চাঁদপুর। রোববার ০৯ জুলাই ২০১৭। ২৫ আষাঢ় ১৪২৪। ১৪ শাওয়াল ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৮-সূরা কাসাস 


৮৮ আয়াত, ৯ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৭৮। সে বলিল, ‘এই সম্পদ আমি আমার জ্ঞানবলে প্রাপ্ত হইয়াছি।’  সে কি জানিত না আল্লাহ্ তাহার পূর্বে ধ্বংস করিয়াছেন বহু মানবগোষ্ঠীকে যাহারা তাহা অপেক্ষা শক্তিতে ছিল প্রবল, জনসংখ্যায় ছিল অধিক? অপরাধীদিগকে উহাদের অপরাধ সম্পর্কে প্রশ্ন করা হইবে না।


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 

সংসার আনন্দময় পরিবেশ ভালো কিছু করার প্রেরণা যোগায়।             -জন মেসাভ-।


স্বভাবে নম্রতা অর্জন কর।  


ফটো গ্যালারি
স্প্রেড শীট ও মাইক্রোসফ্ট এক্সেল প্রোগ্রাম
আসিফ ইসলাম
০৯ জুলাই, ২০১৭ ০২:৫০:২৭
প্রিন্টঅ-অ+


মাইক্রোসফট এক্সেল : মাইক্রোসফট এক্সেল যুক্তরাষ্ট্রের কর্পোরেশন কর্তৃক বাজারজাতকৃত একটি স্প্রেডশীট প্যাকেজ প্রোগ্রাম। মাইক্রোসফট এক্সেল ওয়ার্কশীটে সাধারণত ২৫৬টি  কলাম, ৬৫৫৩৬টি সারি এবং ৪০ লক্ষাধিক সেল বা ঘর থাকে। সংখ্যার হিসাব নিকাশ সম্পর্কিত বিভিন্ন কাজে যেমন, রেজাল্ট শীট, তৈরি, সেলারী শীট, তৈরিতে মাইক্রোসফট এক্সেল প্রোগ্রামে ব্যবহার জনপ্রিয়। এক্সেল প্রোগ্রামের মাধ্যমে তথ্যকে আকর্ষণীয় করে উপস্থাপনের জন্য বিভিন্ন ধরণের চার্ট বা গ্রাফ তৈরি করে সেগুলোকে এক্সেল ওয়ার্কশীট বা অন্য কোন প্রোগ্রামে ব্যবহার করা যায়।

স্প্রেডশীট, ওয়ার্কবুক ও ওয়ার্কশীট

হিসাব নিকাশ ও অন্যান্য কাজের জন্য ব্যবহৃত সারি এবং স্তুম্ভের সমন্বয়ে বিন্যস্ত প্রোগ্রামটিকে স্প্রেডশীট বলা হয়। স্প্রেডশীট  প্রোগ্রামের সাহায্যে একসঙ্গে যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ, শতকরা, গড়, সুদ ইত্যাদি হিসাবের কাজ দ্রুত এবং নির্ভুলভাবে করা যায়। মাইক্রোসফট এক্সেলে বা স্প্রেডশীট প্রোগ্রামে কাজ করার জন্য একটি ওয়ার্কবুক ওপেন করতে হয়।  একটি ওয়ার্কবুকে প্রয়োজনীয় ওয়ার্কশীট নিয়ে কাজ করা হয়। একটি বৃহৎ স্প্রেডশীটের এক একটি পাতাকে একটি ওয়ার্কশীট বলা হয়। একটি এক্সেল ওয়ার্কশীটের প্রধান অংশগুলো হলো: ওয়ার্কশীট উইন্ডো, সেল, সারি, কলাম, সক্রিয় ঘর নির্দেশক, এ্যড্রেসবার ইত্যাদি। নি¤েœ এগুলোর বর্ণনা দেয়া হলো।

ওয়ার্কশীট উইন্ডো : এক্সেল পর্দায় অসংখ্য আয়তাকার ঘরবিশিষ্ট অংশটিই হচ্ছে ওয়ার্কশীটের ওয়ার্কশীট উইন্ডো

ঘর : ওয়ার্কশীটের প্রতিটি আয়তকার অংশই একটি করে ঘর (ঈবষষ) হিসেবে পরিচিত। একটি ওয়ার্কশীটে এরূপ ৪০ লক্ষাধিক ঘর থাকে।

সারি : ওয়ার্কশীটের বাম দিক থেকে ডান দিকে পাশাপাশি বিস্তৃত ঘরসমূহের এক একটি সারি বলা হয়। প্রত্যেক সারিকে ইংরেজি সংখ্যা ১, ২, ৩ ইত্যাদি সংখ্যা দিয়ে চিহ্নিত করা হয়।  যেমন ১নং সারি, ২নং সারি, ৩নং সারি ইত্যাদি। এরূপ ৬৫,৫৩৬টি সারি আছে।

