চাঁদপুর। মঙ্গলবার ১১ এপ্রিল ২০১৭। ২৮ চৈত্র ১৪২৩। ১৩ রজব ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • শুক্রবার সকালে হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক || হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৯-সূরা আনকাবূত


৬৯ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৬৭। উহারা কি দেখে না আমি হারামকে নিরাপদ স্থান করিয়াছি, অথচ ইহার চতুষ্পার্শে যেসব মানুষ আছে, তাহাদের উপর হামলা করা হয়, তবে কি উহারা অসত্যেই বিশ্বাস করিবে এবং আল্লাহ্র অনুগ্রহ অস্বীকার করিবে?


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 

একজন বিজ্ঞ বন্ধুই হল জীবনের সবচেয়ে বড় আশীর্বাদ।                      -ইউরিপাইডস।



২৭-সূরা নাম্ল 


৯৩ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৮৩। স্মরণ কর সেই দিনের কথা, যেই দিন আমি সমবেত করিব প্রত্যেক সম্প্রদায় হইতে এক-একটি দলকে, যাহারা আমার নিদর্শনাবলী প্রত্যাখ্যান করিত আর উহাদিগকে সারিবদ্ধ করা হইবে।। 


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন

ফটো গ্যালারি
পাইওনিয়ার ফুটবল লীগে অংশ নিচ্ছে চাঁদপুর কিশোর ফুটবল একাডেমী
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম
১১ এপ্রিল, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


পাইওনিয়ার ফুটবল লীগে (অনূর্ধ্ব-১৬) প্রথমবারের মতো অংশ নিচ্ছে চাঁদপুর কিশোর ফুটবল একাডেমী । এ মাসের ১৬ এপ্রিল থেকে শুরু হতে পারে এ ফুটবল লীগ। লীগে অংশ নিচ্ছে সারা বাংলাদেশ থেকে প্রায় ৭৩টি ক্লাব। প্রথম পর্বের খেলাগুলো হবে ঢাকা আউটার স্টেডিয়াম, কমলাপুর ও বাড্ডা এলাকায়। এ লীগে যারা কোয়ার্টার, সেমি ও ফাইনালে উঠবে তারা সুযোগ পাবে ঢাকা বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে খেলার। চাঁদপুর থেকে ক্রিকেটের পর এই বারই উঠতি বয়সী কিশোর ফুটবলারদের নিয়ে ঢাকায় যাত্রা শুরু করলো ক্লাবটি। এ ক্লাবটিতে যারা বর্তমানে অনুশীলন করছেন তাদের অধিকাংশই বিভিন্ন স্কুলে পড়াশোনা করছেন। ইতিমধ্যে অংশ নেয়া খেলোয়াড়দের ডাক্তারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ক্লাবের পক্ষ থেকে প্রায় ২৬ জন ফুটবলার ডাক্তারি পরীক্ষায় অংশ নিলে কর্তৃপক্ষ ঢাকার ডাক্তারদের পরামর্শে ২৪ জন খেলোয়াড়কে বাছাই করে। বাছাই কার্যক্রমে উত্তীর্ণ হওয়া চাঁদপুর কিশোর একাডেমীর ফুটবলাররা হলেন : আরিফ মোল্লা, শাহাদাত হোসেন, সাগর, মোঃ রাশেদ, সায়েম, মোঃ হাসান, আব্দুল্লা আল হিসাম, আমির হামজা, সাকিব (১), নাবিল হাসান, জুবায়ের, জিহাদ, রিংকু, রাহুল গাজী, রাজন, আশিক, সিয়াম (২), সাকিব (২), মোঃ সজীব, সিয়াম বকাউল, শামিম হোসেন, ইমাম হোসেন রিয়াদ, সবুজ ও রমজান।



চাঁদপুর কিশোর ফুটবল একাডেমীর সভাপতি ও ক্রীড়া সংগঠক নূর হোসেন নূরু জানান, আমাদের এ একাডেমিটি প্রায় ৪ বছর আগে থেকে এর কার্যক্রম শুরু করি। কিন্তু চাঁদপুরের বর্তমান পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার আসার পর এ ক্লাবটির প্রতিষ্ঠার পরিপূর্ণতা লাভ করে। চাঁদপুর জেলা পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম-এর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আমরা বর্তমানে একাডেমীর বিভিন্ন কার্যক্রম করে যাচ্ছি। আমাদের একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে রয়েছেন জাতীয় পুলিশ প্যারেডে অংশ নেয়া প্রথম নারী পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম। তিনি শত ব্যস্ততার মাঝেও সময় পেলেই এ ক্ষুদে ফুটবলারদের পাশে এসে তাদেরকে সাহস যোগান। আমাদের এ একাডেমীর পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন টুর্নামেন্টে আমরা অংশ নিলে সেখানে আমাদের প্রতিষ্ঠাতা ও তার সহকর্মীদের উৎসাহসহ সকল ধরনের সহযোগিতা পাচ্ছি । আমরা আমাদের প্রতিষ্ঠাতার কাছে অনুরোধ করবো আমাদের এ সংগঠনটির সাথে যেনো সবসময় থাকে। আর আমরা আমাদের একাডেমীর পক্ষ থেকে চাঁদপুরের হয়ে এই প্রথমবারের মতো পাইওনিয়ার ফুটবল লীগে অংশ নিচ্ছি। আমাদের একাডেমীর যে সমস্ত খেলোয়াড় রয়েছে তারা যদি সাহস করে ম্যাচগুলোতে ভালো খেলে তাহলে আমরা অবশ্যই জয় পাবো। আশা করি ফুটবলে আমরা অনূর্ধ্ব ১৬ তে ভালো করে চাঁদপুরের সুনাম বয়ে আনবো। এ জন্য আমরা জেলাবাসীর দোয়া কামনা ও সহযোগিতার প্রার্থনা করছি।



