চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৮-সূরা নাবা'


৪০ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৩৩। সমবয়স্কা উদ্ভিন্ন যৌবনা তরুণী।


৩৪। এবং পূর্ণ পানপাত্র।


৩৫। সেথায় তাহারা শুনিবে না অসার ও মিথ্যা বাক্য;


৩৬। ইহা পুরস্কার, যথোচিত দান তোমার প্রতিপালকের,


 


assets/data_files/web

সংসারে কারো ওপর ভরসা করো না, নিজের হাত এবং পায়ের ওপর ভরসা করতে শেখো।


-শেক্সপিয়ার।


 


 


 


নম্রতায় মানুষের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায় আর কড়া মেজাজ হলো আয়াসের বস্তু অর্থাৎ বড় দূষণীয়।


 


 


ফটো গ্যালারি
ইলিশ উৎসবের যুগপূর্তি : এক বিরল রেকর্ড
কাজী শাহাদাত
০১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুরের সংস্কৃতি অঙ্গনে ইলিশ উৎসব একটি বহুল পরিচিত, জনসমাদৃত ও আলোচিত উৎসবের নাম। ২০০৯ সালে এমন একটি উৎসব করার বিষয় মাথায় আসে চাঁদপুর জেলা শহরের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক সংগঠন চতুরঙ্গের মহাসচিব হারুন আল রশীদের। তিনি তাঁর সংগঠনের কর্ণধার অ্যাভোকেট বিনয় ভূষণ মজুমদারসহ অন্য সকল কর্মকর্তা, বিশেষ করে উপদেষ্টাদের সাথে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন এবং এ উৎসব নিয়ে অগ্রবর্তী হবার পরামর্শ দেন। এতেই হারুন আল রশীদ উদ্দীপ্ত হন এবং স্বীয় সাংগঠনিক দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার আলোকে ২০০৯ সালেই প্রথম ইলিশ উৎসব আয়োজনের আয়াসসাধ্য উদ্যোগ গ্রহণ করেন। শুরু হলো উৎসবের যাত্রা। দেশের খ্যাতিমান কর্পোরেট সংস্থা ও স্থানীয় পর্যায়ে সুপ্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানের স্পন্সর জোগাড় করে এবং সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষকতা গ্রহণ করে হারুন আল রশীদ ধারাবাহিকতা রক্ষা করে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ১১টি ইলিশ উৎসবের আয়োজন অত্যন্ত সাফল্যের সাথে সম্পন্ন করেন। আর মুখিয়ে থাকেন উৎসবের যুগপূর্তি অর্থাৎ ১২তম আসর আয়োজনের জন্যে। কিন্তু গত ৮মার্চ থেকে দেশে বৈশি্বক মহামারী করোনার প্রাদুর্ভাব এমন আসর আয়োজনে চরম চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয়। যেটা নিঃসন্দেহে তৈরি করে দুর্ভাবনা।



আগস্টের শুরুতে কিংবা তার পূর্বে একদিন হারুন আল রশীদ আমার সাথে ইলিশ উৎসবের যুগপূর্তি আয়োজন নিয়ে কথা বললেন। আমি করোনাকালে এমন আয়োজনের সম্ভাব্যতা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করলে তিনি ভার্চুয়ালি হলেও আয়োজন করার বিষয়ে দৃঢ়চিত্ততা প্রদর্শন করেন। তিনি বলেন, আমার ইচলীর বাড়িতে কিছু খালি কক্ষ আছে, যেখানে ভার্চুয়ালি আয়োজন সম্ভব। ২-১ দিনের মাথায় জানালেন, আমি জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তন ১ থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত বুকিং দিয়ে ফেলেছি। করোনা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলে এই মিলনায়তনেই ইলিশ উৎসবের যুগপূর্তির রেকর্ডটি করতে চাই। আপনারা সাহস দিয়ে পাশে থাকলেই হবে। আমি তাঁকে বললাম, সাহস দিতে পারি, তবে ঝুঁকিটা নিতে হবে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই। হারুন আল রশীদ তাতে সম্মত হয়ে বিরল রেকর্ড গড়ায় মনোনিবেশ করলেন।



