চাঁদপুর। সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। ২৪ মাঘ ১৪২৩। ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • শুক্রবার সকালে হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক || হাজীগঞ্জের সৈয়দপুর সর্দার বাড়ির পুকুর থেকে শাহিদা আক্তার মুক্তা নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ॥ স্বামী হাছান সর্দার পলাতক
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৭-সূরা নাম্ল 


৯৩ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৭। স্মরণ কর সেই সময়ের কথা, যখন মূসা তাহার পরিবারবর্গকে বলিয়াছিলো, ‘আমি আগুন দেখিয়াছি, সত্বর আমি সেথা হইতে তোমাদের জন্য কোনো খবর আনিবো অথবা তোমাদের জন্য আনিবো জ্বলন্ত অঙ্গার, যাহাতে তোমরা আগুন পোহাইতে পারো’।  


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


ঔদ্ধত্য মানুষের জীবনে দুঃখ আনে।


                   -টমাস ক্যাম্বেল।


ধনের যদি সদ্ব্যবহার করা হয় তবে তা সুখের বিষয় এবং সদুপায়ে ধন বৃদ্ধির জন্যে সকলেই বৈধভাবে চেষ্টা করতে পারে।    


 

ফটো গ্যালারি
১৫ পদের বিপরীতে ৩ জন চিকিৎসক দিয়ে চলছে হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক্স-রে মেশিন, জেনারেটর অচল
হাসান আল মামুন
০৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


হাইমচর উপজেলার গরিব অসহায় মানুষদের চিকিৎসা সেবা পাওয়ার একমাত্র অবলম্বন হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্। হাইমচরের প্রত্যন্ত অঞ্চল ছাড়াও পার্শ্ববর্তী উপজেলার রামপুর, বিশকাটালী, গোয়ালভাওর, চরদুখিয়া এলাকার লোকজন চিকিৎসা সেবার জন্যে এ হাসপাতালে আসেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ েনিয়মিত ১৫জন ডাক্তারের পদ থাকা সত্ত্বেও ৩ জন দিয়েই চলছে হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্। এখানে এঙ্-রে মেশিন দীর্ঘ এক যুগেরও ঊধর্ে্ব অচল হয়ে রয়েছে। অপারেশন থিয়েটার থাকলেও এখানে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি না থাকায় জরুরি রোগীদের চাঁদপুর সদরে প্রেরণ করার মাঝপথেই মৃত্যু হয়। হাসপাতালের রোগীদের পয়ঃ নিষ্কাশনের ব্যবস্থা নেই, নেই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, নেই পানি। বলতে গেলে স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্রে সমস্যার কোনো অন্ত নেই। ইতিপূর্বে মানববন্ধন ও স্মারকলিপিসহ বিভিন্ন আন্দোলন করেও হাসপাতালের সমস্যা সমাধান সম্ভব হয়নি। হাইমচরবাসী হাসপাতালকে সচল করা ও সেবার মানোন্নয়নে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।



এ সম্পর্কে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ মোঃ বেলায়েত হোসেন বলেন, আমি এ হাসপাতালে যোগদান করেছি কিছু দিন পূর্বে। হাসপাতালের সমস্যার কথা জেনে নিয়ে আমি ব্যবস্থা নিব।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৩৪১৯
পুরোন সংখ্যা