কিশোর ফুটবলএকাডেমীর সহকারী প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান প্রশিক্ষক ইউসুফ বকাউল জানান, আমি নিজে একজন ফুটবলার ছিলাম। যত কাজই করিনা কেন, মাঠ ছেড়ে যেতে আমরা ভালো লাগেনা। আমি এই একাডেমীতে যারা প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন তাদেরকে নিজের সন্তানের মতো আদর যত্ন করে তাদেরকে খেলাধুলায় মগ্ন রাখি। আমাদের একাডেমীতে যে কেউই আসলে দেখতে পারবে যে প্রাইমারি স্কুল পড়ুয়া ফুটবলাররা মনযোগ সহকারে তাদের অনুশীলন নিচ্ছেন। প্রতিদিন তারা স্কুল শেষ করে সময়মতো মাঠে চলে আসেন। তারা নিয়মিত স্কুলের যাওয়ার পাশাপাশি খেলাধুলা করার জন্য নিয়মিত মাঠে আসছেন। আমরা তাদেরকে একাডেমীর পক্ষ থেকে সকল ধরনের সহযোগিতা করে যাচ্ছি। তবে যে সমস্ত খেলোয়াড়রা এখানে অনুশীলন করছেন তারা যদি তাদের ধারাবাহিকতা ধরে রাখেন তাহলে এইখান থেকেই একদিন দেশসেরা ফুটবলার সৃষ্টি হবেন। আমরা যারা একসময় ঢাকার মাঠে দলবেঁধে চাঁদপুরের হয়ে খেলেছি ,আশা করি এইখান খেলোয়াড়রা যদি তাদের ধারাবাহিকতা ধরে রাখেন তাহলে আগামী কয়েকবছর পর ঢাকার বিভিন্ন বড় বড় ক্লাব সহ জাতীয় দলে তাদেরকে খেলতে দেখা যাবে । আর আমরা আশা করি এবার প্রথমবার যেহেতু পাইওনিয়ারে অংশ নিচ্ছি চেষ্টা করবো ভালো খেলা উপহার দিতে ।



একাডেমীর সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ রিপন পাটওয়ারী জানান, চাঁদপুরের ইতিহাসে এই প্রথম ঢাকা পাইওনিয়ার ফুটবল লীগে চাঁদপুরের কিশোর ফুটবল একাডেমী দলটি অংশ গ্রহণ করছে। আমাদের মোট ৩০ জন খেলোয়াড় মেডিকেল চেকআপের জন্য গিয়েছিলো। এর মধ্যে ২৪ জন খেলার সুযোগ পেয়েছেন। আমরা আশা করছি আমাদের দলের খেলোয়াড়রা প্রথমবারের মতো অংশ নিয়ে ভালো করবে। এ জন্য চাঁদপুরবাসীর সকলের কাছে দোয়া কামনা করছি। ক্রীড়া সংগঠক লায়ন কিশোর সিংহ রায় জানান, এ ক্ষুদে ফুটবলারদের যদি নিয়মিত প্রশিক্ষণের মধ্যে রাখা হয় তাহলে তারা একসময় ফুটবল খেলায় চাঁদপুর জেলার হারানো ঐহিত্য ফিরিয়ে আনবে। কারণ এদের মধ্যে অনেক প্রতিভাবান খেলোয়াড় রয়েছে। আমরা এ সংগঠনে অংশ নেয়া খেলোয়াড়দের বাবা-মায়ের প্রতি অনুরোধ জানাবো তারা যেনো তাদের সন্তানদেরকে পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলার ক্ষেত্রে যেনো উৎসাহ প্রদান করেন।



পাইওনিয়ার ফুটবল লীগে সুযোগ পাওয়া আমির হামজার সাথে আলাপককালে তিনি জানান, প্রথম বারের মতো সুযোগ পেয়েছে আমাদের চাঁদপুরের ক্লাবটি। আমি যদি খেলার সুযোগ পাই চেষ্টা করবো নিজের সেরা খেলাটা উপহার দেয়ার জন্য। আমাদের ইউছুফ স্যার সহ যারা দায়িত্বে রয়েছেন তারা নিয়মিত আমাদেরকে মাঠে অনুশীলন করাচ্ছেন। আমাদের নিয়মিত অনুশীলনের কারণে প্রতিদিনই নতুন নতুন অনেক কিছু শিখতে পারছি।



উল্লেখ্য, ফুটবল নিয়ে চাঁদপুরে আর বেশ কয়েকটি একাডেমী রয়েছে। এর মধ্যে চাঁদপুর কিশোর ফুটবল একাডেমী তাদের একাডেমীর খেলোয়াড়দের নিয়ে অনুশীলন করে যাচ্ছেন। শুরু থেকে একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক মোঃ তাইজুউদ্দিন বকাউল,সহকারী কোচ হিসেবে টুটুল চক্রবর্তী দায়িত্ব পালন করছেন। একাডেমীটির পৃষ্টপোষকতায় রয়েছেন বাংলাদেশের হার্টস্পেলাজিস্ট বিশেষজ্ঞ সাহাবুদ্দিন খান।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৪১৮৯
পুরোন সংখ্যা