কলাম : কলাম হচ্ছে উপর থেকে নিচের দিকে চলে আসা ঘরের সমষ্টি। প্রত্যেকটি  কলামকে একটি করে ইংরেজি বর্ণ দিয়ে চিহ্নিত করা হয়। যেমন অ কলাম,  ই কলাম,  ঈ কলাম ইত্যাদি। প্রত্যেকটি ওয়ার্কশীট ২৫৬ টি কলাম থাকে।

ঘরের অবস্থান (ঈবষষ  অফফৎবংং) : কলাম এবং সারির সংযোগ স্থলে অবস্থিত ঘরটিকে ঐ ঘরের অবস্থান হিসেবে উল্লেখ করা হয়। যেমন ঈ কলামে ২ নম্বর সারির সংযোগ স্থানে অবস্থিত ঘরটিকে ঈ২ উ কলামে ৫ সারির সংযোগ স্থানে অবস্থিত ঘরটিকে উ৫ বলা হয় ইত্যাদি। এরূপ চল্লিশ লক্ষাধিক ঘর আছে।

সক্রিয় ঘর : লেখার উপযুক্ত ঘরকে সক্রিয় বলা হয়। কোন ঘরে মাউস পয়েন্টের দিয়ে ক্লিক করলে ঐ ঘরটি সক্রিয় হয়।

সক্রিয় ঘর নির্দেশক : ওয়ার্কশীটের সক্রিয় ঘরটির পরিচয় বা অবস্থান পদর্শনকারী ঘরকে সক্রিয় ঘর নির্দেশক বলা হয়।

ফর্মুলাবার : সক্রিয় ঘরের বিষয়বস্তু প্রদর্শনকারী অনুভূমিক লম্বা বারকে ফুর্মুলাবার বলা হয়।

ওয়ার্কশীটে উপাত্ত প্রবেশ করানো ও নতুন ওয়ার্কশীট সংযোজন : ওয়ার্কশীটের কোন সেলে লিখতে হলে প্রথমে মাউস ক্লিক করে তা সক্রিয় করে নিতে হয়। অতপর কীবোর্ডের কী চেপে টেক্সট উপাত্ত লিখে এন্টার  কী চেপে তা কার্যকরী করা হয়। হিসাবের সুবিধার জন্য ওয়ার্কশীট ডেটাগুলো সারি ও কলাম আকারে লিখতে হয়। সাধারণত এক জাতীয় ডেটা একই কলাম বা সারি বরাবার রাখা হয় এবং ডেটার নাম কিংবা ধরণ নির্দেশ করার জন্য উপরে বা বামে লেবেল লেখা হয়।  

ওয়ার্কশীট সংযোজন :  ওহংবৎঃ গবহঁ  তে ঈষরপশ করুন / ডড়ৎশংযববঃ  -এ পষরপশ করুন।

স্প্রেডশীট প্রোগ্রামের বৈশিষ্ট্য ও ব্যবহার : কোন একটি সংখ্যা পরিবর্তন করলে ঐ সংখ্যার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত হিসাব আপনা-আপনিই পরিবর্তিত হয়ে নতুন ভাবে বিন্যস্ত হয়ে যায়। দ্রুত নির্ভুলভাবে হিসাব-নিকাশের গুরুত্বপূর্ণ কাজ করা যায়। স্প্রেডশীট প্রোগ্রামের সাহায্যে সারি এবং কলাম ব্যবহার করে নানা ধরণের হিসাবের কাজ করা যায়। উপাত্ত ব্যবস্থাপনার পাশাপাশি এ ধরণের প্রোগ্রাম দিয়ে লেখাচিত্র তৈরি করা যায়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষার ফলাফল তৈরি করা যায়।আয়কর এবং অন্যান্য হিসাবের কাজ এ প্রোগ্রামের ব্যবহৃত হয়।

ওয়ার্কশীট ফাইল সংরক্ষণ : একটি ওয়ার্কশী্েট ফাইল আকারে সংরক্ষণের জন্য ঈঃৎষ+ঝ কী চাপুন কিংবা ঋরষব মেনু থেকে ঝধাব কিংবা ঝধাব ধং সাবমেনু নির্বাচন করুন। প্রাপ্ত ঝধাব ধং ডায়ালগ উইন্ডোর ঝধাব সহ টেক্স বক্স থেকে ড্রাইভ ও ফোল্ডার নির্বাচনপূর্বক ঋরষব হধসব টেক্সট বক্সে ফাইলের উপযুক্ত নাম (ডড়ৎশ ঝযববঃ) লিখে ঝধাব বাটনে ক্লিক করুন। ফলে ওয়ার্কশীটটি ড ংযববঃ !.ীষং নামে সংরক্ষিত হয়।

