চাঁদপুর । সোমবার ৯ জুলাই ২০১৮ । ২৫ আষাঢ় ১৪২৫ । ২৪ শাওয়াল ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • হাজীগঞ্জে আটককৃত বিএনপি'র ১৭ নেতাকর্মীকে জেলহাজতে প্রেরন
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩৯-সূরা আয্-যুমার

৭৫ আয়াত, ৮ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৩৫। যাতে আল্লাহ তাদের মন্দ কর্মসমূহ মার্জনা করেন এবং তাদের উত্তম কর্মের পুরস্কার তাদেরকে দান করেন।

৩৬। আল্লাহ কি তাঁর বান্দার পক্ষে যথেষ্ট নন? অথচ তারা আপনাকে আল্লাহর পরিবর্তে অন্যান্য উপাস্যদের ভয় দেখায়। আল্লাহ যাকে গোমরাহ করেন, তার কোনো পথপ্রদর্শক নেই। আল্লাহ কি তাঁর বান্দার পক্ষে যথেষ্ট নন? অথচ তারা আপনাকে আল্লাহর পরিবর্তে অন্যান্য উপাস্যদের ভয় দেখায়। আল্লাহ যাকে গোমরাহ করেন, তার কোনো পথপ্রদর্শক নেই।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


রাজনৈতিক পরীক্ষা বলতে বিপ্লবের পরীক্ষা বোঝায়।

-প্লুটাস।


যাহাদের হৃদয় পবিত্র, দয়া ও সত্যে পূর্ণ, তাহারাই অমৃতলোক বেহেশতের অধিবাসী হবেন।   



                          


ফটো গ্যালারি
বমি ও তার বিভিন্ন কারণ
ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া
০৯ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


ছোট্ট সোনামণি। বাবা নাম রেখেছে স্পর্শ। হয়েছে আজ দিন-বিশেকের মতো। অনেকদিন পরে কাঙ্ক্ষিত বাচ্চা পেয়ে মা তো মহাখুশি। তাই বাচ্চাকে খাওয়াতে গেলেই একটু বেশিক্ষণ মায়া করে। কিন্তু দু'য়েকদিন ধরে স্পর্শ খাওয়ার পর শুইয়ে দিলেই ভক্ করে বমি করে দেয় এক দলা। মা খুব চিন্তিত এতে। শেষে ডাক্তারকে ফোন দিলেন। ডাক্তারই বলে দিলেন, খাওয়ানোর সময় যাতে একটু কম খাওয়ানো হয়। একদম ভরপেট খাইয়ে বাচ্চাকে ঘুম পাড়ালেই সে বমি করে দেবে কিছুটা। তেমনি, খাওয়ার সময় যদি হাওয়াও সাথে গিলে তবে তাতেও এই বমি হতে পারে। ডাক্তারের ব্যাখ্যা পেয়ে সদ্য সাতরাজার ধন বুকে পাওয়া মা আশ্বস্থ হলেন।



চিত্রার বয়স পাঁচ। সারাদিন ধূলোবালিতে গড়াগড়ি। এটাই তার খেলা। খেলার সাথীদের নিয়ে তার মৃত্তিকা-ম-নই যেনো স্বস্তি। মেয়েটার পেটটা একটু একটু করে বড় হচ্ছে। আজকাল তার খাওয়ায় রুচি নেই। বমি বমি ভাব হয়। মুখে ওয়াক ওয়াক করে। চোখেমুখে বুঝা যায়, রক্তস্বল্পতা। পাড়ায় বাচ্চাদের টিকা দিতে আসলো যারা তারা দেখেই বললো, এই মেয়েটা বমি করে পেটভরা কৃমির কারণে। চিত্রার মা স্বস্তি ফিরে পেলেন পুষ্টি আপার কথায়। কৃমির ট্যাবলেট সপরিবার খাওয়া হয়ে গেলো তাদের। চিত্রা এখন আগের চেয়ে খেতে পারে ভালো। বমি ভাব আর নেই।



