চাঁদপুর। শনিবার ১৫ জুলাই ২০১৭। ৩১ আষাঢ় ১৪২৪। ২০ শাওয়াল ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • শুক্রবার সকালে হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক || হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৮-সূরা কাসাস 


৮৮ আয়াত, ৯ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৮৪। যে কেহ সৎকর্ম লইয়া উপস্থিত হয় তাহার জন্য রহিয়াছে উহা অপেক্ষা উত্তম ফল, আর যে মন্দকর্ম লইয়া উপস্থিত হয় তবে যাহারা মন্দকর্ম করে তাহাদিগকে তাহারা যাহা করিয়াছে উহারই শাস্তি দেওয়া হইবে।     


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


হতাশা এবং অবিশ্বাস উভয়েই ভীতি দূর করে।


                 -উইলিয়াম আলেকজান্ডার।

মায়ের পদতলে সন্তানদের বেহেশত। 


ফটো গ্যালারি
রম্য সাক্ষাৎকার
পাগল সবকিছু করলেও ছাগল কিন্তু সবকিছু খায় না
ছাগল নেতা নংসংপা
১৫ জুলাই, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

ছাগল খুব পরিচিত একটি প্রাণি। এ টি নিরীহ ও অবোধ বটে। মানুষ রেগে গেলে বলে, ছাগল একটা। কখনো বলে, পাগলে কি না কয়, ছাগলে কিনা খায়। আবার অন্যের গাছের কাঁঠাল পাতা চুরি করে খাওয়ার অসংখ্য অভিযোগও রয়েছে ছাগল প্রজাতির বিরুদ্ধে। পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ছাগল মানুষের জন্যে ভীষণ উপকারী। সম্প্রতি এমন সব বিষয়ে ছাগল নেতা নংসংপা-এর সাথে কথা বলেছেন ছাগলভাষা বিশেষজ্ঞ ঝন্টু মিয়া।

ঝন্টু মিয়া : শুরুতেই আপনার কাছে জানতে চাই...

ছাগল নেতা : না না, সাক্ষাৎকার নেয়ার শুরুতেই আমার একটা প্রশ্ন আছে আপনার কাছে।

ঝন্টু মিয়া : আচ্ছা বলুন আপনার প্রশ্ন।

ছাগল নেতা : আমি সাক্ষাৎকার দেবো, তবে সেটা কোথাও প্রকাশ করা যাবে না। প্রকাশ করতে হলে অবশ্যই ডিএসএলআর ক্যামেরায় তোলা আমার ছবি সাথে দিতে হবে।

ঝন্টু মিয়া : আচ্ছা। তাহলে শুরু করি।

ছাগল নেতা : শুরু কী করবেন? শুরু তো হয়েই গেছে। বলেন কি জানতে চান।

ঝন্টু মিয়া : মানুষ মানুষকে গালি দেয় 'তুই একটা ছাগল' বলে। এটা কেন?

ছাগল নেতা : এটা আমারও খুব অবাক লাগে। গালি দিতে হলে আমাদের প্রজাতিকে ব্যবহার করতে হবে কেন? আপনিই বলেন আমরা কি খুব খারাপ কোনো প্রাণি? যখন কেউ এসব কথা বলে তখন দিলে খুব চোট পাই। এমন রাগ উঠে, মনে হয় কাঁঠাল পাতার মতো চাবাইয়া তাগোরে খাইয়া ফেলি!

ঝন্টু মিয়া : কাঁঠাল পাতার প্রসঙ্গ উঠছে বলেই বলি, ছাগল প্রজাতি নাকি চোর প্রজাতি। বিশেষত কাঁঠাল পাতা চুরি করে খাওয়া তাদের জাতীয় অভ্যেস?

ছাগল নেতা : কাঁঠাল পাতা, মানে...ইয়ে... খাই। কিন্তু আমাদের তো মুখে ভাষা নাই। নতুবা চুরি না কইরা চাইয়া খাইতাম। কিন্তু মানুষরা কি ভালা? পৃথিবীর হাজার হাজার প্রাণীদের মধ্যে সবচেয়ে বড় চোরের জাতি হচ্ছে মানুষের জাতি। হেন কোনো চুরি নাই মানুষ করে না। এমন কি তারা ছাগল প্রজাতিও চুরি করে!

ঝন্টু মিয়া : ছাগল চুরি করে?

ছাগল নেতা : অবশ্যই করে। সেদিন হইলো কি, মনু মিয়ার বাড়ি থেকে আমার গার্লফ্রেন্ডরে দুষ্ট পোলাপাইন চুরি কইরা নিয়া গেলো। তারপর তারা তারে কাইটা কাইটা... কান্না...

ঝন্টু মিয়া : আপনি কাঁদছেন?

ছাগল নেতা : ওই মিয়া, আমরা ছাগল বলে কি আমাদের আবেগ নাই? জানেন মিয়া, আমরা কি কান্নার অভিনয় করি নাকি? মানুষ তো অভিনয় করে। ছাগল প্রজাতি কখনো অভিনয় করে না।

ঝন্টু মিয়া : আমরা বলি, পাগলে কিনা কয়, ছাগলে কিনা খায়। কথাটা কতটুকু সত্য?

ছাগল নেতা : রাখেন মিয়া সত্য। আপনারা জীবনের বেশির ভাগ কথাই মিথ্যা কন। পাগল সবকিছু বললেও ছাগল কিন্তু সবকিছু খায় না। আপনি কন, ছাগল কখনো মদ খাইছে? গাজা খাইছে? কাউরে ধর্ষণ করছে? মারামারি করছে? খুন করছে? অপহরণ করছে? নাকি গুম করছে কাউরে? এসব আপনাগো কাজ। আমরা এতে নাই।

ঝন্টু মিয়া : শেষ প্রশ্ন। আপনি ছাগল প্রজাতিরে নিয়া কী স্বপ্ন দেখেন?

ছাগল নেতা : অনেক অনেক স্বপ্ন দেখি। দেখি পৃথিবীতে হাজার হাজার কোটি কোটি কাঁঠাল গাছ আছে। কেবল কাঁঠাল পাতা আর পাতা। স্বপ্ন দেখি আমাদের ফেসবুক ফলোয়ার হবে হাজার হাজার। আর স্বপ্ন দেখি, মনুষ্যবিহীন পৃথিবী...

(এসব কথা বলতে বলতেই ছাগল নেতা নংসংপা ভ্যা ভ্যা ভ্যা করতে চলে গেলেন)

আজকের পাঠকসংখ্যা
১১১১৮৭
পুরোন সংখ্যা