সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১  |   ৩২ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

প্রকাশ : ৩১ জুলাই ২০২১, ২০:০২

হাসপাতালের দোতলা থেকে লাফিয়ে পড়লো এক করোনা রোগী

ভয় ও আতঙ্ক থেকে এমনটা করতে পারে : স্বামী ও শাশুড়ি

মিজানুর রহমান
হাসপাতালের দোতলা থেকে লাফিয়ে পড়লো এক করোনা রোগী

প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া এক করোনা পজিটিভ নারী রোগী স্বামী ও শাশুড়ির অগোচরে দোতলা থেকে লাফিয়ে পড়ে গুরুতর আহত হয়েছেন। গতকাল ৩১ জুলাই শনিবার বিকেল পাঁচটার দিকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার বারান্দার করিডোর থেকে (ইমারজেন্সি বিভাগের উত্তর পাশের গলিতে) ওই নারী রোগী নিচে লাফিয়ে পড়েন। এতে তার ডান পা গোড়ালিসহ থেঁতলে ভেঙ্গে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেয়ার পর পুনরায় হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে তার সিটে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে তিনি চিকিৎসাধীন আছেন। তার অবস্থা গুরুতর বলে জানা যায়। হতাশা থেকে তার এই আত্মহত্যার চেষ্টা বলে ধারণা করছে প্রত্যক্ষদর্শীরা।

৩৫ বছর বয়সী বিউটি বেগম নামে ওই নারী রোগীর বাপের বাড়ি চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২নং চান্দ্রা ইউনিয়নে। আর স্বামীর বাড়ি হাইমচর উপজেলার আলগী ভিঙ্গুলিয়া গ্রামে। সে এক ছেলে ও এক মেয়ের জননী। নিজের করোনা পজিটিভ এই ভয় এবং আতঙ্ক থেকে এই নারী হাসপাতালের দোতলা থেকে লাফ দেয় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

তার স্বামী খোকন হাওলাদার জানান, স্ত্রীকে নিয়ে টানা দশদিন তিনি হাসপাতালে। গতকাল আছর নামাজের সময় নামাজ পড়ার জন্যে তিনি মসজিদে যান। তখন তার মা বাথরুমে গেলে এই ফাঁকে সে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার বারান্দা থেকে নিচে পড়ে যায়। স্বামী খোকন হাওলাদার ও বিউটি বেগমের এক বোন জানান, তার মানসিক কোনো সমস্যা ছিল না। কী জন্য লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করতে চেয়েছিল বিউটি বেগম তার কিছুই তারা বলতে পারছেন না। তবে ভয়ে আতঙ্কে সে হয়ত এ কাজটি করেছে। তাকে অক্সিজেন সেবা দেয়াসহ চিকিৎসা ঠিকভাবেই চলছে বলে জানান তারা। এখন পায়ের অবস্থা কী হবে তার চিকিৎসা নিয়ে খুবই শঙ্কিত স্বামী ও স্বজনরা।

করোনা ওয়ার্ডে বিউটি বেগমের পাশে থাকা অন্যান্য রোগীর স্বজনরা জানান, স্ত্রীর জন্যে কোনো স্বামীর এ পরিস্থিতিতে এত কষ্ট করতে কাউকে তারা দেখেননি। করোনা চিকিৎসা চলাকালীন বিউটি বেগমের পাশে তার স্বামী খোকন হাওলাদার সার্বক্ষণিক ছিলেন। স্বামী ছাড়া এ রোগীর কাছে অন্য কোনো স্বজন বা বিউটি বেগমের বাবা মা কেউ আসেননি।

এদিকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ হাবিব উল করিম জানান, করোনা পজিটিভ একজন নারী রোগী দোতলা থেকে লাফিয়ে পড়েছে এমন খবর জেনে তিনি তাৎক্ষণিক রোগীর খোঁজখবর নিয়েছেন। মানসিক সমস্যা থেকে এ ঘটনা হতে পারে বলে তিনি ধারণা করছেন।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়