চাঁদপুর। সোমবার ২৯ অক্টোবর ২০১৮। ১৪ কার্তিক ১৪২৫। ১৮ সফর ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক, কিংবদন্তীতুল্য সমাজসেবক আলহাজ্ব ডাঃ এম এ গফুর আর বেঁচে নেই। আজ ভোর ৪টায় ঢাকার শমরিতা হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন।ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন।বাদ জুমা পৌর ঈদগাহে জানাজা শেষে বাসস্ট্যান্ড গোর-এ-গরিবা কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হবে।
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪৩-সূরা যূখরুফ

৮৯ আয়াত, ৭ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২৭। সম্পর্ক আছে শুধু তাঁরই সাথে যিনি আমাকে সৃষ্টি করেছেন এবং তিনিই আমাকে হেদায়েত দিবেন।

২৮। এই (তাওহীদের) ঘোষণাকে যে স্থায়ী কালেমারূপে রেখে গেছে তার পরবর্তীদের জন্যে যাতে তারা (শিরক থেকে) প্রত্যাবর্তন করে।

২৯। বরং আমিই তাদেরকে এবং তাদের পূর্বপুরুষদেরকে সুযোগ দিয়েছিলাম ভোগের, অবশেষে তাদের নিকট সত্য ও স্পষ্ট (প্রচারক) রাসূল আগমন করা পর্যন্ত।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


যে ব্যক্তি সর্বদা পবিত্র (হালাল) দ্রব্য ভক্ষণ করে, আমার বিধি অনুসারে চলে এবং মানুষের কোন ক্ষতি করে না, সে বেহেশতবাসী হবে।



 


যে ব্যক্তি সর্বদা পবিত্র (হালাল) দ্রব্য ভক্ষণ করে, আমার বিধি অনুসারে চলে এবং মানুষের কোন ক্ষতি করে না, সে বেহেশতবাসী হবে।



 


ফটো গ্যালারি
দাবি না মানলে ফের ধর্মঘট
২৯ অক্টোবর, ২০১৮ ১৪:৩৮:০৬
প্রিন্টঅ-অ+


নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে সড়কে শৃঙ্খলা আনতে সড়ক নিরাপত্তা আইন সরকার প্রণয়ন করার পর তার বিরোধিতায় নামেন পরিবহন শ্রমিকরা।



রোববার সকাল ৬টা থেকে তাদের ধর্মঘটে অচল হয়ে আছে সারাদেশের সড়ক; বাস না পেয়ে দুর্ভোগে পড়ছে সাধারণ মানুষ। বিভিন্ন স্থানে পরিবহন শ্রমিকরা সাংবাদিক ও মোটর বাইক চালকদের হেনস্তাও করেন।



মঙ্গলবার ভোর ৬টায় শেষ হচ্ছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কর্মসূচি। তাদের পরবর্তী কর্মসূচি জানতে চাইলে ফেডারেশেনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী সোমবার সন্ধ্যায়  বলেন, “কাল আমাদের কর্মসূচি আপাতত শেষ। এরপর আবার আমরা সরকারকে নোটিস দেব। ২১ দিনের মধ্যে যদি সরকার দাবি না মানে তাহলে ৯৬ ঘণ্টার কর্মসূচি দেব।”



পূর্ব  নির্ধারিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ৩ নভেম্বর সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে নোটিস দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।



জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে সংসদ আর বসছে না বলে পরিবহন শ্রমিকদের দাবি মেনে আইন সংশোধনের সুযোগ নেই বলে ইতোমধ্যে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। 



তবে শ্রমিক নেতা ওসমান আলী মনে করেন, সরকার চাইলেই তা করতে পারে। “আইন বানাতে সংসদ লাগে না। অধ্যাদেশ জারি করে পরবর্তী পার্লামেন্টে পাস করালেই হয়। ১৯৮৩ সালে এরশাদ সাহেব অধ্যাদেশ জারি করে মোটর ভেহিকেল অ্যাক্ট সংশোধন করেছেন। রাষ্ট্রপতি যদি তিনবারের ফাঁসির আসামিকে এক স্বাক্ষরে মাফ করে দিতে পারেন, তাহলে আমরা ৭০ লাখ পরিবহন শ্রমিকের পক্ষে মহামান্য রাষ্ট্রপতি কি একটা অধ্যাদেশ জারি করে শ্রমিকদের রেহাই করে দিতে পারে না?”



পরিবহন ধর্মঘটের প্রতিবাদে সুনামগঞ্জে যাত্রী সংগঠনের মানববন্ধন শ্রমিকদের এই আন্দোল নিয়ে শুরু থেকেই নীরব পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাজাহান খান, যিনি নৌমন্ত্রীর দায়িত্বে রয়েছেন।


সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকেও তিনি ছিলেন না। নিজের ভাগ্নে মারা যাওয়ায় খবর পেয়ে সকালেই তিনি মাদারীপুর চলে যান বলে নৌমন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।



শাজহান খানের ভাগ্নে মারা যাওয়ার কথা মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমও সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।



গত ২৯ জুলাই রাজধানীতে বাসচাপায় দুই কলেজশিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর শিক্ষার্থীদের নজিরবিহীন আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে সরকার দীর্ঘদিন ধরে ঝুলিয়ে রাখা সড়ক পরিবহন আইন পাস করে।



কিন্তু ওই আইনের কয়েকটি ধারা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে সেগুলো বাতিল করার দাবি তুলেছেন পরিবহন শ্রমিকরা।



তাদের দাবিগুলো হলো- সড়ক দুর্ঘটনার সব মামলা জামিনযোগ্য করা, দুর্ঘটনায় চালকের পাঁচ লাখ টাকা জরিমানার বিধান বাতিল, চালকের শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণির পরিবর্তে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত করা, ৩০২ ধারার মামলার তদন্ত কমিটিতে শ্রমিক প্রতিনিধি রাখা, পুলিশি হয়রানি বন্ধ, ওয়ে স্কেলে জরিমানা কমানো ও শাস্তি বাতিল এবং গাড়ি নিবন্ধনের সময় শ্রমিক ফেডারেশন প্রতিনিধির প্রত্যয়ন বাধ্যতামূলক করা।



তথ্য সূত্র : বিডি নিউজ ২৪.কম


এই পাতার আরো খবর -
    আজকের পাঠকসংখ্যা
    ৩৮৩৯১৩
    পুরোন সংখ্যা