চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪  |   ২৪ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   বিজয়ের মাস ডিসেম্বর শুরু
  •   হাজীগঞ্জের কিউসি টাওয়ারে আগুন :  আহত ১০ 
  •   ৪৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, শূন্যপদ ২৩০৯
  •   করোনার টিকার চতুর্থ ডোজ দেওয়ার সুপারিশ
  •   চাঁদপুর শহরে বিদ্যুৎষ্পৃষ্টে এক যুবকের শরীর জ্বলসে গেছে

প্রকাশ : ২৪ নভেম্বর ২০২২, ১৭:০৬

মাটির তৈরি মৃৎশিল্প বিলুপ্তির পথে

আব্দুল মান্নান সিদ্দিকী
মাটির  তৈরি মৃৎশিল্প বিলুপ্তির পথে

মাটি দিয়ে তৈরি মৃৎশিল্প এখন বিলুপ্তির পথে। যুগ যুগ ধরে মানুষ নিত্য প্রয়োজনে মাটির হাড়ি পাতিল,কলস,থালা,বাসন, বাটি ব্যবহার করতেন। এসব মাটির হাড়ি পাতিলে রান্না করতেন,মাটির কলসে পানি এনে রাখতে খাবারের জন্য। বাসন কুশনে খাবার খেতেন।

অতিথিরা আসলে তাদেরকেও মাটির বাসনে খাবার পরিবেশন করা হতো। এসব দ্রব্য মাটি দিয়ে তৈরি করতেন জারা তাদেরকে বলা হয় কুমার। আধুনিক যুগে তা হারিয়ে গেলওকিছু কিছু এলাকায় এখন ও এইসব দ্রব্য তৈরি হচ্ছে। ঢাকা জেলার দোহার জয়পাড়া খাড়াকান্দি এলাকার কুমার বাড়ির রিতা দেবী, জয় পাড়া কলেজ গেট সংলগ্ন পল্লী ভবনের সম্মুখীন,মাটি তৈয়ারী,হাড়ি পাতিল কলস থালা-বাসন,মাটির ব্যাংক,নিয়ে সকাল হতে দুপুর পর্যন্ত অপেক্ষা করছিলেন তাদের তৈরি কৃত হাড়ি পাতিল বিক্রির জন্য।

তিনি এ প্রতিনিধিকে জানান,সকাল থেকে দুপুর পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত কোন কিছু বিক্রি হয় না। এইচ এস সি পরীক্ষা শুরু হওয়ার কারণে পরীক্ষা কেন্দ্রের কাছাকাছি মাটির তৈরি বিভিন্ন জিনিস নিয়ে বসেছিলেন অনেক আশা নিয়ে। ,এখানে অনেক অভিভাবক আসলেও কেউ মাটির তৈরি জিনিসপএ কিনছেন না। এতে করে তিনি হতাশায় ভূগছেন।প্রকাশ করে বলেন, কুমাররা মাটির তৈরি কৃত শিল্প কেউ বানাচ্ছেন না।কুমার উদের জীবন জীবিকার তাগিদে নিজপেশা ছেড়ে অন্য পেশা বেছে নিয়েছেন। তাই আজ মৃৎশিল্প বিলুপ্তির পথে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়