চাঁদপুর। সোমবার ২০ নভেম্বর ২০১৭। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪। ৩০ সফর ১৪৩৯
kzai
muslim-boys

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩২- সূরা সেজদাহ

৩০ আয়াত, ৪ রুকু, ‘মক্কী’

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

১১। বলুন, তোমাদের প্রাণ হরণের দায়িত্বে নিয়োজিত ফেরেশতা তোমাদের প্রাণ হরণ করবে। অতঃপর তোমরা তোমাদের পালনকর্তার কাছে প্রত্যাবর্তিত হবে।

১২। যদি আপনি দেখতেন যখন অপরাধীরা তাদের পালনকর্তার সামনে নতশির হয়ে বলবে, হে আমাদের পালনকর্তা, আমরা দেখলাম ও শ্রবণ করলাম। এখন আমাদেরকে পাঠিয়ে দিন, আমরা সৎকর্ম করব। আমরা দৃঢ়বিশ্বাসী হয়ে গেছি।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


সংসারে যে সবাইকে আপন ভাবতে পারে, তার মতো সুখী নেই।              

-গোল্ড স্মিথ।


দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত জ্ঞানচর্চায় নিজেকে উৎসর্গ করো।


ফটো গ্যালারি
সৌদি আরবে বসবাসরত অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে পুলিশের তল্লাশি
মোঃ জাহাঙ্গীর আলম হৃদয় ॥
২০ নভেম্বর, ২০১৭ ১৪:৪৪:৫৯
প্রিন্টঅ-অ+


 সৌদি আরব সরকার বেশ কয়েক দফা অবৈধ অভিবাসীদের নিজ নিজ দেশে ফিরে যেতে সুযোগ দিয়েছেন। গত ১৫ নভেম্বর ছিল তার সময় সীমা, সরকারি হিসেব অনুযায়ী অনেক অবৈধ অভিবাসী নিজ দেশে ফিরে না গিয়ে নানান ধরনের অপরাধমূলক কাজ করছেন। প্রবাসী বাংলাদেশীদেরকেও রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাসের সহায়তা নিয়ে অবৈধ অভিবাসীদের নিজ দেশে ফিরে যেতে এবং সৌদি আরব সরকারের আইনের প্রতি সম্মান রেখে চলার নির্দেশ দিলেও অনেকেই তা শুনেনি। সৌদি প্রশাসন মোবাইল  ম্যাসেজ ও স্থানীয় সৌদি মিডিয়ার মাধ্যমেও অবৈধ অভিবাসীদের নিজ দেশে ফিরে যেতে বলেছেন। পাশাপাশি বৈধ কোন প্রবাসীর বাসায় বা কর্মস্থলে বৈধ কোন অভিবাসীকে পেলে জেল, জরিমানাসহ কঠোর শাস্তির ঘোষণা দেন। তারই ধারাবাহিকতায় গত এক সপ্তাহ যাবত চলছে সৌদি প্রশাসনের তল্লাশি। সরকারিভাবে যার যার পেশা অনুযায়ী কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন অন্যথায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন।

এই দিকে প্রবাসীদের কর্মসংস্থান নিয়ে বিপাকে আছেন প্রায় ৮০ ভাগ প্রবাসী, অর্থনৈতিকভাবে হুমকির মুখে আছেন। বাসা ভাড়া, খাবার খরচ যোগাতে হিমসিম খাচ্ছেন তারা। বর্তমানে নতুন ভিসায় বাংলাদেশ থেকে দালালের মাধ্যমে শ্রমিক আসায় তারাও প্রতারিত হচ্ছেন। কর্মহীন জীবনযাপন তার উপরে ওয়ার্ক পারমিট কার্ড সময় মত না পেয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এ বিষয়ে রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কাউন্সিলর সারোয়ার আলমের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, যে সকল নতুন শ্রমিক প্রবাসে আসবেন তারা দালালের কথায় না এসে ভালভাবে খোঁজ খবর নিয়ে আসলে এমন সমস্যা হতো না। তারা দালালের মাধ্যমের ৬-৭ লাখ টাকা খরচ করে কেন আসবে ভিসার দাম তো এতো টাকা নয়। আর এসে যখন চাকুরি বা বেতন পায়না,  ওয়ার্ক পারমিট কার্ড পায়না, তখন আমাদের দুতাবাসে যোগাযোগ করেন। আসার আগে বিষয়গুলো মাথায় রাখা উচিৎ  বলে  তিনি জানান ।


আজকের পাঠকসংখ্যা
৮৪২৭২১
পুরোন সংখ্যা