গত ক'টা দিন ধরে রম্যর গা-হাত ব্যথা করে জ্বর আসে। মাথা ব্যথাও আছে সাথে। আজ থেকে শুরু হলো বমি। পেটে কিছুই রাখতে পারছে না। কিছু মুখে দিতে গেলেই বমি বমি ভাব। সব কিছুতেই গন্ধ। রম্যর দাদু একজন কম্পাউন্ডার। তিনি দেখেই বুঝলেন তার দাদু ভাইয়ের জন্ডিস হয়েছে। ব্যস্, শুরু হলো ডাক্তারি। আমিষ খাবার বন্ধ, বিছানায় শুয়ে থাকো আর ডাবের জল খাও। দিন কয়েক যেতে না যেতেই রম্যর বমি বন্ধ হয়ে গেলো, খাওয়ার রুচিও ফেরত আসলো।



সৌহার্দ ছেলেটার মুখের কোনো লাগাম নেই। যেখানে যা, পায় তাই-ই সে চেখে দেখে। ছেলেটার স্ট্রিট ফুড বেশি পছন্দ। গত সন্ধ্যায় নিউমার্কেটের খোলা দোকানে চটপটি খাওয়ার পর হতেই তার বমি। বমির সাথে সাথে পাতলা পায়খানাও শুরু হয়ে গেছে। গা-হাত হাল্কা গরম হয়ে জ্বরও হয়েছে। সৌহার্দের বড় বোন সরকারি হাসপাতালের সেবিকা। তিনি দেখেই বুঝলেন, সৌহার্দের গ্যাস্ট্রাইটিস। কী আর করা! ভাইকে দ্রুত সিপ্রোফ্লঙ্াসিন ট্যাবলেট আর মেট্রোনিডাজল খেতে দিল। সাথে বমির জন্যে অনডেনস্ট্রেন, তিনবেলা। আর যতোবার পাতলা পায়খানা বা বমি করছে ততবারই ওরস্যালাইন খেতে দিল একগ্লাস করে। পরের দিন সকাল না হতেই সৌহার্দ মোটামুটি ভালো।



মাথা ব্যথা উঠলেই রীতি মেয়েটি হয় বমি করে নয়তো ওয়াক ওয়াক করে। তার দীর্ঘদিন ধরেই মাইগ্রেন পেইন। কখন যে ব্যথাটা ওঠে সে বুঝতেই পারে না। ব্যথা উঠলেই তার আলো অসহ্য লাগে, মানুষের কথার শব্দ মনে হয় মাথায় হাতুড়ি পিটায়। ডাক্তার তাকে বলে দিয়েছে, পিজোটিফেন ঔষধটি রেগুলার খেয়ে যেতে। আর হঠাৎ করে মাইগ্রেন পেইন উঠলে টলফেনামিক অ্যাসিড জাতীয় ঔষধে তাৎক্ষণিক কাজ হয়। রীতি এভাবেই আপোষ করে আছে রোগের সাথে।



হরিৎয়ের রক্তচাপ দীর্ঘদিনের। যখন রক্তচাপ বাড়ে তখন তার ঘাড়ে ব্যথা হয়, বমি হয়। প্রেসারের ঔষধ না খেলে এই বমি থামে না। আবার হরিৎ মায়ের উল্টো। তার আছে লো প্রেসার। প্রেসার কখনো একশ এর বেশি হয় না। এজন্যে লো প্রেসারজনিত বমি ঠেকাতে তিনি প্রমিথাজিন খাচ্ছেন দীর্ঘদিন ধরে।



রাজমিস্ত্রীর কাজ করতে গিয়ে আবিদ নামের শ্রমিকটি দোতলা সমান উঁচু থেকে পড়ে গিয়ে মাথায় ব্যথা পেয়েছে। অচেতন হওয়ার আগে সে বমি করে দিয়েছে। ডাক্তার তাকে তাড়াতাড়ি আইসিইউতে পাঠিয়ে দিয়েছেন। কথায় কথায় বলে দিয়েছেন, হেড ইনজুরিতে বমি হওয়া মানেই আঘাত গুরুতর।



সৌম্যদের স্কুলের হেড স্যার গত কয়দিন ধরে অসুস্থ। তাঁর নাকি শুধু বমি হয়। মাথা ঘোরে আর হাঁটতে গিয়ে টলে যান। বড় ডাক্তার মাথার এমআরআই করে বলে দিয়েছেন, হেড স্যারের মাথায় একটা টিউমার হয়েছে। একে ব্রেন টিউমার বলে। ডাক্তার সাহেব এই টিউমার অপারেশনের ডেট দিয়েছেন।



