চাঁদপুর, মঙ্গলবার ৩০ জুলাই ২০১৯, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৬ জিলকদ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুরে স্কুল শিক্ষিকা জয়ন্তীর চাঞ্চল্যকর হত্যার রহস্য উদঘাটন * হত্যাকারী ডিস ব্যবসায়ী লাইনম্যান জামাল ও আনিসুর রহমান আটক
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৪-সূরা কামার


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


১। কিয়ামত নিকটবর্তী হইয়াছে, আর চন্দ্র বিদীর্ণ হইয়াছে,


২। উহারা কোন নিদর্শন দেখিলে মুখ ফিরাইয়া লয় এবং বলে, 'ইহা তো চিরাচরিত জাদু।'


৩। উহারা সত্য প্রত্যাখ্যান করে এবং নিজ খেয়াল-খুশির অনুসরণ করে, আর প্রত্যেক ব্যাপারই লক্ষ্যে পেঁৗছাবে।


 


 


দুপুরের খাবারের পর বিশ্রাম নাও এবং রাত্রে খাবারের পর হাঁটো।


-জনরে।


 


 


নফস্কে দমন করাই সর্বপ্রথম জেহাদ।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
ঘাসে ভরপুর খেলার মাঠ...
৩০ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


ছবির এ দৃশ্যটি কোনো জমির দৃশ্য কিংবা গরুর জন্যে চাষকৃত ঘাসের মাঠ নয়। ঘাসে ভরপুর এ খেলার মাঠটি হচ্ছে চাঁদপুর জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলাধীন নিউ কলেজ হোস্টেল মাঠ। এ মাঠটির যেমন জনপ্রিয়তা রয়েছে তেমনি মাঠটি অনেক স্মৃতিময় অনেকেরই কাছে। চাঁদপুর শহর লাগোয়া এ উপজেলার কোনো খেলা কিংবা কোনো জনসভা ও মেলা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এ মাঠটিতে হয়ে থাকে। মাঠটির একপাশে রয়েছে শহীদদের স্মরণে স্মৃতিসৌধ 'দীপ্ত বাংলা'। এ মাঠটিতে ওই উপজেলার স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা ফুটবল ও ক্রিকেট খেলা সহ বিভিন্ন অ্যাথলেটে অংশ নেয়। প্রতিদিন দুপুর গড়িয়ে বিকেল শুরু হওয়ার সাথে বিভিন্ন বয়সী খেলোয়াড় মাঠে এসে এই মাঠে অনুশীলন শুরু করে। আবার কখনও কখনও ম্যাচের আয়োজনও করে থাকে।



সরজমিনে মতলবের সেই মাঠটিতে গিয়ে দেখা যায় যে, মাঠের চারপাশে এবং মাঠের ভেতরের ঘাসগুলো অনেক লম্বা হয়ে আছে। অনুশীলনরত বিভিন্ন বয়সী ও মাঠে বসা শিক্ষার্থীদের সাথে আলাপকালে তারা জানায়, এ মাঠের দায়িত্বে রয়েছে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা। কিন্তু এই সংস্থার দায়িত্বে যারা রয়েছেন তাদেরকে এই ব্যাপারে কিংবা মাঠ সংস্কারের কথা বললে তারা অনেকটা উদাসীন হয়ে যান। মাঠে বসা শিক্ষাথীদের অভিযোগ যে, আমাদের উপজেলায় যে ক্রীড়া সংস্থা রয়েছে তা যেনো শুধু নাম মাত্রই। খেলাধুলা আয়োজন কিংবা খেলোয়াড়দের প্রশিক্ষণের ব্যাপারে তাদের কোনো ভূমিকা নেই। উপজেলা ক্রীড়া সংস্থাটি যেনো সন্ধ্যায় খোলা হয় আর গভীর রাতে বন্ধ করা হয়। আমরা এ মাঠটি খেলার উপযোগী করে দেয়ার জন্যে আমাদের সাংসদ অ্যাডঃ নূরুল আমিন রুহুল সহ জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি কামনা করছি। আমাদের দাবি, এ মাঠটি যেনো খেলার উপযোগী হয়। ছবি ও প্রতিবেদন : চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৪৬০১৫
পুরোন সংখ্যা