চাঁদপুর। মঙ্গলবার ১৪ মার্চ ২০১৭। ৩০ ফাল্গুন ১৪২৩। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • শুক্রবার সকালে হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক || হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৭-সূরা নাম্ল 


৯৩ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৪৭। উহারা বলিল, ‘তোমাকে ও তোমার সঙ্গে যাহারা আছে তাহাদিগকে আমরা অমংগলের কারণ মনে করি।’ সালিহ বলিল, ‘তোমাদের শুভাশুভ আল্লাহর ইখতিয়ারে, বস্তুত তোমরা এমন এক সম্প্রদায় যাহাদিগকে পরীক্ষা করা হইতেছে।’।


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


প্রীতি দিয়ে পাওয়া যায় আপন লোককে, পরকে পাওয়া যায় ভয় জাগিয়ে রেখে।  


                     -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর/মুক্তধারা।

যাহারা গচ্চিত ধন রক্ষা করে, কথামতো কার্য করে এবং প্রতিশ্রুতি পালন করে, তারাই মুসলমান। 


ফটো গ্যালারি
সজীব হোসেন মুন ভালো খেলোয়াড় হতে চায়
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম
১৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


জন্মস্থান বাংলাদেশে হলেও বর্তমানে বসবাস করেন কাতারে। বাবা ও মায়ের বাড়ি চাঁদপুরে। পড়াশোনা করছেন কাতারের শান্তি নিকেতনের ২য় শ্রেণীতে। তার ইচ্ছা ভালো একজন খেলোয়াড় হওয়ার। দেশে এসে বাবাকে নিয়ে ছুটে যান চাঁদপুর স্টেডিয়ামে। সেখানে চাঁদপুর কিশোর ফুটবল একাডেমীর খেলোয়াড়দের সাথে কয়েকদিন ধরে অনুশীলন করছেন। তার পুরো নাম মোঃ সজীব হোসেন মুন। বাবার নাম মোঃ মনির হোসেন। মায়ের নাম মুক্তা আক্তার। দুই ভাইয়ের মধ্যে সে সবার বড়। চাঁদপুর স্টেডিয়ামে কিশোর ফুটবল দলের খেলোয়াড়দের সাথে অনুশীলনের ফাঁকে দেখা করেন পুলিশ সুপারের সাথে। তার ইচ্ছা ফুটবল খেলার। ক্রীড়াকণ্ঠের পক্ষ থেকে তার সাথে আলাপকালে মুন জানায় আমি বিদেশে থাকি। আমার বাবা-মার সাথে। কিন্তু আমি সবসময়ই বাংলাদেশের ক্রিকেট ও ফুটবল খেলা দেখি। আমার ইচ্ছা আছে ভালো একজন খেলোয়াড় হওয়ার। মাঠে এসে সবার সাথে খেলাধুলা করতে আামার ভালো লাগে। আমি যখনই চাঁদপুরে আসি ছুটে আসি স্টেডিয়ামে সকলের সাথে খেলাধুলা করার জন্য। আমি যেনো বিদেশে থাকলেও দেশের মানুষের ভালোবাসা ও দোয়া নিয়ে ভালো কিছু করতে পারি এ জন্য সকলের দোয়া চাই।



মুনের বাবা কাতার প্রবাসী মোঃ মনির হোসেনের সাথে আলাপকালে তিনি জানান, খেলাধুলায় থাকলে সকলেরই মন ভালো থাকে। আমার ছেলে খেলার প্রতি অনেক আগ্রহ রয়েছে। আমি অবসর পেলেই তাকে খেলাধুলা করার জন্য মাঠে নিয়ে আসি। মুনের মা তার ছেলেকে খেলাধুলার ব্যাপারে অনেক উৎসাহ প্রদান করেন।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৩২২৩৮
পুরোন সংখ্যা