চাঁদপুর, রোববার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ছেলেটির করোনা ভাইরাস নেগেটিভ পাওয়া গেছে। অর্থাৎ সে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী নয়। তথ্য সূত্র: আরএমও ডাঃ সুজাউদ্দৌলা রুবেল। || বৈদ্যনাথ সাহা ওরফে সনু সাহা করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যায় নি : সিভিল সার্জন
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৪-সূরা তাগাবুন


১৮ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


১১। আল্লাহর অনুমতি ব্যতিরেকে কোন বিপদই আপতিত হয় না এবং যে আল্লাহকে বিশ্বাস করে তিনি তাহার অন্তরকে সুপথে পরিচালিত করেন। আল্লাহ সর্ববিষয়ে সম্যক অবহিত।


 


 


 


assets/data_files/web

আমার নিজের সৃষ্টিকে আমি সবচেয়ে ভালোবাসি।


-ফার্গসান্স।


 


 


 


যে শিক্ষা গ্রহণ করে তার মৃত্যু নেই।


 


 


ফটো গ্যালারি
জেদ্দায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন
মোঃ জাহাঙ্গীর আলম হৃদয় সৌদি আরব প্রতিনিধি
২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১২:৪৮:৩০
প্রিন্টঅ-অ+

আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি। কালজয়ী এ গান সকল শহীদের কথা স্মরন করিয়ে দেয় অকপটে। তাই জন্ম জন্মান্তরে চিরস্মরনীয় এ গানের মাঝে ভাষা শহীদের আত্বহুতির প্রতিচ্ছবি ভেসে উঠে।


 


বিনম্র শ্রদ্ধা ও যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করেছে সৌদি আরবের জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল জেদ্দা। একুশের প্রথম প্রহরে জেদ্দা বাংলাদেশি অধ্যুষিত নাজলা কনস্যুলেট জেনারেল কার্যালয়ে অস্থায়ী শহীদ মিনারে কনস্যুলেট জেনারেল ফয়সাল আহাম্মেদ জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্যদিয়ে শহীদের শ্রদ্ধা জানানো শুরু হয়।


 


এরপরই বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, সাংবাদিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশি ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। ভোরের আলো ফোটার পরপরই অনুষ্ঠানে ৩০টির বেশি সংগঠনের সহস্রাধিক প্রবাসী বাংলাদেশি স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন।


 


এর আগে কনস্যুলেট কর্মকর্তাবৃন্দ একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বানী পাঠ করেন।


 


এ সময় কনসাল জেনারেল তার বক্তব্যে বাঙালি জাতির বাংলা ভাষার মর্যাদা রক্ষায় অনবদ্য অবদানের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন। তিনি ভাষা আন্দোলনে সকল শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন এবং তাদের আত্মার শান্তি কামনা করেন।


 


কনসাল জেনারেল বলেন, বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন এবং ২৫ সেপ্টেম্বর ১৯৭৪ জাতিসংঘের ২৯তম সাধারণ অধিবেশনে বাংলায় বক্তৃতা দিয়ে প্রথমবারের মতো বাংলা ভাষাকে বিশ্বদরবারে পরিচয় করিয়ে দেন।


 


তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশকে একটি সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তোলা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে দেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে।


 


পরে কনসাল জেনারেল বাংলাদেশের বাইরে বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের ইতিহাস-সংস্কৃতি পালন ও চর্চা করার জন্য উপস্থিত সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।


 


মহান ভাষা দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে সবার মতো জেদ্দা প্রবাসী সংগঠন বৃহত্তর চট্টগ্রাম সমিতি জেদ্দা শহীদদের বিনম্র শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে।


 


জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল কার্যালয়ে অস্থায়ী শহীদ মিনারে বৃহত্তর চট্টগ্রাম সমিতি জেদ্দা সৌদিআরব এর সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ সদস্যরা ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।


 


অনুষ্ঠানে জেদ্দা আওয়ামী লীগ এর ১১ সংগঠন,  যুবলীগ, ছাত্রলীগ, সেচ্ছাসেবক লীগ, ববঙ্গবন্ধু পরিষদ, কৃষক লীগ, শ্রমিক লীগ, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পরিষদ, আওয়ামী ফাউন্ডেশন, তাইফ জেলা আওয়ামীলীগ, বৃহত্তর ফরিদপুর সমিতি, নোয়াখালীর সমিতি সহ ৩০টি সংগঠন অস্থায়ী শহীদ বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়।

আজকের পাঠকসংখ্যা
১৯৯৫৪৯
পুরোন সংখ্যা