবু আশার তরী ভাসে উত্তাল মোহনায়।

বনলতা নয় জীবনানন্দের অমর কাব্যগাঁথা

পথে প্রান্তরে স্বল্প দামের এক আদিম পণ্য সে,

রবী-রশ্মির আশ্রিতা বিনোদিনী চোখের বালিসম।

কলঙ্কিনী রাধা নয়, নয় বিরহী চারুলতা।

বনেদী সমাজের ছুড়ে ফেলা উচ্ছিষ্ট-

কাক শকুনের লালাসিক্ত চৈতির ঝরাপাতা।

ঘুম ভাঙে মোটর বাইকের হুইসেলে

কর্কশ কণ্ঠধ্বনি-কী খোঁজেন?

কিছুই না, তোর কোনো সমস্যা আছে?

আছে, আমার কানের কাছে বাঁশি বাজান ক্যান?

রাস্তাটা কি তোর বাপের? এইখানে ঘুমাস কেন?

এইটা আমার জায়গা

থাকস কই?

এইটাই আমার ঘর

শালির বেটি কয় কি হা হা হা হা...

উঠ্ এইখান থেইকা

উঠমু না, কইছিনা এইটাই আমার ঘর

পুলিশের বড়কর্তা মোটর বাইকে হেলান দিয়ে আয়েশ করে সিগারেট ধরায়।

উঠ্ কইতাছি, ভিআইপি আইবো

আহুক, আপনের ভিআইপিরে কন অন্য রাস্তায় যাইতে, আমি অহন ঘুমামু।

তেল চিটচিটে ছেঁড়া কম্বলে শরীর ঢেকে দেয়,

শুয়ে পড়ে,

সাদা ঠ্যাং দুটো বেরিয়ে থাকে ছোট কম্বলের ভাঁজে।

বড় কর্তা অপলক তাকায়_

সিগারেটের ধূমায়িত নিকোটিনে শিরশির করে উঠে ষষ্ঠাঙ্গ,

অনুভূতির তারল্য নামে মস্তিষ্ক থেকে নিম্নাঙ্গ।

আহা! বনলতা-

বনেদী সমাজের ছুড়ে ফেলা উচ্ছিষ্ট-

তবু এই খোলা আসমানের নিচে

তির তির করে জাগে বড়কর্তার মনোবৈকল্য।

কামনার নোনাজল ভেজায় অন্তর্বাস,

সাদা ঠ্যাং দু খানি ধর্ষিত হয় এই দুপুরে!

আহা! ভিআইপির দায়িত্ব পালনে বড় ব্যস্ত বড় কর্তা!

ভিআইপি আসে চলেও যায়

তারল্যের ব্যারোমিটার ছুটে ঊর্ধ্ব গগনে,

কাউকে তাড়ানোর তাড়া নেই আর বড়কর্তার।

এই শালি কই থাকস্?

এইখানেই

রাইতে কই কাম করস?

ক্যান, কাম করবেন নাকি টাকায় ভাগ বসাইবেন?

আরে কই পাওয়া যাইবো ক না?

কালীমন্দিরের পিছনে।

মোটর বাইক ছুটে যায় দ্রুতবেগে।

মুচকি হাসে বনলতা!

হাসে এক টুকরো বাংলাদেশ!

আজকের পাঠকসংখ্যা
২৫৮৫৯৬
পুরোন সংখ্যা