পাশের বাড়ি হতে অলকাদের বাসায় মিষ্টি পাঠিয়েছে। এমনিতেই তারা এটা-সেটা দেয়। কিন্তু আজকের মিষ্টির কারণ ভিন্ন। মোহনার গত কদিন ধরেই সকাল বেলায় বমি হয়। কিছুই খেতে মন চায় না। মেয়েটার বিয়ে হয়েছে বছর দেড়েক আগে। তার শাশুড়ি নাতির মুখ দেখার জন্যে পাগল হয়ে আছে। আজ সেই সুখবরটাই আসলো। ইউটিন টেস্টে নিচ্চিত হয়েছে, মোহনা সন্তান-সম্ভবা।



প্রবুদ্ধ ছেলেটা অনেক রাতে ঘুমায়। তার মা এই নিয়ে তাকে বকে আস্ত রাখে না। বিশেষতঃ সে রাতে কিছুই খেতে চায় না। আবার ঘুম থেকে উঠেই দাঁত ব্রাশ করতে গেলে তার বমি আসে। অবশেষে তার বাবা জোর করেই তাকে ডাক্তার দেখান। ডাক্তার বলে দিয়েছে, অ্যাসিডিটি ও গ্যাস্ট্রাইটিস হতে নাকি এই বমি ভাব হয়। তিনি এক মাসের ওমিপ্রাজল আর একটা করে দিনে তিনবার ডমপেরিডন খেতে নির্দেশ দিলেন। মাকে বলে দিলেন যাতে পেট দীর্ঘক্ষণ খালি না থাকে।



কোথাও বেড়াতে গেলেই গাড়িতে বমি হয় মিনতির। মোশন সিকনেসের জন্যই গাড়িতে উঠলে তাকে স্টেমিটিল জাতীয় ঔষধ খেতে হয়।



সেদিন মিনতি গিয়েছিল হাসপাতালে তার বেয়াইনকে দেখতে। বেয়াইনের পিত্তথলিতে পাথর ধরা পড়েছে। অপারেশনের পরে বেয়াইনকে আনা হলো পোস্ট অপারেটিভ বেডে। নার্স ব্যথার ইঞ্জেকশন দিয়ে গেল। সার্জন এসে বলে গেলেন,বেদনা নাশক পেথিডিন দেওয়ার কারণে রোগীর বমি হতে পারে। তাই সাবধান করে দিলেন যাতে রোগীকে পানি চাইলেও না দেওয়া হয়।



পনর বছরের অর্কেস্ট্রা থাকে বিদেশে। গরমের ছুটিতে বেড়াতে এসেছে দাদাবাড়িতে। কিন্তু এসেই সে অসুস্থ। তার তীব্র পেটে ব্যথা আর বমি। ব্যথা তলেপেটের ডানদিকে শুরু হয়ে সারাপেটে ছড়িয়ে যাচ্ছে। বাসায় ডাক্তার ডাকা হলো। ডাক্তার দেখে বললেন,তার অ্যাপেন্ডিসাইটিস। ইমিডিয়েট অপারেশন করাতে হবে। কী আর করা! অপারেশন করানো হলো। ডাক্তার কেটে নেওয়া অ্যাপেনডিঙ্ দেখিয়ে অর্কেস্ট্রার দাদাকে বললেন,ভাগ্য ভালো অপারেশন সময়মত হয়েছে!নাহলে তা বার্স্ট হয়ে যেত।



এছাড়াও মস্তিষ্কে এবং রক্তে অঙ্েিজন সঙ্কট ও কার্বন ডাই অঙ্াইড বৃদ্ধি হলে বমি হতে পারে যে কোন সুস্থ মানুষেরও। বমি একটি উপসর্গ মাত্র। তার কারণ খুঁজে উপযুক্ত চিকিৎসক দ্বারা উপযুক্ত সময়ে চিকিৎসা করানোই উত্তম।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১১৭৯৪০৬
পুরোন সংখ্যা