আজ ১ অক্টোবর ২০২০ বৃহস্পতিবার চাঁদপুরে চতুরঙ্গ কর্তৃক ইলিশ উৎসব আয়োজনের ১২ বছর পূর্তি তথা যুগপূর্তির রেকর্ডটি অর্জিত হতে যাচ্ছে। এজন্যে আমরা সংশ্লিষ্ট সকলে সত্যিই কৃতার্থ। ভালোয় ভালোয় ৩ অক্টোবর ইলিশ উৎসবটি সম্পন্ন করতে পারলে চতুরঙ্গ শুধু নয়, চাঁদপুরের সংস্কৃতি অঙ্গন অতিক্রম করবে এমন এক মাইল ফলক, যা অন্য কোনো উদ্যোক্তার অতিক্রমণ হবে সুদূর পরাহত।



আমার আত্মশ্লাঘা ইলিশ উৎসবকে ঘিরে এটাই যে, আমি পুরো এক যুগ অর্থাৎ ১২ বছর ধরে উৎসবটির আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করছি। উৎসবের সাথে সংশ্লিষ্ট এর রূপকার হারুন আল রশীদসহ অন্যদের অহংবোধের জায়গা হলো, এই উৎসবে ২০১৬ সালে যোগদান করেই তৎকালীন জেলা প্রশাসক মোঃ আবদুস সবুর মন্ডল চাঁদপুর জেলাকে ইলিশের নামে ব্র্যান্ডিং করার পরিকল্পনা মাথায় আনেন। সেমতে চাঁদপুরের সরকার স্বীকৃত নাম হয়ে যায় বাংলায় 'ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর' আর ইংরেজিতে 'চাঁদপুর দি সিটি অব হিলশা'।



যে কোনো কষ্টকর আয়োজন এবং এর পেছনে নিরলস আত্মনিবেদন যে কোনো না কোনো ভালো ফল বয়ে আনে সেটা চাঁদপুরকে ইলিশের নামে ব্র্যান্ডিংয়ের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে।



ইলিশ উৎসবের জন্মলগ্ন থেকে আমাদের একটি দাবি হচ্ছে এই যে, জাতীয় মাছ ইলিশের নামে জাতীয় পর্যায়ের ইলিশ উৎসবের আয়োজন করা হোক চাঁদপুরে। আমরা বেসরকারিভাবে যে আয়োজন শুরু করলাম, এটা সরকারিভাবে জাতীয় পর্যায়ের মান নিয়ে প্রতি বছর আয়োজিত হতে থাকলে রপ্তানিযোগ্য ইলিশ সম্পদ রক্ষায় ব্যাপক জনসচেতনতা সৃষ্টি হবে এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ইলিশ উৎসব আয়োজনের তাগিদ তৈরি হবে। আমাদের দাবির প্রতি সহমত পোষণ করে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে পত্র লিখেছেন চাঁদপুরের দুজন জেলা প্রশাসক। এঁদের একজন প্রিয়তোষ সাহা, অপরজন ইসমাইল হোসেন। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস, চাঁদপুর সদরের পরপর তিনবার নির্বাচিত এমপি, সাবেক সফল পররাষ্টমন্ত্রী, বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি মহোদয় উদ্যোগ নিলে জাতীয় পর্যায়ের ইলিশ উৎসব চাঁদপুরে করা সম্ভব। আমাদের এ বিশ্বাসের অনুকূলে অবশ্যই সাড়া মিলবে বলে আমরা বিপুলভাবে আশাবাদী।



সশীরের কিংবা ভার্চুয়ালি ডাঃ দীপু মনি ইলিশ উৎসবের যুগপূর্তির উদ্বোধন ঘোষণা করতে সদয় সম্মতি দেয়ায় সত্যিই আমরা ভাগ্যবান। আমরা তাঁর প্রতি অপরিসীম কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।



ইলিশ উৎসবের যুগপূর্তির মাহেন্দ্রক্ষণে আমরা সংস্কৃতিমনস্ক সমগ্র চাঁদপুরবাসী এবং সব ধরনের পৃষ্ঠপোষক ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রতিও আমাদের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে চাই।



সবাই নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিরাপদ থাকুন, সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেজ।



 



লেখক : প্রধান সম্পাদক, দৈনিক চাঁদপুর কন্ঠ ; মহাপরিচালক সহিত্য একাডেমী, চাঁদপুর; সাবেক সভাপতি, চাঁদপু প্রেসক্লাব ও সনাক, টিআইবি, চাঁদপুর।



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৮৭,২৯৫ ৩,৯৬,৩৮,১৮৮
সুস্থ ৩,০২,২৯৮ ২,৯৬,৭৮,৪৪৬
মৃত্যু ৫,৬৪৬ ১১,০৯,৮৩৮
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৪৪৪৭১
পুরোন সংখ্যা