চাঁদপুর, মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
চাঁদপুর আউটার স্টেডিয়ামে ফুটবল ও ক্রিকেটসহ বিভিন্ন খেলা চলছে
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম
২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


করোনাকালেও এখন নিয়মিতভাবেই চাঁদপুর আউটার স্টেডিয়ামে চলছে খেলাধুলা। তবে সেই খেলাধুলাগুলো প্রতিযোগিতা কিংবা কোনো লীগ বা টুর্নামেন্ট নয়। আউটার স্টেডিয়ামের বিভিন্ন স্থানেই এখন বিকেল বেলা গেলে দেখা যায় যে, বিভিন্ন বয়সী ফুটবলাররা ফুটবল খেলছেন। অপরদিকে ক্রিকেট অনুশীলনকারী ক্রিকেটাররা তাদের ক্লেমন ক্রিকেট একাডেমী সংলগ্ন ক্রিকেট পিচে অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন। আর প্রতিদিনই নিয়ম অনুযায়ী চাঁদপুর সোনালী অতীত ফুটবল একাডেমীর পক্ষ থেকে ছেলে ও মেয়েদের অনুশীলন চলছে।



করোনায় চাঁদপুর জেলাসহ বিভিন্ন স্থানে লকডাউন থাকার কারণে প্রায় ৬ মাস সকল ধরনের খেলাধুলা বন্ধ ছিলো। জেলা ক্রীড়া সংস্থা কিংবা জেলা ক্রীড়া অফিসের পক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো খেলাধুলা কিংবা অনুশীলনের ব্যবস্থা করা না হলেও বিভিন্ন ইভেন্টের খেলোয়াড়রা নিজ নিজ উদ্যোগেই অনুশীলন করে যাচ্ছেন। আবহাওয়া ভালো থাকলে প্রতিদিন দুপুরের পরই আউটার স্টেডিয়ামে গেলে দেখা যায় যে, মাঠে বিভিন্ন বয়সী খেলোয়াড়রা খেলছেন।



আউটার স্টেডিয়াম সংলগ্ন বাস্কেটবল মাঠে বিভিন্ন স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া খেলোয়াড়রা নিজ নিজ উদ্যোগে অনুশীলন করছেন। তাদের কোনো কোচ কিংবা কোনো কর্মকর্তাকে দেখা না গেলেও উঠতি বয়সী বাস্কেটবল খেলোয়াড়দেরকে ঠিকই বাস্কেটবল মাঠে দেখা যায়।



জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন বয়সী স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া নিয়মিত ফুটবলাররা অনুশীলন করতে চলে আসেন আউটারে। তাদেরকে অনুশীলনে সহযোগিতা করেন চাঁদপুর সোনালী অতীত ক্লাবের কর্মকর্তা ও সাবেক ফুটবলার আনোয়ার হোসেন মানিক ও জাহাঙ্গীর গাজী। অনুশীলনকারী কয়েকজন প্রমীলা ফুটবলারের সাথে এ প্রতিবেদকের আলাপকালে তারা বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরেই সোনালী অতীত ফুটবল একাডেমীর মাধ্যমে অনুশীলন করে আসছিলাম। মাঝখানে করোনার কারণে অনেকদিন আমরা মাঠে আসিনি। করোনা পরিস্থিতির কিছুটা পরিবর্তন হলে এবং লকডাউন ওঠার পর আমরা নিজেরাই ফুটবল অনুশীলন করার জন্যে কোচদের সাথে আলাপ করি। এরপর থেকে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আমরা নিজেদের শরীরের ফিটনেস ও খেলার ধারাবাহিকতা ধরে রাখার জন্যে অনুশীলন করছি।



এছাড়া এই একটি মাঠকেই স্থানীয় এলাকার ও বিভিন্ন দপ্তরে চাকুরিত কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা খেলাধুলার জন্যে বেছে নিয়েছেন। এর মধ্যে কিছু সরকারি চাকুরিজীবী ও বেসরকারি চাকুরিজীবী সকালে এবং বিকেলে এই দুই সময়ে ফুটবল খেলেন। সকাল বেলা আউটার স্টেডিয়ামে দেখা যায় যে, ছোট থেকে বড় সকল ধরনের বয়সের খেলোয়াড়রা খেলছেন। আবার বিভিন্ন কলেজের ছাত্ররা তাদের বন্ধুদেরকে দলবদ্ধ করে বিভিন্ন জার্সি পরে খেলে যাচ্ছেন।



চাঁদপুর সরকারি কলেজে পড়ুয়া এবং জেলা শহরের সরকারি অফিসে কর্মরত কয়েকজন খেলোয়াড়ের সাথে আলাপকালে তারা জানান, সারাদিনই আমরা বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকি। তাই সকাল এবং বিকেলের এই দুই সময়ের যে কোনো একটি সময়ে যদি খেলার সুযোগ পাই তখনই খেলতে চলে আসি। এইখানে একটা খেলার মতো পরিবেশ পাওয়ায় এবং শহরের কোথাও তেমন বড় মাঠ না থাকায় এই আউটার স্টেডিয়ামে বিভিন্ন বয়সী খেলোয়াড়দেরকে খেলতে দেখা যায়।



চাঁদপুর সোনালী অতীত ফুটবল একাডেমীর ফুটবল কোচ আনোয়ার হোসেন মানিক ও জাহাঙ্গীর গাজীর সাথে এ প্রতিবেদকের আলাপকালে তারা বলেন, আমরা আমাদের একাডেমীর মাধ্যমে খেলোয়াড়দের নিয়ে অনুশীলন শুরু করেছি। অনুশীলন করা খেলোয়াড়দেরকে আমরা বিভিন্ন নিয়ম অনুযায়ী মেনে অনুশীলন করাতে মাঠে নামি।



 


হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৭-সূরা মুর্সালাত


৫০ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৬। ওযর-আপত্তি রহিতকরণ ও সতর্ক করার জন্য


৭। নিশ্চয়ই তোমাদিগকে যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হইয়াছে তাহা অবশ্যম্ভাবী।


৮। যখন নক্ষত্ররাজির আলো নির্বাপিত হইবে,


 


যে ব্যাপারকে নিয়ন্ত্রণ করবার ক্ষমতা আমার নেই, তা নিয়ে আমি কখনো ভাবি না।


-বুথ টাসিংটন।


 


 


 


আল্লাহর আদেশ সমূহের প্রতি প্রগাঢ় ভক্তি প্রদর্শন এবং যাবতীয় সৃষ্ট জীবের প্রতি সহানুভূতি-ইহাই ইসলাম।


 


ফটো গ্যালারি
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৮৭,২৯৫ ৩,৯৬,৩৮,১৮৮
সুস্থ ৩,০২,২৯৮ ২,৯৬,৭৮,৪৪৬
মৃত্যু ৫,৬৪৬ ১১,০৯,৮৩৮
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৮৩২৭৩০
পুরোন সংখ্যা