চাঁদপুর। মঙ্গলবার ৩ এপ্রিল ২০১৮। ২০ চৈত্র ১৪২৪। ১৫ রজব ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৬-সূরা ইয়াসিন


৮৩ আয়াত, ৫ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৭৭। মানুষ কি দেখে না যে, আমি তাকে সৃষ্টি করেছি বীর্য থেকে? অতঃপর তখনই সে হয়ে গেল প্রকাশ্য বাকবিত-াকারী।


৭৮। সে আমার সম্পর্কে এক অদ্ভুত কথা বর্ণনা করে, অথচ সে নিজের সৃষ্টি ভুলে যায়। সে বলে কে জীবিত করবে অস্থিসমূহকে যখন সেগুলো পচে গলে যাবে?


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


 


সাধারণ বুদ্ধিটা অতবেশি সাধারণ নয়


-ভলতেয়ার।


 


 


 


 


 


 


 


ধনদৌলত ফিরিয়া আসে এবং একটি শুধু কর্মই সঙ্গে থাকে।


 


 


ফটো গ্যালারি
মহাকাশে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট
০৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১৩:২৮:৪৩
প্রিন্টঅ-অ+


আগামী ২৪ এপ্রিল উৎক্ষেপন করা হতে পারে বাংলাদেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-ওয়ান। স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণের সার্বিক প্রস্তুতির জন্য ফ্রান্স থেকে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ।



এর মাধ্যমে ৫৭তম স্যাটেলাইট সদস্য দেশের তালিকায় নাম লেখাবে বাংলাদেশ। তবে আশা করা হচ্ছে, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-ওয়ান উৎক্ষেপণের মাধ্যমে দেশের টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি খাতে অনেক সুবিধা নিশ্চিত হবে।



বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন ‘আমাদের একটা টেকনিক্যাল টিম ওখানে (যুক্তরাষ্ট্রে) যাবে। যখন পরীক্ষা নিরীক্ষা চলবে, তখন আমাদের এই টিমটা একসঙ্গে পরীক্ষা নিরীক্ষা করবে। আমার ধারণা এটা ২৪তারিখে উৎক্ষেপণ করা সম্ভব হবে। যেই রিয়েল স্টেটটা আমরা কিনেছি, যেটার পজিশন হচ্ছে ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশ। সেখানে যেতে আটদিনের মতো লাগবে।’



শাহজাহান মাহমুদ বলেন, ‘শুধু এনটিভি না, প্রায় ৩৭টা টিভি চ্যানেল বিদেশি স্যাটেলাইট থেকে ব্যান্ডউইথ ভাড়া করে। এতে আমাদের প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় হয়। আমাদের এই বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট হওয়ার ফলে এই বৈদেশিক মুদ্রাটা সাশ্রয় করব। যেখানে আমাদের ফাইবার অপটিক ক্যাবল যায়নি,সেখানে আমরা এই স্যাটেলাইটের মাধ্যমে শুধু ডাটা না,আমরা ভয়েসও দিতে পারব।’



ভূপৃষ্ঠ থেকে ২২ হাজার মাইল উপরে মহাকাশের ১১৯ দশমিক ১ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমায় অবস্থান করবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-ওয়ান।যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেপ ক্যানাভেরাল থেকে দেশটির বেসরকারি মহাকাশ গবেষণা সংস্থা স্পেসএক্সের ‘ফ্যালকন-নাইন’ রকেটে করে এটি পাঠানো হবে নির্ধারিত কক্ষপথে।প্রায় দুই হাজার ৯৬৭ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ১-এর প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের থ্যালেস অ্যালেনিয়া স্পেস। উপগ্রহটির ওজন তিন দশমিক সাত টন।



প্রায় ১৫ বছর মিশনের কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু ১-এর ২০টি ট্রান্সপনডার ব্যবহার করবে বাংলাদেশ। বিদেশি প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রির জন্য রাখা হবে বাকি ২০টি ট্রান্সপনডার। আর এই ট্রান্সপনডারের ভাড়া দিয়ে আগামী দেড় বছরের মধ্যে স্যাটেলাইটের খরচ উঠে আসবে বলে আশা করছে সরকার।



জানা যায়,টেলিভিশন, বেতার সম্প্রচার, ইন্টারনেট সেবাদান, ভি-স্যাটসহ ৪০ ধরনের সেবা দেবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট। এ ছাড়া প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে টেরেস্ট্রিয়াল অবকাঠামো ক্ষতি হলেও এটি সারা দেশে নিরবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ ব্যবস্থা বহাল রাখবে। এর আগে এসব সেবার জন্য দেশের টেলিভিশন চ্যানেল কিংবা টেলিযোগাযোগ সেবার প্রতিষ্ঠানগুলো সিঙ্গাপুর, হংকংসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের স্যাটেলাইট ব্যবহার করত। যে কারণে খরচ হতো বিপুল বৈদেশিক মুদ্রা।



তথ্য সূত্র : এনটিভি


আজকের পাঠকসংখ্যা
১৪৩৯৬২৭
পুরোন সংখ্যা