শুক্রবার, ০১ জুলাই, ২০২২  |   ২৮ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   কচুয়ায় অগ্নিকাণ্ডে বসতঘর পুড়ে ছাই
  •   বাংলাদেশে ঈদুল আজহা ১০ জুলাই
  •   ডাকাত সন্দেহে কোস্টগার্ডের হামলায় নিখোঁজ ১ : আহত ২
  •   হাজীগঞ্জে নবজাতকের লাশ উদ্ধার
  •   অধ্যাপক    কামরুজ্জামান সাহেবের স্মরণ সভা  ও মিলাদ

প্রকাশ : ২০ মে ২০২২, ১৯:১৮

চিরনিদ্রায় শায়িত ফাতেমা আর আবদুল্লা‘সহ তাদের শিক্ষক হওয়ার স্বপ্ন

চিরনিদ্রায় শায়িত ফাতেমা আর আবদুল্লা‘সহ তাদের শিক্ষক হওয়ার স্বপ্ন
কামরুজ্জামান টুটুল॥

কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত হলো সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ফাতেমা আলম ও আবদুল্লাহ পাটোয়ারসহ তাদের শিক্ষক হওয়ার স্বপ্ন। শুক্রবার সকাল ৯ টার দিকে চাঁদপুর কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কের চাঁদপুর সদর উপজেলার ঘোষের হাটে পিকআপ ট্রাক আর সিএনজি চালিত স্কুটারের মুখোমূখি সংঘর্ষ্যে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হাজীগঞ্জ থেকে সিএনজি চালিত স্কুটারে করে চাঁদপুর শহরের যাচ্ছিল শুক্রবার অনুষ্ঠিতব্য প্রাইমারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের জন্য। এদিকে সকালে দুর্ঘটনার পর পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে হাজীগঞ্জের সর্বত্র নেমে আসে শোকের ছ্ায়া। এ নিয়ে দিনভর নিহতদের পরিচয়সহ ঘটনা জানার জন্য আগ্রহী হয়ে উঠে হাজার হাজার লোকজন। তাদের মৃত্যু নিয়ে তথ্য বিভ্রাটসহ নানান গুঞ্জন শুরু হয়।

নিহত ফাতেমা আলম হাজীগঞ্জের দ্বাদশগ্রাম ইউনিয়নের নাসিরকোট গ্রামের মিজি বাড়ির মাহবুব হোসেনের মেয়ে ও পাশের বাকিলা ইউনিয়নের ছয়ছিলা গ্রামের আলমের স্ত্রী। তিনি হাজীগঞ্জের বলাখাল এলাকায় স্বামীসহ ভাড়াবাসায় থাকতেন। অপর নিহত আবদুল্লাহ্ পাটোয়ারী একই উপজেলার কালচোঁ দক্ষিণ ইউনিয়নের ওড়পুর-নোয়াপাড়া গ্রামের পাটওয়ারী বাড়ির হোসেন পাটওয়ারীর ছেলে।

এদিকে দ্বাদশগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম বকাউল ফাতেমা আলম ও কালচোঁ দক্ষিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা স্বপন আবদুল্লাহ পাটোয়ারীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন রাতেই স্ব-স্ব জনকে তাদের পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

ঘোষের হাট এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুই জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত চাঁদপুর কন্ঠকে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রশিদ জানান,দুর্ঘটনার পর পর আমরা ট্রাক ও সিএনজি স্কুটারকিকে জব্দ করেছি। এ ঘটনায় কোন মামলা না হওয়ার কারনে বিকেলের দিকে উভযের পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে নিহতদের পরীক্ষার প্রবেশপত্র সূত্রে জানা যায়, নিহত ফাতেমা আলমের পরীক্ষা কেন্ত্র চাঁদপুর আলআমিন স্কুল এন্ড কলেজ এবং আব্দুল্লাহ পাটওয়ারীর পরীক্ষা কেন্দ্র ছিল বাবুরহাট হাই স্কুল এন্ড কলেজে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শুক্রবার সকালে বলাখাল বাজার এলাকা থেকে ৫ যাত্রী নিয়ে চাঁদপুর থ- ১১-৪১৬১ সিএনজি চালিত স্কুটারটি চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথিমধ্যে ঘোষের বাজার এলাকার শাহতলী রাস্তার মুখে বিপরীত থেকে আসা পিকআপ ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ্য ঘটে। এতে ঘটনাস্থলে ফাতেমা বেগম ও হাসপাতালে নেয়ার পথে আবদুল্লা পাটোয়ারী মারা যায়। বাকী ৩ যাত্রীর সবাই কমবেশী আহত হলেও অলৌকিকভাবে বেঁচে ও সুস্থ থেকে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় সিএনজি স্কুটার চালক ও ট্রাক চালক উভয়ে। দুর্ঘটনার পর পর স্থানীয়রা হতাহতের সাথে থাকা পরীক্ষার প্রবেশ পত্র থেকে নিশ্চিত হওয়া গেয়ে হতাহতরা প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের জন্য চাঁদপুরে যাচ্ছিল।

এদিকে ঘোষের হাটের এই দুর্ঘটনা নিয়ে হাজীগঞ্জে শোকের ছায়া নেমে আসে। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে এ নিয়ে গুঞ্জন আর গুজবের ডালপালা ছড়ায়। অনেকে আবার ৩ জন মৃত্যুর বিষয় নিয়ে ফেইজবুকে ষ্ট্যাটার্স দিতে দেখা গেছে তবে ২ জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। নিহত ফাতেমার পরিচয় অধিকাংশরা জানতে পারেনি।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়