ফোল্ডার হতে সংরক্ষিত ওয়ার্কশীট ওপেন করা  : সংরক্ষিত ওয়ার্কশীট ফাইল বা ওয়ার্কবুক ওপেন করার জন্য ঋরষব মেনু  থেকে ঙঢ়বহ সাবমেনু নির্বাচন করুন কিংবা ঈঃৎষ+ঙ কী চাপুন। অতপর প্রাপ্ত  ঙঢ়বহ ডায়ালগ উইন্ডোর খড়ড়শ রহ টেকস্ট বক্সের ডান পাশের বাটকে ক্লিক করে সেখান থেকে কাঙ্খিত ফাইল নির্বাচন করে ঙঢ়বহ বাটনে ক্লিক করুন। ফলে ওয়ার্কশীট ওপেন হবে।

ওয়ার্কশীটে সারি ও কলাম সংযোজন করা : একটি ওয়ার্কশীটে ২৫৬টি কলাম এবং ৬৫৫৩৬টি সারি আছে। সুতরাং ওয়ার্কশীট সাধারণ কার্যাবলীর জন্য সারি বা কলামজনিত কোন সমস্যা হয় না। তবে অনেক সময় ওয়ার্কশীটে দুটি পুরাতন সারি বা কলামের মাঝে এক বা একাধিক নতুন সারি বা কলাম সংযোজন হয় । যেমন মনে করুন পূর্ববর্তী পরীক্ষণে আলোচিত ওয়ার্কশীটের তৃতীয় এবং চতুর্থ সারির মাঝে ঝপধহহবৎ আইটেম বিশিষ্ট একটি নতুন সারি এবং প্রথম ও দ্বিতীয় কলামের মাঝে একটি নতুন কলাম সংযোজন করতে হবে। এজন্য ধারাবাহিকভাবে নিচে বর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

তৃতীয় ও চতুর্থ সারির মাঝে নতুন সারি সংযোজন : ওয়ার্কশীটের চতুর্থ সারির যে কোন সেল যেমন : অ৪, ই৪, ঈ৪  উ৪ সেলে সেলপয়েন্টের বা কার্সর আনয়ন করুন। ওহংবৎঃ মেনু থেকে  জড়ি সাবমেনু নির্বাচন করলে তৃতীয় সারির পরে চতুর্থ স্থানে একটি ফাঁকা নতুন সারি সংযোজিত হবে।  ওয়ার্কশীটের অ৪, ই৪, ঈ৪ সেলে যথাক্রমে ঝপধহহবৎ, ৪০০০ ১ টাইপ করুন। ওয়ার্কশীটের উ৪ সেলে = ই২*ঈ২ লিখে এন্টার কী চাপুন।

প্রথম ও দ্বিতীয় কলামের মাঝে নতুন একটি কলাম সংযোজন : দ্বিতীয় কলামের যে কোন সেলের উপর সেলপয়েন্টের বা কার্সর রাখুন। ইনসার্ট মেনু থেকে কলাম সাবমেনু নির্বাচন করলে প্রথম ও দ্বিতীয় কলামের মাঝে নতুন খালি কলাম সংযোজিত হবে।

ওয়ার্কশীটে শিরোনামে সংযোজন করা : ওয়ার্কশীটের আইটেম তালিকায় উপরে নি¤œরূপে একটি শিরোনাম লিখতে হবে। এজন্য নিচে বর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

ওয়ার্কশীটের অ১ সেলে সেলপয়েন্টার রেখে ওহংবৎঃ মেনু থেকে পরপর দুটো জড়ি সংযোজন করুন।  এবার অ১ থেকে ঊ১ সেল পর্যন্ত সিলেক্ট করে ঋড়ৎসধঃ মেনু থেকে ঈবষষং সাবমেনুতে ক্লিক করুন। এবার ঋড়ৎসধঃ ঈবষষং ডায়ালগ উইন্ডোর ট্যাব থেকে গবৎমব ঈবষষং টেক্স সিলেক্ট করে ঙশ বাটনে ক্লিক করুন। এমতাবস্থায় অ১ থেকে  ঊ১ সেলে পর্যন্ত সেলগুলো একটি বড় সেলে রূপান্তরিত হবে। ফলে এতে বড় আকারের টাইটেল লেখা যাবে।

ওয়ার্কশীটে হেডার ফুটার সংযোজন করা :  কোন স্প্রেডশীটের প্রত্যেক শীটের হেডার/ফুটার পেজ নাম্বার বা অন্য কোন টেক্সট সংযোজন করার জন্য ঠরবি মেনু থেকে ঐবধফবৎ ধহফ ঋড়ড়ঃবৎ সাবমেনুতে ক্লিক করুন। চধমব ংবঃঁঢ় ডায়ালগ উইন্ডো প্রদর্শিত হলে এর ঐবধফবৎ ধহফ ঋড়ড়ঃবৎ ট্যাবে ক্লিক করে উইন্ডোর নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় হেডার ও ফুটার সংযোজন করুন। পরিশেষে ঙশ বাটন চাপলে প্রদত্ত হেডার ফুটার কার্যকরি হবে।  

লেখক : কর্ণধার, মাই কম্পিউটার। ইনফর মেশন এক্সেস সেন্টার, চাঁদপুর।


আজকের পাঠকসংখ্যা
২৬২৪৮৯
পুরোন সংখ্যা