চাঁদপুর। মঙ্গলবার ৬ জুন ২০১৭। ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪। ১০ রমজান ১৪৩৮
ckdf

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৮-সূরা কাসাস 


৮৮ আয়াত, ৯ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৪৬। মূসাকে যখন আমি আহ্বান করিয়াছিলাম তখন তুমি তূর পর্বতপার্শ্বে উপস্থিত ছিলে না। বস্তুত ইহা তোমার প্রতিপালকের নিকট হইতে দয়াস্বরূপ, যাহাতে তুমি এমন এক সম্প্রদায়কে সতর্ক করিতে পার, যাহাদের নিকট তোমার পূর্বে কোন সতর্ককারী আসে নাই, যেন উহারা উপদেশ গ্রহণ করে;


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


যে স্বল্প পরিমাণে সুগন্ধ পায় সে সুগন্ধের মাধুর্য বুঝে।                      


-মিনেকো।

মৃত্যুই অনন্ত পদযাত্রার প্রারম্ভ।


চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল নিয়ে উপজেলাগুলোর অনীহা!
ক্রীড়া প্রতিবেদক
০৬ জুন, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

আর মাত্র ক'দিন পরই অনুষ্ঠিত হবে চাঁদপুর স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট। জেলা ক্রীড়া সংস্থা সূত্রে জানা গেছে, রমজানের পরই এ টুর্নামেন্ট শুরু হবে। জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে ১৭তম জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে এবার জেলার ৮ উপজেলাসহ জেলা ক্রীড়া সংস্থার অন্তর্ভুক্ত ক্লাবগুলো অংশগ্রহণ করবে। এ ব্যাপারে জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা ও ক্লাবগুলোকে চিঠি প্রদান করা হয়েছে। টুর্নামেন্ট উপলক্ষে জেলা ক্রীড়া সংস্থার ফুটবল উপ-কমিটির পক্ষ থেকে গত ২৫ মে সভার আয়োজন করা হয়। উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তা ও ক্লাব কর্মকর্তারা উপস্থিত না থাকায় ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়নি।

জেলার কয়েকজন সাবেক ফুটবলার ও উপজেলার কয়েকজন কর্মকর্তার সাথে আলাপকালে জানা যায়, জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল খেলতে অনেক উপজেলাই অনীহা প্রকাশ করছে। বিশেষ করে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার প্রধান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সেক্রেটারীদের সমন্বয় না থাকায় অনেক উপজেলার দলগুলো জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল খেলতে অনীহা প্রকাশ করছেন। আর নতুন করে জেলা পর্যায়ের ক্লাবগুলো খেলার সুযোগ পাওয়াতে কয়েকটি ক্লাব খেলতে চাইলেও কয়েকটি ক্লাব খেলবে কিনা এখনও তারা তেমন মতামত প্রকাশ করেনি। এছাড়া ঈদের পর জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল হবে এ নিয়ে জেলার বেশ কয়েকটি ক্লাব খেলোয়াড়দের সাথে কথা বলতে দেখা গেছে।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবুর সাথে এ বিষয়ে আলাপকালে তিনি বলেন, আমরা ঈদের পর জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে ১৭ তম জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করতে যাচ্ছি। আমরা টুর্নামেন্ট উপলক্ষে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার দলগুলো ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার অন্তর্ভুক্ত ক্লাবগুলোকে চিঠি দিয়েছি। গত ২৫ মে ফুটবল উপ-কমিটির সভার তারিখ দেয়া হয়েছিলো । কিন্তু উপস্থিত সদস্য সংখ্যা কম হওয়ায় এ সভা আর হয়নি।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার ফুটবল উপ-কমিটির সম্পাদক শাহির হোসেন পাটওয়ারীর সাথে আলাপকালে তিনি জানান, সভায় অনেক উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন না। এদের অধিকাংশের সাথে আলাপ করা হয়েছে। তারা উপস্থিত না থাকলেও

আমাদেরকে ফোনে জানিয়েছেন, আমরা যে সিদ্বান্ত নেবো সেটা তারা মেনে নিবে।

কচুয়া উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ চন্দ্রের সাথে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি জানান, আমরা জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের কোনো চিঠি পাই নি। আমাদেরকে সভার দিন সকালে জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে ফোন করেছে যে, ফুটবল উপ-কমিটির সভা হবে। আমরা তাৎক্ষণিক জানিয়ে দিয়েছি যে, জেলা ক্রীড়া সংস্থা যে সিদ্ধান্ত নেবে আমরা সেই সিদ্বান্ত অনুযায়ী খেলবো। জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবলে কচুয়া সবসময়ই অংশ নিয়েছে এবং নেবে। আমাদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নতুন এসেছেন। তাঁর সাথে খেলার ব্যাপারে কোনো কথা হয়নি। আমরা উপজেলা নির্বাহী স্যারের সাথে কথা বলে খেলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবো। তবে আমরা জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল খেলেছি এবং খেলবো।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার অন্তর্ভুক্ত কয়েকটি ক্লাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে মুঠোফোনে আলাপকালে তারা জানান, আমরা লোকমুখে শুনেছি যে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে এবার ক্লাবগুলো খেলতে পারবে। আমরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোনো চিঠি এখনও পাই নি। তবে আমরা এবার জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবলে উপজেলা দলগুলোর সাথে খেলতে চাই।

আজকের পাঠকসংখ্যা
১৫৯০৯৪৫
পুরোন সংখ্যা