চাঁদপুর। সোমবার ১৭ জুলাই ২০১৭। ২ শ্রাবণ ১৪২৪। ২২ শাওয়াল ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • ---------
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৮-সূরা কাসাস 


৮৮ আয়াত, ৯ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৮৬। তুমি আশা কর নাই যে, তোমার প্রতি কিতাব অবতীর্ণ হইবে। ইহা তো কেবল তোমার প্রতিপালকের অনুগ্রহ। সুতরাং তুমি কখনও কাফিরদের সহায় হইও না। ’


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


সৌভাগ্যবান হওয়ার চেয়ে জ্ঞানী হওয়া ভালো।


                        -ডাব্লিউ জি বেনহাম।


যাহাদের হৃদয় পবিত্র, দয়া ও সত্যে পূর্ণ, তাহারাই অমৃতলোক বেহেশতের অধিবাসী হবেন।


 

ভালো থাকুক মন
১৭ জুলাই, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


 



সবকিছুর কেন্দ্রে রয়েছে আমাদের মন। জীবনের নানা চড়াই-উৎড়াই পার হতে গিয়ে মন সব সময় একইরকম থাকে না। কখনো আনন্দে মন নেচে ওঠে। কখনো বেদনায় বিষন্ন হয়। আমাদের মন ভালো থাকলে শরীর ভালো থাকে। মন খারাপ হলে শরীর অসুস্থবোধ হয়। সুস্থ সুন্দর আনন্দময় জীবনের জন্যে মনকে চাপমুক্ত, হাসি-খুশি রাখাটা খুবই জরুরি। মন ভালো রাখতে কী আমাদের করণীয়, চলুন জেনে নেই-



আশা করুন। স্বপ্ন দেখুন। হতাশা পরিহার করুন। আপনার স্বপ্ন পূরণের জন্যে যথাযথ চেষ্টা করুন। নেতিবাচক ধারণা পরিহার করে পজেটিভ ধারণা পোষণ করুন। যা সম্ভব নয়, তা কখনও আশা করবেন না। এতে কষ্ট বাড়বে।



শরীর সুস্থ রাখতে নিয়মিত ও সময়মতো খাওয়া দাওয়া করুন। সতেজ-সজীব ফলমূল ও পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ করুন। নিয়মিত রাতে ঘুমানোর চেষ্টা করুন। ঘুম ভালো হলে আপনার মানসিক স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। মন প্রফুল্ল হবে।



সব সময় হাসি-খুশি থাকার চেষ্টা করুন। শত কষ্টের মাঝেও হাসতে শিখুন। মনকে সব সময় নিজের নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন। মনকে স্থান কাল পাত্র ভেদে বাস্তবতা উপলব্ধি করার মানসে গড়ে তুলুন।



মনকে পারিপাশ্বর্িক পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার কৌশলী করে তুলুন। মন বেশি খারাপ হলে কোথাও ঘুরে আসতে পারেন। এতে মন ভালো হবে।



সবসময় এমন কিছু ভাবার চেষ্টা করুন যা আপনাকে মানসিকভাবে আনন্দ দেবে। একেবারে নিভৃতে দিন কাটিয়ে মনকে বোঝার চেষ্টা করুন।



নিজের আনন্দকে সবসময় ধরে রাখার চেষ্টা করুন। তাহলে আপনার মনও ভালো থাকবে। যেসব ভাবনা আপনার মনকে কষ্ট দেয়, সেসব ভাবনা মনের সীমানায় আসতে দেবেন না।



মন কখনও নিজের গণ্ডি পেরিয়ে বাইরে যায় না। তার গ-িটা মস্তিষ্কের মধ্যেই সীমাবদ্ধ। তাই যে কোনো কিছু মননশীল মেধা দিয়ে চিন্তা করুন। তাতেই মানসিক শান্তি পাবেন। যেসব ভাবনা আপনার মনকে কষ্ট দেয়, সেসব ভাবনা মনের সীমানায় আসতে দেবেন না।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৩৬৪১৫
পুরোন সংখ্যা