চাঁদপুর। মঙ্গলবার ৭ আগস্ট ২০১৮। ২৩ শ্রাবণ ১৪২৫। ২৪ জিলকদ ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪০-সূরা আল মু’মিন

৮৫ আয়াত, ৯ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২৮। ফেরাউন গোত্রের এক মুমিন ব্যক্তি, যে তার ঈমান গোপন রাখত, সে বলল, তোমরা কি একজনকে এজন্যে হত্যা করবে যে, সে বলে, আমার পালনকর্তা আল্লাহ্, অথচ সে তোমাদের পালনকর্তার নিকট থেকে স্পষ্ট প্রমাণসহ তোমাদের নিকট আগমন করেছে? যদি সে মিথ্যাবাদী হয়, তবে তার মিথ্যাবাদিতা তার উপরই চাপবে, আর যদি সে সত্যবাদী হয়, তবে সে যে শাস্তির কথা বলছে, তার কিছু না কিছু তোমাদের উপর পড়বেই। নিশ্চয় আল্লাহ সীমালংঘনকারী, মিথ্যাবাদীকে পথ প্রদর্শন করেন না।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন        


মূর্খতা এমন এক পাপ, সারা জীবনে যার প্রায়শ্চিত্ত হয় না।            


-আলি-ফখরি।                 


যে শিক্ষা গ্রহণ করে তার মৃত্যু নেই।



 


ফটো গ্যালারি
পুরাণবাজারে চলছে মুক্তিযোদ্ধা মরহুম নূরু মিজি স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্ট
ক্রীড়া প্রতিবেদক
০৭ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


পুরাণবাজার মধুসূদন হাইস্কুল মাঠে চলছে মুক্তিযোদ্ধা মরহুম নূরু মিজি স্মৃতি টিভি কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট। শেখ রাসেল স্মৃৃতি সংসদের আয়োজনে ৮টি দল নিয়ে গত মাসে এ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করা হয়। টুর্নামেন্টের সেমি-ফাইনাল খেলা ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। এখন শুধুমাত্র ফাইনাল খেলা বাকি। ফাইনালে উঠেছে চ্যাম্পিয়ন একাদশ ও নাঈম বুলেট একাদশ।



টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া ৮টি দল হচ্ছে : চ্যাম্পিয়ন একাদশ, নাঈম বুলেট একাদশ, নাইচ এমএম একাদশ, মায়ের দোয়া একাদশ, নবীন স্পোর্টিং ক্লাব, লায়ন স্পোর্টিং ক্লাব, ভাই বন্ধু একাদশ ও সেভেন স্টার ক্লাব। টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির কর্মকর্তা জুয়েল ও তারেক হাসান মিজি জানান, আমরা বীর সেনানী মুক্তিযোদ্ধা নুরু মিয়াজীর নামে এ টুর্নামেন্টটি পরিচালনা করছি। এ টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া প্রতিটি দলেই ৯ জন করে ফুটবল খেলোয়াড় অংশ নিয়েছে। প্রতিটি দলই এলাকার বিভিন্ন স্কুল পড়ুয়া ছাত্রদের নিয়ে দল গঠন করে মাঠে নামে। প্রতিদিনই খেলা চলাকালীন সময়ে দর্শকদের মাঠে ছিলো উপচেপড়া ভিড়।



টুর্নামেন্টের আয়োজক ও মরহুমের ছেলে যুবলীগ নেতা ফজলু মিজি ও রমজান মিজির সাথে মুঠোফোনে টুর্নামেন্টের ব্যাপারে জানতে চাইলে তারা বলেন, আমরা আমাদের শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের মাধ্যমে প্রতি বছরই পুরাণবাজার মধুসূদন মাঠে খেলাধুলার আয়োজন করে আসছি। দীর্ঘদিন ধরেই আমাদের মধুসূদন মাঠে কোনো ধরনের খেলাধুলার আয়োজন করা হয় না। আমরা আমাদের ক্লাবের পক্ষ থেকে আমাদের বাবার স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্যে স্থানীয় ফুটবলারদের নিয়ে আমরা টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছি। প্রতিদিনই খেলা চলাকালীন সময় দেখেছি যে বিভিন্ন স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া ছাত্ররা ও ক্রীড়ামোদী দর্শকরা মাঠে খেলা দেখেছে। আগামী সপ্তাহে ১৫ আগস্ট পালন করা শেষে আমরা ফাইনালের তারিখ নির্ধারণ করবো।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৪৫৫২৭
পুরোন সংখ্যা