চাঁদপুর, রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯, ১৩ রজব ১৪৪৪  |   ১৬ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   কচুয়ায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নব-নিয়োগপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকদের সাথে এমপির মতবিনিময়
  •   খলিশাডুলীতে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
  •   জানুয়ারিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩২২ জনের মৃত্যু
  •   আজ রোটারিয়ান মরহুম দেওয়ান আবুল খায়েরের ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী
  •   ফরিদগঞ্জে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্র ও মাদকসহ আটক তিন

প্রকাশ : ২৩ মে ২০২২, ০০:০০

শ্রমিককে গরম তেলে ঝলসে দিলো হোটেল মালিক
গোলাম মোস্তফা ॥

চাঁদপুর শহরের বড়স্টেশন লঞ্চ ঘাটের বিআইডব্লিউটিএর কেন্টিন সুইটি হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের মালিক আঃ মালেক বেপারীর কাছে বকেয়া বেতন চাওয়ায় তা না দিয়ে উল্টো শ্রমিককে গরম তেল ছুড়ে শরীর ঝলসে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

চাঁদপুর সদর মডেল থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সুইটি হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট ও সুইটি ডেইরি ফার্মের কর্মচারী কোয়েল হোসেন ও তার স্ত্রী সাবিনা ইসলাম গত ৬ মাস ধরে মালেক বেপারীর মালিকানাধীন উক্ত দুটি স্থানে চাকুরি করেন। কিন্তু মালেক বেপারী এই দম্পতির মাসিক বেতন ঠিকমতো দিতেন না। বেতনের পাওনা টাকা চাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে মালেক বেপারীর ভাতিজি জামাই টিটু কোয়েল হোসেন ও সাবিনা ইসলাম দম্পতিকে বেশকিছু দিন যাবৎ নির্যাতন চালিয়ে আসছে। এ ঘটনায় মালেক বেপারীর কাছে বিচার চাইলে তিনি উল্টো ক্ষিপ্ত হয়ে কোয়েল হোসেন ও সাবিনা ইসলাম দম্পতির ওপর গরম তেল ছুড়ে মারে। তাতে কোয়েল হোসেনের শরীরের বিভিন্ন স্থান ঝলসে যায়। এক পর্যায়ে গরম তেলে আহত কোয়েল হোসেন চিকিৎসার জন্যে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হলে মালেক বেপারী প্রভাব খাটিয়ে আহত দম্পতিকে জোরপূর্বক বরিশাল পাঠিয়ে দেন।

এদিকে এ ঘটনায় কোয়েল হোসেন বাদী হয়ে চাঁদপুর মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে মালেক বেপারী বলেন, ৪/৫ মাস আগে তাদেরকে আমার ফার্মে গরু দেখাশোনার জন্যে নিয়োগ দিয়েছি। তাদের দু জনের মাসিক বেতন দেই ২০ হাজার টাকা। তাছাড়া থাকাণ্ডখাওয়া সব আমার উপর। তাদের বিশ্বাস করে কাজে রেখেছিলাম, কিন্তু তারা সেই বিশ্বাসে আঘাত করেছে। এজন্যে মনের জিদে তেল মেরেছি। কিন্তু সেটা গরম তেল নয়।

চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রশিদ বলেন, যদি মালিক পক্ষের কর্মচারী পছন্দ না হয় তাকে বাদ দিয়ে দিতে পারে। তাকে মারধর করতে পারে না। যে অভিযোগ আমরা পেয়েছি তাতে উল্লেখ রয়েছে, কর্মচারীর শরীরে গরম তেল নিক্ষেপ করা হয়েছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়